রোহিঙ্গা বিষয়ে আন্তর্জাতিক আদালতের রায়কে স্বাগত জানালো সাইপ্রাস

প্রকাশ: ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ৬:৪৪ : অপরাহ্ণ

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক::
রোহিঙ্গা বিষয়ে আন্তর্জাতিক আদালতের রায়কে স্বাগত জানিয়েছে সাইপ্রাস। সম্প্রতি পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেনকে লেখা এক পত্রে সাইপ্রাসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী নিকোস ক্রিস্টোডলাইডস মিয়ানমার কর্তৃক রোহিঙ্গাদের মানবাধিকার হরণের নিন্দা জানান।

বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, সাইপ্রাস আন্তর্জাতিক আইন, মানবাধিকার ও মৌলিক স্বাধীনতা লঙ্ঘনের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন সাইপ্রাসের পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

নিকোস ক্রিস্টোডলাইডস বলেন, সাইপ্রাস প্রথম থেকেই রোহিঙ্গা বিষয়ে
>রোহিঙ্গা বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের গভীর উদ্বেগ পর্যবেক্ষণ করছে। আমরা বিশ্বাস করি, আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন অনুসারে, রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা ও কল্যাণে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসা উচিত। সাইপ্রাসের দেশীয় এবং বৈদেশিক নীতিতে মানবাধিকার, ন্যায়বিচার ও আন্তর্জাতিক আইন সমর্থন করে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ জানুয়ারি মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার দায়ের করা মামলায় অন্তর্বর্তীকালীন রায়ে মিয়ানমারের প্রতি চারটি নির্দেশনা দেয় নেদারল্যাডন্সের দ্য হেগের আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালত (আইসিজে)।

রায়ে বলা হয়, রাখাইনে বসবাসরত সাড়ে ছয় লাখ রোহিঙ্গা মুসলিম ঝুঁকিতে রয়েছে। তাদের সুরক্ষা দেয়ার জন্য মিয়ানমার সরকারকে কার্যকরী ব্যবস্থা নিতে হবে। মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর লাগাম টেনে ধরতে হবে। আদালত বলেছেন, সেনাবাহিনী কিংবা অন্য যেকোনো ধরনের নিরাপত্তা বাহিনী যাতে গণহত্যা না চালায় কিংবা উস্কানি না দেয়, সেজন্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

রোহিঙ্গা গণহত্যা সংক্রান্ত যেসব অভিযোগ এসেছে, সে সংক্রান্ত তথ্য-প্রমাণ সংরক্ষণ করতে মিয়ানমারের প্রতি নির্দেশ দেয়া হয় রায়ে।

রায় অনুয়ায়ী, রোহিঙ্গাদের সুরক্ষা দেয়ার জন্য মিয়ানমার কী ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে, সে সংক্রান্ত প্রতিবেদন আগামী চার মাসের মধ্যে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতের কাছে জমা দিতে হবে। এরপর প্রতি ৬ মাসে একটি করে প্রতিবেদন জমা দিতে হবে। এসব প্রতিবেদন গাম্বিয়ার কাছে তুলে ধরা হবে।


সর্বশেষ সংবাদ