জয়পুরহাটে জন্মনিবন্ধনে রোহিঙ্গাদের নাম

প্রকাশ: ৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ৯:০২ : পূর্বাহ্ণ

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক::
জন্মনিবন্ধনে রোহিঙ্গাদের নাম যুক্ত করা হয়েছে, জয়পুরহাটের সীমান্তবর্তী তিনটি ইউনিয়নে। এ তথ্য জানার পর তোলপাড় শুরু হয়েছে পুরো জেলায়। নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। কর্তৃপক্ষ বলছে, জন্মনিবন্ধন নিয়ে রোহিঙ্গারা যাতে পাসপোর্ট তৈরি করতে না পারে, সে বিষয়ে সব ধরণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। রোহিঙ্গাদের জন্মনিবন্ধনে যুক্ত করায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলাও হয়েছে।
জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার সীমান্তবর্তী কুসুম্বা ইউনিয়ন পরিষদ। আরবিয়ান জান্নাত নামে এক উদ্যোক্তা সার্ভার খুলে দেখতে পান, তার ইউনিয়ন পরিষদের ঠিকানা ব্যবহার করে পুরাতন কিছু নাম মুছে ফেলে, অন্য নাম বসানো হচ্ছে। যাদের পূর্ববর্তী ঠিকানা লেখা হয়েছে কক্সবাজার। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা যায়, কক্সবাজারের ওইসব ঠিকানায় কেউ নেই। ফলে জন্মনিবন্ধনের দায়িত্বে থাকা উদ্যোক্তার ধারণা, নতুন যুক্ত হওয়া লোকগুলো রোহিঙ্গা।
উদ্যোক্তারা জানান, সার্ভারে নিজেরা কাজ না করলেও তারা দেখতে পান, অটোমেটিক জন্মনিবন্ধনে রোহিঙ্গাদের নাম লিপিবদ্ধ হয়ে যাচ্ছে। এমন দৃশ্য দেখে হতবাক হয়ে তারা বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেন।
ইউপি চেয়ারম্যান ও সচিবরা জানান, ফেসবুকে যেভাবে তথ্য আদান-প্রদান হয়েছে তাতে প্রমাণিত হয়, পূর্বে কর্মরত সচিব ও উদ্যোক্তাদের অনেকে এ অপকর্মের সাথে জড়িত।

জয়পুরহাটের জেলা প্রশাসক বলছেন, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়াসহ সার্ভারগুলো ব্লক করে দেওয়া হয়েছে। সেই সাথে জেলার সব ইউনিয়ন পরিষদ ও পৌরসভার অনলাইন সার্ভারের পাসওয়ার্ডও পরিবর্তন করা হয়েছে।
দেশের অন্য কোথাও রোহিঙ্গারা জন্মনিবন্ধন নিচ্ছে কি না, সে বিষয়ে এখনই অনুসন্ধান শুরুর দাবি জানিয়েছেন জয়পুরহাটের মানুষ।


সর্বশেষ সংবাদ