টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
টেকনাফে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে সিএনজি চালক খুন তালিকা দিন, আমি তাঁদের নিয়ে জেলে চলে যাব: একজন পুলিশও পাঠাতে হবে না: বাবুনগরী টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসারের উদ্যোগে মানসিক রোগিদের মধ্যে খাবার বিতরণ বাংলাদেশে নারীর গড় আয়ু ৭৫, পুরুষের ৭১: ইউএনএফপিএ ফেনসিডিল বিক্রির অভিযোগে ৩ পুলিশ কর্মকর্তা প্রত্যাহার দেশের ৮০ ভাগ পুরুষ স্ত্রীর নির্যাতনের শিকার’ এ বছর সর্বনিম্ন ফিতরা ৭০ টাকা, সর্বোচ্চ ২৩১০ হেফাজতের বর্তমান কমিটি ভেঙে দিতে পারে: মামলায় গ্রেফতার ৪৭০ জন মৃত্যু রহস্য : তিমি দুটি স্বামী – স্ত্রী : শোকে স্ত্রী তিমির আত্মহত্যাঃ ধারণা বিজ্ঞানীর দেশে নতুন করে দরিদ্র হয়েছে ২ কোটি ৪৫ লাখ মানুষ

‘অনলাইন মিডিয়ার ওপর মানুষ বেশি নির্ভরশীল’

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০১৩
  • ১৪৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ঢাকা: সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা এবং দায়বদ্ধতা প্রসঙ্গে পেশাদারিত্ব এবং দায়বদ্ধতাই গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে পারে বলে উল্লেখ করেছেন দৈনিক জনকণ্ঠের উপদেষ্টা সম্পাদক তোয়াব খান।

শুক্রবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ‘গণমাধ্যম: স্বাধীনতা ও দায়বদ্ধতা’ শীর্ষক গণমাধ্যম সংলাপে অন্যান্য বক্তার সঙ্গে একমত পোষণ করে তিনি এ কথা বলেন।

জার্নালিজম অ্যান্ড পিস ফাউন্ডেশন (জেপিএফ) এই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

তোয়াব খান বলেন, “একজন সাংবাদিক তার বিবেক, সমাজ এবং রাষ্ট্রের কাছে দায়বদ্ধ। রাষ্ট্রের পেছনে ৩০ লাখ শহীদের রক্ত রয়েছে তা ভুলে না গিয়ে এবং সংবিধান মেনে চললেই গণমাধ্যমের স্বাধীনতা রক্ষায় নতুন কোনো নীতিমালা তৈরির প্রয়োজন নেই।”

ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি ইনডিপেন্ডেন্টের সম্পাদক মাহবুবুল আলম বলেন, “বর্তমানে বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যমের যে চিত্র দেখা যাচ্ছে- তা আগে ছিল না। আজ কেবল প্রিন্ট বা ইলেকট্রনিক মিডিয়ার ওপর মানুষ নির্ভরশীল নয়।

অনলাইন মিডিয়া এবং সোশাল মিডিয়ার ওপর অনেক বেশি নির্ভরশীল। ধীরে ধীরে সবাই অনলাইন মিডিয়ার দিকে চলে যাবে। কারণ অনলাইন মিডিয়াতে তাৎক্ষণিক সংবাদ পাওয়া যায়। দ্রুত সংবাদ প্রচার করতে গিযে কখনও কখনও নিয়ম নীতি ভঙ্গ হতে পারে। সেক্ষেত্রে নতুন নীতিমালা তৈরি না করে দেশের প্রচলিত আইনের প্রয়োগ থাকলেই দায়বদ্ধতা এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত হতে পারে।”

দৈনিক প্রথম আলোর যুগ্ম সম্পাদক সোহরাব হাসান বলেন, “কারও স্বাধীনতাই শর্তহীন নয়- এই বিষয়টি স্বীকার করলেই সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা নিয়ে কোনো প্রশ্ন উঠবে না। বর্তমানে বাংলাদেশের সংবাদ মাধ্যম অন্যান্য যে কোনো সময়ের ‍চেয়ে বেশি স্বাধীনতা ভোগ করছে যে কারণে সরকার, বিরোধী দল এবং অন্যান্য দলগুলো সংবাদ মাধ্যমকে ভয় পাচ্ছে।”

দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম বলেন, “যে কোনো দল- ক্ষমতায় গেলে তারা মনে করেন গণমাধ্যম তার হাতিয়ার হিসেবে কাজ করবে। যে কারণে তারা সাংবাদিকদের বিভাজন করেন। সাংবাদিকদের দায়বদ্ধতা থেকে বিচ্যুত করেন। সাংবাদিকদের দায়বদ্ধতা আত্মকেন্দ্রীক না হলে নীতিমালা তৈরি করে তা সৃষ্টি করা যায় না।”

দৈনিক সংবাদের কার্যনির্বাহী সম্পাদক মনিরুজ্জামান বলেন, “বর্তমানে সাংবাদিকদের দায়বদ্ধতা রয়েছে দলীয়, রাজনৈতিক এবং মালিকের কাছে। যেখানে দায়বদ্ধতা থাকার কথা ছিল সেখানে নেই। এসব দায়বদ্ধতা থেকে বেরিয়ে আসতে পারলেই সাংবাদিকদের স্বাধীনতা এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা নিশ্চিত হবে।”

দৈনিক ইত্তেফাকের কার্যনির্বাহী সম্পাদক শাহীন রেজা নূর বলেন, “সাংবাদিকদের পেশাদারিত্ব ভূ-লুণ্ঠিত হওয়ার পেছনে সাংবাদিক নেতাদেরও কিছু ভুল ছিল। কিছু কিছু ক্ষেত্রে তারা সঠিকভাবে নেতৃত্ব দিতে পারেননি।”

আয়োজক সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক হারুন হাবিবের সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-  দৈনিক ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস)’র প্রধান সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, এটিএন নিউজের প্রভাস আমিন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ এবং সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. গোলাম রহমান, এজেডএম শফিউল আলম প্রমুখdru--SM-

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT