টেকনাফে পাহাড় ও গাছকাটার অভিযোগে সাবেক চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

প্রকাশ: ২২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১:৪২ : অপরাহ্ণ

জসিম মাহমুদ,টেকনাফ []
টেকনাফে পাহাড়কাটা ও ৩০টি ছোট-বড় গাছ কাটার অভিযোগে গোলাম সরওয়ার ওরফে মিন্টু(৫০)কে গ্রেপ্তার করেছে বনবিভাগ।
সে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়ন পরিষদের বালুখালীর তুলাতলির বাসিন্দা গুরা মিয়া চৌধুরীর ছেলে। তিনি হোয়াইক্যং ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও জামায়াত নেতা।
গত শুক্রবার রাত আটটার দিকে তাকে আটকের পর গতকাল শনিবার বিকেলে টেকনাফ থানার মাধ্যমে তাকে কক্সবাজার আদালতে হাজির করা হলে বিজ্ঞ বিচারক তাকে কক্সবাজার কারাগারে পাঠান। এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক ওসি প্রদীপ কুমার দাস।
মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার রাতে হোয়াইক্যং বালুখালীর তুলাতুলি পাহাড়ে সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম সরওয়ার মিন্টুর নেতৃত্বে ৬/৭ জন লোক পাহাড় ও গাছ কর্তন করছিল। খবর পেয়ে হোয়াইক্যং বনবিট কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমেদ লোকজন নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছান।তাদের উপস্থিতি দেখে গোলাম সরোয়ার সহযোগীদের নিয়ে বনবিট র্কমর্কতা ও অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপর হামলা চালায়।প্রহারের এক পর্যায়ে বনকর্মীদের পোশাক র‌্যাঙ্ক ব্যাজ ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। খবর পেয়ে অতিরিক্ত কর্মীদের নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। কিন্তু ধাওয়া করে সরোয়ারকে আটক করা হয় এবং ২টি কোদাল, ২টি বেলচা, ১টি দা উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার রাতের ঘটনায় হোয়াইক্যং বিট কর্মকর্তা সৈয়দ আশিক আহমেদ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।
মামলার বাদী সৈয়দ আশিক আহমেদ বলেন,সরকারি কাজে বাঁধা, কর্মকর্তা কর্মচারিদের মারধর ও পাহাড় কাটার অভিযোগে তার বিরুদ্ধে করা মামলা রুজু করা হয়েছে।
কক্সবাজার দক্ষিণ বনবিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. হুমায়ূন কবির বলেন, পাহাড় ও গাছ কেটে নিচ্ছিলেন গোলাম সরওয়ার । ইতিপূর্বেও বন মামলায় তিনি জেল কেটেছেন।দীর্ঘ দিন ধরে, সরকারি পাহাড়, গাছ কর্তনে লিপ্ত রয়েছে সে। অভিযানের সময় পাহাড় ও গাছ কর্তনের একাধিক সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়েছে।


সর্বশেষ সংবাদ