করোনা সংক্রমিত দাবি করে টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ ২ পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

প্রকাশ: ২২ মার্চ, ২০২০ ২:১৯ : পূর্বাহ্ণ

বিদেশ ফেরত এক ব্যক্তির কাছে লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। করোনাভাইরাসে সংক্রমিত দাবি করে ওই প্রবাসীর কাছ থেকে চাঁদা দাবি করেন মিঠামইন থানার দুই উপপরিদর্শক (এসআই)।

জানা গেছে, মিঠামইন উপজেলার ঘাগড়া গ্রামে গত এক সপ্তাহ আগে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী একজন মালয়েশিয়া প্রবাসী। দুই এসআইয়ের নাম, নজরুল ইসলাম ও কিরণ।

গত ১৫ মার্চ মালয়েশিয়া ফেরত ওই ব্যক্তি সামাজিক যোগযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি ভিডিও প্রকাশ করে নিজের অভিযোগ তোলেন। পৌনে দুই মিনিটের ওই ভিডিওতে তিনি বলেন, আট বছর পর তিনি গত ৭ মার্চ দেশে ফেরেন। গত ১৩ মার্চ বিকেল ৩টার দিকে মিঠামইন থানার এসআই নজরুল ইসলাম ও এসআই কিরণ তার বাড়ি যান। তাকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে দাবি করেন তারা। পরে এক লাখ টাকা দাবি করেন দুই এসআই। টাকা না দিলে তাকে হাতকড়া পরিয়ে থানায় নিয়ে যাওয়াসহ বিভিন্ন ধরনের হুমকি দেওয়ারও অভিযোগ এই প্রবাসীর।

ভিডিওটি প্রকাশ পেলে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়। পরে বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য রেজওয়ান আহম্মদ তৌফিকের সঙ্গে কথা হলে দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।

স্থানীয় সংসদ সদস্য বলেন, ভিডিওটি তিনি ফেসবুকে দেখেছেন। বিষয়টি সত্য হলে তা খুব দুঃখজনক। বিষয়টি অধিকতর তদন্ত করে সত্যতা যাচাই করে ব্যবস্থা নেওয়া উচিত বলে মনে করেন তিনি।

কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিষয়টির সত্যতা যাচাইয়ে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘সত্য-মিথ্যা তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে (ইটনা, মিঠামইন ও অষ্টগ্রাম সার্কেল) নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এসএম আজিজুল হক জানান, তিনি বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছেন। তদন্ত শেষে পুলিশ সুপারের কাছে প্রতিবেদন আকারে জমা দেওয়া হবে।


সর্বশেষ সংবাদ