টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :

ইউরো: আজ মরণ গ্রুপে মরণ-বাঁচন লড়াই

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৭ জুন, ২০১২
  • ২৫০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

হাতি কিংবা ভোঁদড়ের ওপর আর ভরসা-টরসা নয়। ইউরোর ‘গ্রুপ অব ডেথ’-এ পর্তুগাল বনাম নেদারল্যান্ডসের বাঁচার লড়াইয়ের আগে দু’দলের প্লেয়াররাই মেগা ম্যাচ নিয়ে ভবিষ্যদ্বাণী শুরু করে দিয়েছেন। ম্যাচটা তো শুধু পর্তুগাল-নেদারল্যান্ডস নয়। আজই ইউরো থেকে ছিটকে যাবে হয় বিশ্বকাপ রানার্স। অথবা ইউরোপের সেরা ফুটবলার। হয় নেদারল্যান্ডস। অথবা রোনাল্ডো। জন হেতিঙ্গা (ডাচ ডিফেন্ডার): জার্মানরা আগের ম্যাচে আমাদের হারানোর দিনই ডাচ টিমকে কথা দিয়েছে, শেষ ম্যাচে ওরা ডেনমার্ককে হারিয়ে আমাদের সাহায্য করবে। রুই প্যাট্রিসিও (পর্তুগাল গোলকিপার): রোনাল্ডো ডাচদের বিরুদ্ধে গোল করবেই। ও টানা তিন ম্যাচ কখনও গোল না করে থাকেনি।

নাইজেল দে জং (ডাচ মিডফিল্ডার): চারটের মধ্যে তিনটে টিম গ্রুপে তিন পয়েন্টে শেষ করতে পারে। আমরা তার মধ্যে থাকবই শুধু নয়, আমরাই পরের রাউন্ডে যাব।

মারউইক (নেদারল্যান্ডস কোচ): আগের দুটো ম্যাচে দু’জন হোল্ডিং মিডফিল্ডার নিয়ে নেমে হেরেছি। পর্তুগাল ম্যাচে অবশ্যই নতুন স্ট্র্যাটেজিতে খেলব আর নতুন রেজাল্টও হবে। এ বার আমরা জিতব।

‘গ্রুপ অব ডেথে’র বর্তমান অবস্থাটা যতই জটিল হোক, কমলা বাহিনীর সঙ্গে সেলেকাও-দের ম্যাচের অঙ্কটা বেশ সোজা। নেদারল্যান্ডসকে অন্তত দু’গোলের ব্যবধানে হারাতে হবে পর্তুগালকে। আর দেখতে হবে, একই সময় খেলা অন্য ম্যাচে জার্মানির থেকে যেন কোনও পয়েন্ট না পায় ডেনমার্ক। তা হলেই শেষ আটে জার্মানদের সঙ্গী হতে পারবে ডাচরা।

নেদারল্যান্ডস অধিনায়ক ফান বোমেল দুঃখ করে বলেছেন, “গ্রুপে দু’টো ম্যাচই হারায় আমাদের যে রকম কঠোর সমালোচনা করা হচ্ছে, ততটা নিন্দা আমাদের প্রাপ্য নয়। নেদারল্যান্ডস কোয়ার্টার ফাইনালে উঠলেই আমি নিশ্চিত, সমালোচকদের গলায় অন্য সুর শোনা যাবে।” সঙ্গে টিমের বস মারউইকের জামাই বোমেল যোগ করেছেন, “দু’বছর আগে বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলার সময় আমি হিরো ছিলাম। আর এখন আমার পরিচয় শুধুই নেদারল্যান্ডস কোচের জামাই।”

শ্বশুর কোচের স্ট্র্যাটেজির সমালোচনাকেও মানতে নারাজ জামাই অধিনায়ক। রুদ খুলিত সবচেয়ে বেশি নিন্দা করেছেন নেদারল্যান্ডসের গত দু’ম্যাচের স্ট্র্যাটেজির। “আমরা হেরেছি বলেই আমাদের খেলার স্টাইল নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে। পর্তুগাল ম্যাচে জিততে পারলে সেই জয় যে রকম স্ট্র্যাটেজিতে খেলেই আসুক না কেন, তখন সেই স্ট্র্যাটেজির ধন্য ধন্য হবে,” বলেছেন বোমেল।

বিশ্বকাপের সঙ্গে ইউরোয় নেদারল্যান্ডসের ড্রেসিংরুমের কোনো মিলই খুঁজে পাচ্ছেন না যিনি, সেই স্নাইডার আবার বিনয়ী। দলের খারাপ পারফরম্যান্সের জন্য বারবার সমর্থকদের কাছে ক্ষমা চাইছেন এবং অনুরোধ করছেন, “আমাদের সমর্থকেরা যেন আর এক বার আমাদের ওপর বিশ্বাস রাখেন। আর এক বার আমাদের সমর্থন করেন। যার প্রতিদান তাঁরা পর্তুগাল ম্যাচে পাবেনই।”

মোরিনহোর থেকে ডাচরা সাহস পেতে পারেন। তিনি বলেছেন, ‘পর্তুগাল ফেভারিট নয়।” কিন্তু ডেনমার্কের বিরুদ্ধে শেষ মুহূর্তের গোলে জেতার পর রোনাল্ডোর প্রচুর মিস নিয়েও আর যেন টেনশনাক্রান্ত নয় পর্তুগিজ টিম। বরং রোনাল্ডোয় ভরসা একটুও কমেনি। পর্তুগাল গোলকিপার প্যাট্রিসিও বলেছেন, “রোনাল্ডো সব সময় ভালো খেলে। ভাল খেলছে বলেই তো গোল করার সুযোগ পাচ্ছে।” পাওলো বেন্টোর দলের পক্ষে ভালো খবর, পুরো টিম ফিট। আর উৎসাহিত হওয়ার মতো তথ্য, নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে শেষ ১০ ম্যাচে তারা জিতেছে ৬ বার। হার মাত্র ১টা।

তা সত্ত্বেও বিশ্বকাপ রানার্সরা আত্মবিশ্বাসী নকআউটে ওঠা নিয়ে। ডাচ ডিফেন্ডার নাইজেল দে জং বলেছেন, “পর্তুগাল ভাল টিম। ওদের দু’জন অ্যাটাকার ভাল। কিন্তু আমরা আরও ভাল দল। দু’গোলের ব্যবধানে জেতাটা তাই আমাদের অসম্ভব নয়।”

বার্তা২৪ ডটনেট/

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT