ভারত পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে নিয়েছে

প্রকাশ: ২ মার্চ, ২০২০ ১০:৫৩ : অপরাহ্ণ

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক::  পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে নিয়েছে ভারত সরকার। এটি কার্যকর হবে আগামী ১৫ মার্চ থেকে। সোমবার দেশটির বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের এক নোটিশে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে রপ্তানির ক্ষেত্রে ন্যূনতম মূল্যের শর্তটিও প্রত্যাহার করা হয়েছে। ফলে ভারতীয় ব্যবসায়ীরা যে কোনো মূল্যে পেঁয়াজ রপ্তানি করতে পারবে। এলসি খোলার ক্ষেত্রেও প্রত্যাহার করা হয়েছে সব ধরনের শর্ত।

এর আগে পেঁয়াজ রপ্তানি নীতিমালায় যে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল সেটিতেই  সংশোধনী আনলো দেশটির কেন্দ্রীয় সরকার। এর ফলে ব্যাঙ্গালুরু রোজ পেঁয়াজ, কৃষ্ণপুরাম পেঁয়াজসহ দেশটির সব ধরনের পেঁয়াজ রপ্তানিতে আর কোনো বাঁধা থাকল না।

গত বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর পেঁয়াজ রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে ভারত সরকার। এর ফলে হঠাৎ করেই বাংলাদেশে পেঁয়াজের দাম বেড়ে যায়। এক পর্যায়ে তা তিনশ’ টাকা পর্যন্ত ওঠে। তুরস্ক, মিয়ানমার, পাকিস্তানসহ অন্যান্য দেশ থেকে পেঁয়াজ আমদানি করেও পরিস্থিতি সামাল দেওয়া যাচ্ছিল না। বাজারে দেশি পেঁয়াজ ওঠার পরও দাম একশ’র নিচে নামছিল না।

গত কয়েক দিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল, পেঁয়াজ রপ্তানিতে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিচ্ছে ভারত। এর ফলে দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করে। বৃস্পতিবার রাজধানীর খুচরা বাজারে কেজিতে ২০ টাকা কমে দেশি পেঁয়াজ ৮০ থেকে ১০০ টাকা ও আমদানি পেঁয়াজ ৭০ থেকে ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছিল। তবে সোমবার শ্যামবাজারে প্রতিকেজি চীন, মিসর ও তুরস্কের পেঁয়াজ ৫০ থেকে ৫৫ টাকা ও মিয়ানমার ও পাকিস্তানের পেঁয়াজ ৬০ থেকে ৬৫ টাকায় এবং দেশি পেঁয়াজ ৬০ থেকে ৭০ টাকা কেজিতে বিক্রি হয়েছে।


সর্বশেষ সংবাদ