শাহপরীর দ্বীপে বসতবাড়িতে অগ্নিকাণ্ডে ২৫ লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি

প্রকাশ: ২১ জানুয়ারি, ২০২০ ৯:৩৯ : অপরাহ্ণ

জসিম মাহমুদ, টেকনাফ[]

টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের শাহ পরীর দ্বীপ গ্রামে অগ্নিকাণ্ডে ১টি ঘর আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে শাহ পরীর দ্বীপ দক্ষিণ পাড়ার জহির আহম্মদ এর বসতবাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে।
আগুন লাগার খবর পেয়ে টেকনাফ স্টেশন ফায়ার সার্ভিস ও রেডক্রিসেন্ট সিপিপি, শাহপরীর দ্বীপ টীমের সদস্যরা আগুন নেভাতে এগিয়ে আসে। তবে তারা আগুন নেভাতে আসার আগেই বাড়ির অধিকাংশ পুড়ে ছাই হয়ে যায় বলে জানান বাড়ির লোকজন।
সাবরাং ইউনিয়নের ৭ নাম্বার ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য নুরুল আমিন জানান, মঙ্গলবার বেলা ১১টার সময় শাহ পরীর দ্বীপ দক্ষিণ পাড়ার জহির আহম্মদের টিন ও বাঁশের বেড়ার তৈরী একটি রান্নার ঘরের লাকড়ি চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। এসময় দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়লে ঘরের সেমিপাকা ৮ কক্ষ বিশিষ্ট ঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও আসবাবপত্র ইত্যাদির বেশি ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে এই অগ্নিকাণ্ডে ঘটনায় ২৫ লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।
বাড়ির মালিক জহির আহমেদ জানান,বাড়িতে আগুন ধরার সাথে সাথে ৯৯৯ এ কল দিয়ে টেকনাফ ফায়ার সার্ভিসে খবর জানায়। টেকনাফ থেকে ফায়ার সার্ভিস আসতে আসতে ঘরের প্রায় অংশ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। পরে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।
তিনি আরো জানান, বাড়িতে ৫ লক্ষ ৬০ হাজার নগদ টাকা ছিল। ছেলেকে বিদেশ পাঠানো জন্য টাকা গুলো বাড়িতে এনে রেখেছিলাম, তাছাড়া ১২ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ছিল। কিছুই বের করে আনতে পারিনি। আসবাবপত্রসহ সবকিছু পুড়ে যায়।
টেকনাফ ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ মুকুল কুমার নার্থ বলেন, টেকনাফ শাহপরীর দ্বীপের যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো না হওয়ায় ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে একটু দেরি হয়ে যায়। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে, লাকড়ি চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। ঘরটির সেমিপাকা ৮টি কক্ষ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। তবে এতে কোনো লোকজন হতাহত হয়নি।


সর্বশেষ সংবাদ