কওমি মাদ্রাসা বন্ধের সম্ভাবনা

প্রকাশ: ১৭ মার্চ, ২০২০ ২:৩৮ : পূর্বাহ্ণ

করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় সোমবার (১৬ মার্চ) দুপুরে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। এই ঘোষণার আওতায় সরকারি আলিয়া মাদ্রাসাগুলো থাকলেও কওমি মাদ্রাসার বিষয়ে কোনও নির্দেশনা নেই। এমনকি রাত পর্যন্ত বন্ধের কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। রাজধানীসহ ঢাকার বাইরের কিছু এলাকার কওমি মাদ্রাসাগুলোয় যোগাযোগ করে জানা গেছে, সোমবার (১৬ মার্চ) বিকাল পর্যন্ত কোনও নির্দেশনা দেওয়া হয়নি। এমনকি কওমিভিত্তিক নারী মাদ্রাসাগুলোও কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি। তবে, মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দুপুর নাগাদ বন্ধের সিদ্ধান্ত আসতে পারে, এমন সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন একাধিক দায়িত্বশীল ব্যক্তি।

কওমি মাদ্রাসার সমন্বিত বোর্ড আল হাইয়াতুল উলয়া লিল জামিআতিল কওমিয়াহর দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানায়, করোনা ভাইরাসের বিশেষ পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার সকাল ১০টায় ঢাকার মতিঝিলে বোর্ডের কার্যালয়ে জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে। তবে বৈঠকটি হচ্ছে বাংলাদেশ কওমি মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের তত্ত্বাবধানে। এই বৈঠকে ছয় বোর্ডের প্রধান অংশ নেবেন, এমন সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে একটি সূত্র।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে উলয়ার সদস্য, শোলাকিয়া ঈদগাহের খতিব মাওলানা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘কাল বৈঠক আছে। ওই বৈঠকেই সিদ্ধান্ত আসতে পারে।’

এরআগে, সোমবার দুপুর নাগাদ সারা দেশের স্কুল-কলেজ বন্ধের সরকারি নোটিশের পর কওমি মাদ্রাসাগুলোতেও আলোচনা শুরু হয়। তবে মাদ্রাসায় এখন কেন্দ্রীয় পরীক্ষার প্রস্তুতি চলমান থাকায় এবং সামনের এপ্রিল থেকে রমজান মাস শুরু হবে, এমন বাস্তবতায় ঠিক কী করণীয় হবে, তা নিয়ে আলেমদের মধ্যে দ্বিধাদ্বন্দ্ব রয়েছে।

এ বিষয়ে বাংলা ট্রিবিউনকে দারুল উলুম হরষপুর মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা বেফাকের সিদ্ধান্ত এখনও পাইনি। সিদ্ধান্ত এলেই এ বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ করা হবে।’

মাদ্রাসা বন্ধের বিষয়ে দুপুরে রাজধানীর পুরান ঢাকার একটি নারী মাদ্রাসার অধ্যক্ষ জানান, তারা এখনও ঠিক করতে পারেননি, কী করবেন। তবে করোনা ভাইরাস নিয়ে রাষ্ট্রীয়ভাবে নানা ধরনের আলোচনা-সমালোচনা অব্যাহত থাকায় সিদ্ধান্তহীনতা সৃষ্টি হয়েছে, বলে জানান তিনি।

জানতে চাইলে ঢাকার আজিমপুরের ফয়জুল উলুম মাদ্রাসার সিনিয়র শিক্ষক মুফতি লুৎফুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘মাদ্রাসায় এখন পরীক্ষার প্রস্তুতি চলছে। আগামীকাল বোর্ডগুলো বৈঠক করবে বলে শুনেছি। হয়তো আপৎকালীন হিসেবে সরকার যেভাবে ১০-১২ দিনের ছুটি দিয়েছে, সেরকমই হতে পারে। কাল দায়িত্বশীলরা সিদ্ধান্ত নেবেন।’


সর্বশেষ সংবাদ