সন্তান না হওয়ায় ছেড়ে গেলেন স্ত্রী, রাগে পুরুষাঙ্গ কাটলেন স্বামী

প্রকাশ: ২ জানুয়ারি, ২০২০ ৮:৩৬ : অপরাহ্ণ

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক:: বিয়ের দীর্ঘদিন কেটে গেলেও দেখা মেলেনি সন্তানের। তাই বিষয়টি নিয়ে মাঝে মাঝেই ঝগড়া হতো স্বামী-স্ত্রীর। সম্প্রতি সন্তান না হওয়া নিয়ে ঝগড়ার জেরে স্বামীর বাড়ি থেকে চলে যান স্ত্রী। আর সেই ক্ষোভে নিজের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেললেন স্বামী।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া জানায়, কয়েক বছর আগে ৩৫ বছর বয়সী দেবীকে বিয়ে করেন ৪০ বছর বয়সী বাবু নামের ব্যক্তি। তারা তামিলনাড়ুর নিউ ওয়াসারমেনপেটের সুনামি নামক একটি কলোনিতে থাকেন। বিয়ের প্রথম কয়েক বছর ভালো গেলেও পরবর্তীতে সন্তান না হওয়ায় তাদের সংসারে ঝগড়া-বিবাদের সূত্রপাত হয়। ধীরে ধীরে তাদের ঝামেলা বাড়তেই থাকে। এর মাঝে বাবু আবার প্রায়ই বাসায় বসে মদ খেতেন।

একদিকে সন্তান না হওয়ায় প্রতিরাতে মদ্যপ স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে গত ২৫ ডিসেম্বর নিজের বাপের বাড়ি চলে যান দেবী। তবে ৩১ ডিসেম্বর রাতে তিনি ফের স্বামীর বাড়িতে ফিরে আসেন। ফিরেই তিনি স্বামীকে মদ্যপ অবস্থায় দেখতে পান। বিষয়টিকে কেন্দ্র করে দুজনের মধ্যে ফের অশান্তি শুরু হয়। কিছুক্ষণ পর বিয়ে-বিচ্ছেদের হুমকি দিয়ে বাড়ি ছেড়ে চলে যান দেবী।

স্ত্রী চলে যাওয়ার অপমানে রান্নাঘরে গিয়ে একটি ছুরি দিয়ে নিজের পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেন বাবু। মূলত মদের নেশার ঘোরেই তিনি কাজটি করে ফেলেন। এরপর অসহ্য যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকেন। বাবুর চেঁচামচি শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। পরে প্রতিবেশীরা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এই বিষয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। বাবুর অবস্থা এখনো আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে ওই সংবাদমাধ্যমটি।


সর্বশেষ সংবাদ