টেকনাফ হাসপাতালে একযোগে ৮ জন ডাক্তার যোগদান

প্রকাশ: ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১১:৩৫ : অপরাহ্ণ

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ … টেকনাফ ৫০ শয্যা হাসপাতালে একযোগে ৮ জন ডাক্তার যোগদান করেছেন। এরা সকলেই ৩৯তম বিসিএস ক্যাডার। তম্মধ্যে সহোদর ২ বোন রয়েছেন। ৮ জনের মধ্যে ১জন ছাড়া সকলেই চট্রগ্রামের বাসিন্দা।
হাসপাতাল সুত্রে জানা গেছে, নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত ৮ জনই যথাসময়ে ৮ ডিসেম্বর ঢাকা এবং ১১ ডিসেম্বর টেকনাফে যোগদান করেছেন। এরা হলেন ঢাকা রমনার ডাঃ সাকিয়া হক (মেডিকেল অফিসার), চট্রগ্রামের পাঁচলাইশের ডাঃ সুমনা রশিদ (সহকারী সার্জন), ডাঃ সুফিয়া আক্তার (সহকারী সার্জন), চট্রগ্রামের খুলশীর ডাঃ মুহাম্মদ আহনাফ চৌধুরী (মেডিকেল অফিসার), চট্রগ্রামের পাঁচলাইশের ডাঃ নাঈমা সিফাত (মেডিকেল অফিসার), চট্রগ্রাম বাকলিয়ার ডাঃ শুভ্র দেব (সহকারী সার্জন), চট্রগ্রামের পাঁচলাইশের ডাঃ রুমনা রশিদ (মেডিকেল অফিসার), ডাঃ মোঃ আবরার জাহিন খান (সহকারী সার্জন)।
নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত ৮ জন ডাক্তার টেকনাফ ৫০ শয্যা হাসপাতালে একযোগে যোগদান করার পর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ সুমন বড়–য়া, আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডাঃ এনামুল হক, মেডিকেল অফিসার ডাঃ টিটু চন্দ্র শীল ও ডাঃ প্রণয় রুদ্র ফুলের তোড়া দিয়ে তাঁদের স্বাগত জানান। নতুন যোগদানকৃত ৮ জন ডাক্তারের মধ্যে ডাঃ মুহাম্মদ আহনাফ চৌধুরী (মেডিকেল অফিসার) ও ডাঃ রুমনা রশিদকে (মেডিকেল অফিসার) সেন্টমার্টিনদ্বীপ ১০ শয্যা হাসপাতালে পোস্টিং দেয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, টেকনাফ উপজেলায় সরকারী মঞ্জুরীকৃত মোট ডাক্তারের পদ সংখ্যা ২৯টি। কিন্ত কাগজে-কলমে ২৯ জন থাকলেও বাস্তবে ১০ জনও নেই। নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত ৮ জন ডাক্তার টেকনাফ ৫০ শয্যা হাসপাতালে একযোগে যোগদান করায় সীমান্ত উপজেলা ও রোহিঙ্গা অধ্যুষিত টেকনাফে এবং দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে ডাক্তার সংকট কিছুটা হলেও লাঘব হবে। ##


সর্বশেষ সংবাদ