উখিয়ায় পালংখালী কলেজ হচ্ছে, কমিটি গঠন, জমি নির্ধারন

প্রকাশ: ১২ নভেম্বর, ২০১৯ ১০:৫৩ : অপরাহ্ণ

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

উপজেলার উপজেলার পালংখালী ইউনিয়নে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠার বিষয়ে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়েছে। প্রস্তাবিত কলেজের নাম হবে ‘পালংখালী স্কুল এন্ড কলেজ’। প্রায় ১০ একর খাস জমির উপর এ কলেজটি প্রতিষ্ঠা করা হবে। এজন্য কক্সবাজার-৪ আসনের সংসদ সদস্য শাহীন আক্তার চৌধুরী ও উখিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরীকে উপদেষ্টা এবং উখিয়া উপজেলার ইউএনও মোঃ নিকারুজ্জামানকে সভাপতি করে একটি পালংখালী স্কুল এন্ড কলেজ বাস্তবায়ন কমিটি গঠন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ১২ নভেম্বর বিকেল ৪ টার দিকে উখিয়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উখিয়ার ১৮ টি বৈজ্ঞানিক সরঞ্জাম বিতরন, শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট ও পালংখালী কলেজ স্থাপনের লক্ষ্য আয়োজিত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। উখিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ নিকারুজ্জামান সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় বলা হয়, কলেজের জন্য নির্ধারিত স্থানে প্রায় ৩০ একর খাস জমি রয়েছে। তারমধ্যে, ১০ একর জমিতে পালংখালী কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হবে। ইউএনও মোঃ নিকারুজ্জামান সভায় বলেন, কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন ইতিমধ্যে পালংখালী একটি কলেজ প্রতিষ্ঠার জন্য বেশ আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। প্রস্তাবিত কলেজটি জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, স্থানীয় জনগোষ্ঠীর সহয়তায় প্রতিষ্ঠা করা হবে ইনশাল্লাহ। ইউএনও মোঃ নিকারুজ্জামান বলেন, প্রস্তাবিত কলেজটি হবে মানসম্মত, আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি সমৃদ্ধ। পালংখালী স্কুল এন্ড কলেজে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যন্ত শিক্ষা ব্যবস্থা থাকার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। কলেজের শিক্ষা কার্যক্রম দ্রুততম সময়ে শুরু করা হবে উল্লেখ করে ইউএনও মোঃ নিকারুজ্জামান সিবিএন-কে বলেন, রোহিঙ্গা শরনার্থী অধ্যুষিত এলাকায় প্রস্তাবিত পালংখালী স্কুল এন্ড কলেজটির কার্যক্রম শুরু করা গেলে উখিয়া শিক্ষা, সংস্কৃতি ও সভ্যতায় অনেক বেশী এগিয়ে যাবে।
সভায় উখিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী দীর্ঘদিন ধরে পালংখালীতে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠার মনেবাসনা রয়েছে উল্লেখ করে, যেকোনো ভাবেই হোক, প্রয়োজনে তাঁর ব্যক্তিগত জমি বিক্রি করে হলেও প্রস্তাবিত পালংখালী স্কুল এন্ড কলেজটি প্রতিষ্ঠায় তিনি অসুস্থতার মাঝেও শ্রম, সময়, মেধা ও অর্থ দিয়ে যাবেন বলে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

সভায় অংশ নেয়া, রত্নাপালং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খাইরুল আলম চৌধুরী সিবিএন-কে জানান, উখিয়ার কোর্ট বাজার এলাকায় আরো কলেজ প্রতিষ্ঠার জন্য জমি খোঁজা হচ্ছে। পালংখালী স্কুল এন্ড কলেজটির কার্যক্রম একটা পর্যায়ে পৌঁছার পর জমি প্রাপ্তি সাপেক্ষে কোর্ট বাজার এলাকায় আরো একটি কলেজ প্রতিষ্ঠা করা হবে ইনশাল্লাহ।
সভায় ইউএনও মোঃ নিকারুজ্জামান আরো বলেন, শিক্ষা কেন্দ্রীক উন্নয়নের জন্য ‘উপজেলা শিক্ষা সহায়তা ট্রাস্ট’ গঠন করা হলো। সভায় গঠিত এ ট্রাস্ট থেকে মেধাবী অসুস্থ, গরীব, এতিম শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান, শিক্ষা সংক্রান্ত সহায়তা এবং অসহায় শিক্ষক ও পরিবারের সদস্যদের সহায়তা দেওয়া হবে। এজন্য তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন।
সভায় উপস্থিত ছিলেন-উখিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ হামিদুল হক চৌধুরী, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আমিনুল এহসান খান, রত্নাপালং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান খাইরুল আলম চৌধুরী, পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গফুর উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার বদরুল আলম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার রায়হানুল ইসলাম, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সুব্রত কুমার ধর, উখিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি সরওয়ার আলম শাহীন, অধ্যক্ষ মিলন বড়ুয়া, অধ্যক্ষ শাহাবুদ্দিন, উখিয়া কলেজের অধ্যাপক অজিত কুমার দাশ, এম.এ মঞ্জুর প্রমুখ।


সর্বশেষ সংবাদ