দ্বীপের পাথর দিয়েই সেন্টমার্টিনে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ

প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর, ২০১৮ ১১:০৫ : অপরাহ্ণ

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ … সেন্টমার্টিনদ্বীপে স্থানীয় পাথর ব্যবহার করে রাস্তা নির্মাণ করার গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। সরকার কতৃক পরিবেশগত অতি সংকটাপন্ন এলাকা (ইসিএ) হিসাবে ঘোষিত সেন্টমার্টিনদ্বীপে পাথর উত্তোলণ করা, ব্যবহার করা এবং সকল প্রকার অবকাঠামো নির্মাণের উপর কঠোরভাবে নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্বেও দ্বীপের কোনারপাড়া সমুদ্র কুঠির রিসোর্ট নামে একটি আবাসিক হোটেল সরকারী আদেশ অগ্রাহ্য করে রাস্তা নির্মাণ করছে। আরও মারাতœক ব্যাপার হচ্ছে দ্বীপের বাহির থেকে পাথর বা কংকর নিয়ে নয়, দ্বীপের পাথর ব্যবহার করেই কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।
১৬ অক্টোবর রাতে এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে সেন্টমার্টিদ্বীপ পুলিশ ফাঁড়ির আইসি পরিদর্শক সেকান্দর আলী (১০৮৩৪৮৪৪৬০৯) বলেন, ‘লোক মুখে খবর পেয়ে আমি সরেজমিন পরিদর্শন করে অভিযোগের সত্যতা পেয়েছি। বিষয়টি পরিবেশ অধিদপ্তরের সংশ্লিষ্ট। তারা এব্যাপারে উদ্যোগ নিলে আমরা সর্বাতœক সহযোগিতা করতে প্রস্তত’।
সেন্টমার্টিনদ্বীপের সমুদ্র কুঠির রিসোর্ট আবাসিক হোটেলের ম্যানেজার মেহেদী হাসান বাবু (০১৬১৬৫০৩১২৯/০১৭১৬৫০৩১২৯) বলেন, ‘শুধু পাথর নয়, ইট ও পাথরের কংকর মিশিয়ে চলাচলের রাস্তার কাজ করা হচ্ছে। অন্য কোন কাজে ব্যবহার করা হচ্ছেনা। পাথরের কংকরগুলো স্থানীয়ভাবে ক্রয়কৃত। যা অনেকেই ব্যবহার করছে’।
সরকার কতৃক পরিবেশগত অতি সংকটাপন্ন এলাকা (ইসিএ) হিসাবে ঘোষিত হলেও লোকবলের অভাবে সেন্টমার্টিনদ্বীপে পরিবেশ অধিদপ্তরের কোন কার্যক্রম নেই। এমনকি টেকনাফেও পরিবেশ অধিদপ্তরের কোন অফিস নেই। সাইফুল আশ্রাব নামে কক্সবাজারে একজন কর্মকর্তা আছেন। এব্যাপারে জানার জন্য প্রতিবেদন লেখার সময় ১৬ অক্টোবর রাত সাড়ে ১০টায় তাঁর মুঠোফোনে (০১৭১২১৬৮৫০৩) একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। ##


সর্বশেষ সংবাদ