টেকনাফে মুসলিম এইড হাসপাতালে তালা ঝুলিয়েছে সন্ত্রাসীরা

প্রকাশ: ২৪ জুন, ২০১২ ২:৫৬ : অপরাহ্ণ

॥ রোগীদের অবর্নণীয় দূর্ভোগ ছৈয়দ আলম, টেকনাফ ॥ অযোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়ার অন্যায় আবদার রক্ষা করতে না পারায় টেকনাফে মুসলিম এইড’র কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল। সন্ত্রাসীদের দিয়ে মুসলিম এইড হাসপাতালে তালা ঝুলিয়েছে ওই মহল। এতে স্থানীয় গ্রামীন ও রোহিঙ্গা ক্যাম্পের শত শত রোগীদের অবর্নণীয় দূর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। সম্প্রতি ৮ অযোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগ না দেয়ায় ওই প্রভাবশালী মহল গতকাল ২৪ জুন লেদাস্থ মুসলিম এইড হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। এ নিয়ে এলাকায় সচেতন মহলে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। জানা যায়, গত ৫ মে এনজিও সংস্থা মুসলিম এইড পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে মেডিকেল সাইটসহ বিভিন্ন পোস্টে নিয়োগ আহবান করে। এ প্রেক্ষিতে ৫-৭ জুন টেকনাফস্থ মুসলিম এইড অফিসে সংস্থার বিধি মোতাবেক প্রায় নিয়োগ পরীক্ষা সম্পন্ন হয়। ওই নিয়োগ পরীক্ষায় ৩শ’ জন প্রার্থীদের মধ্যে মাত্র ২৩ জন উর্ত্তীণ হয়। এতে স্থানীয় লেদা এলাকার ৮ অযোগ্য প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়ার জন্য ওই এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল অন্যায় আবদার করে আসছিল। কিন্তু মুসলিম এইড তাদের উন্নত সেবা কার্যক্রম অব্যাহত রাখার স্বার্থে ওই অযোগ্য প্রার্থীদের নিয়োগে অনীহা প্রকাশ করে। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে ওই প্রভাবশালী মহল। তারা বিভিন্নভাবে তদবীর ও হুমকি-ধমকি দিয়েও উক্ত ৮ অযোগ্য প্রার্থীকে অন্যায়ভাবে নিয়োগ দিতে মুসলিম এইড কর্তৃপক্ষকে রাজি করাতে পারেনি। গতকাল ২৪ জুন সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মুসলিম এইড টেকনাফ অফিসে উক্ত নিয়োগ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ২৩ প্রার্থীদের যোগদান পত্র গ্রহণ কার্যক্রমের খবর পেয়ে হ্নীলা লেদা এলাকার প্রভাবশালী গডফাদার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভূক্ত শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলমের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অবস্থিত মুসলিম এইড হাসপাতালে গিয়ে রোগী, চিকিৎসক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হুমকি-ধমকি ও মারধরের ভয় দেখিয়ে বের করে দিয়ে হাসপাতাল ও বিভিন্ন সেবা কার্যক্রমে তালা ঝুলিয়ে দেয়। এতে এতে স্থানীয় গ্রামীন ও রোহিঙ্গা ক্যাম্পের শত শত রোগীদের অবর্নণীয় দূর্ভোগে পড়ে। এ নিয়ে এলাকায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে।


সর্বশেষ সংবাদ