৩১ হাজার মণ পেঁয়াজ এলো মিয়ানমার থেকে

প্রকাশ: ২ ডিসেম্বর, ২০১৯ ৯:৪৫ : অপরাহ্ণ

টেকনাফনিউজ ডেস্ক []
টেকনাফ স্থলবন্দরে সোমবার (২ ডিসেম্বর) ১২৩৯ দশমিক ৯৭৩ মেট্রিক টন (৩০ হাজার ৯ শ’ ৭৫ মণ) পেঁয়াজ খালাস হয়েছে। এসব পেয়াঁজ ট্রাকে করে দেশের বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ করা হয় বলে বন্দর সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। সোমবার সন্ধ্যা ৭ টায় বিষয়টি নিশ্চত করেছেন টেকনাফ স্থলবন্দরের শুল্ক কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবছার উদ্দিন।
তিন বলেন, মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানি বেড়েছে। চলতি মাসে দ্বিতীয় দিন সোমবার ১২৩৯ দশমিক ৯৭৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ টেকনাফ স্থলবন্দরে এসে পৌঁছে। এসব পেঁয়াজ দ্রুত খালাস করা হয়েছে। এ বিষয়ে ব্যবসায়ীদের উৎসাহিত করা হচ্ছে যাতে তারা পেঁয়াজ আমদানি বাড়ান।
সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত মিয়ানমার থেকে ১২৩৯ দশমিক ৯৭৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ ভর্তি ট্রলার টেকনাফ স্থলবন্দরে পৌঁছে। এসব পেয়াঁজ ১০ জন ব্যবসায়ী আমদানি করেন। পেঁয়াজের বস্তাগুলো শ্রমিকেরা জাহাজ ও ট্রলার থেকে খালাস করে সরাসরি ট্রাক বোঝাই করেন। পরে বন্দর থেকে পেঁয়াজ ভতি ট্রাক দেশের বিভিন্ন জায়গায় পাঠানো হয়।
টেকনাফ শুল্ক বিভাগ জানায়, মিয়ানমার থেকে এ বন্দর দিয়ে চলতি মাসের প্রথম দিন রবিবার ৩৫৬ দশমিক ৯৪ এবং নভেম্বর মাসে ২১ হাজার ৫৬০ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। এছাড়া অক্টোবর মাসে ২০ হাজার ৮৪৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়। সেপ্টেম্বর মাসে আমদানি হয় ৩৫৭৩ দশমিক ১৪১ মেট্রিক টন এবং আগস্ট মাসে এসেছে ৮৪ মেট্রিক টন পেঁয়াজ। তবে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত থাকলে এখনও বাজারে পেঁয়াজের দাম কমেনি।
টেকনাফ স্থলবন্দরের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘দেশের স্বার্থে সংকট মোকাবিলায় ব্যবসায়ীদের পেয়াঁজ আমদানি বাড়াতে উৎসাহিত করা হচ্ছে। সোমবার মিয়ানমার থেকে আসা ১২৩৯ দশমিক ৯৭৩ মেট্রিক টন পেঁয়াজ খালাস হয়েছে।


সর্বশেষ সংবাদ