টেকনাফে ভ্রাম্যমান কম্পিউটার ভ্যানে মাস ব্যাপী প্রশিক্ষণ আজ শুরু

প্রকাশ: ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২:২৭ : পূর্বাহ্ণ

 

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ … টেকনাফে ভ্রাম্যমান কম্পিউটার ভ্যানে মাস ব্যাপী প্রশিক্ষণ আজ ৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে।
‘টেকনোলজি এমপাওয়ারমেন্ট সেন্টার অন হুইলস ফর আন্ডার প্রিভিলেজড রুরাল ইয়ং পিপল অব বাংলাদেশ (টেকাব)’ শীর্যক কারিগরী সহায়তা প্রকল্পের ভ্রাম্যমান কম্পিউটার ভ্যানে এক মাস ব্যাপী কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রদানের আয়োজন করেছে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর। ইতিমধ্যেই যাবতীয় প্রস্ততি সম্পন্ন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন টেকনাফ উপজেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সিএস মোঃ মঞ্জুর আলম। ৬ সেপ্টেম্বর বিকালে ৪০ জন প্রশিক্ষণার্থীর ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ভ্রাম্যমান কম্পিউটার ভ্যান যাবতীয় সরঞ্জাম ও প্রশিক্ষকসহ টেকনাফ উপজেলা পরিষদে পৌছেঁছে। সাথে রয়েছেন প্রশিক্ষক নীলাঞ্জন নাথ সরকার, সহকারী প্রশিক্ষক আলমগীর, গাড়ি চালক সাথোয়াই মারমা, অফিস সহায়ক মেহেদী হাসান। এ প্রশিক্ষণে ২০ জন যুবক এবং ২০ জন যুব মহিলা অংশগ্রহণ করবে।
যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কার্যালয়ের টেকাব প্রকল্পের পরিচালক যুগ্ম সচিব আবুল হাছান খান স্বাক্ষরিত পত্রে জানা যায়, সেপ্টেম্বর মাসে সারা দেশের মাত্র ৭টি উপজেলায় এ প্রশিক্ষণ চলবে। তা হচ্ছে কক্সবাজার জেলার টেকনাফ, নেত্রকোনার কমলাকান্দা, বগুড়ার ধুনট, যশোরের অভয়নগর, বরগুনার পাথরঘাটা, সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ, নীলফামারীর ডিমলা উপজেলা।
এক মাসের কোর্সটি প্রতিদিন ২টি শিফটে (সকালের শিফট সকাল ৯টা-দুপুর ১টা ও বিকালের শিফট দুপুর ১টা-বিকাল ৫টা) বাস্তবায়িত হবে অথবা ভ্যানের ধারণক্ষমতানুসারে শিফট পুনঃবিন্যাস করা যাবে। ১৮-৩৫ বছর বয়সী সমান সংখ্যক এইচএসসি পাস যুবক ও এসএসসি পাস যুব মহিলার সমন্বয়ে গঠিত প্রতিটি কোর্সে প্রশিক্ষণার্থীর সংখ্যা ৪০ জন। প্রশিক্ষণার্থী মনোনয়নে বয়স সীমার মধ্যে অধিক বয়স্ক ও প্রকৃত বেকার যুবক এবং যুব মহিলাদেরকে অগ্রাধিকার দিলে প্রশিক্ষণ শেষে জীবিকার সন্ধানে অর্জিত জ্ঞানকে পুরোপুরি কাজে লাগাবে। শুধুমাত্র সিলেট বিভাগে প্রতিটি কোর্সে প্রশিক্ষণার্থীদের সংখ্যা ২৪ জন। প্রশিক্ষণার্থীর যোগ্যতা সম্পর্কীয় তথ্যাদি যথাযথভাবে সংরক্ষণ করতে হবে এবং সকল শর্তাবলী হুবহু প্রতিপালন করা আবশ্যক।
আইসিটি ট্রেনিং ভ্যান এবং প্রশিক্ষক, সহকারী প্রশিক্ষক, গাড়ী চালক ও অফিস সহায়ক সংশ্লিষ্ট ভেন্যু অর্থ্যাৎ উপজেলা সদরে অবস্থান করবে। উপজেলা প্রশাসনের সাথে যোগাযোগক্রমে প্রশিক্ষক, সহকারী প্রশিক্ষক, গাড়ী চালক ও ক্লিনারদের প্রশিক্ষণকালীন অবস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে। আইসিটি ট্রেনিং ভ্যানটি একটি সুবিধাজনক স্থানে (যেখানে বৈদ্যুতিক সংযোগ পাওয়া সহজ হবে) এবং নিরাপত্তা বেষ্টনির মধ্যে রেখে মাসব্যাপী প্রশিক্ষণ পরিচালনা করতে হবে। সেই সাথে রাত্রিকালীন এবং ছুটির দিনে গাড়িটিকে নিরাপদ স্থানে (সংশ্লিষ্ট পুলিশ ষ্টেশনের ভেতরে রাখা প্রত্যাশিত) রাখার ব্যবস্থা করতে হবে।
প্রশিক্ষণ শুরুর কমপক্ষে ৭ দিন পুর্বে প্রশিক্ষণার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা ও বয়স উল্লেখপুর্বক নামীয় তালিকা (প্রয়োজনীয় সংখ্যক অপেক্ষমান প্রার্থীসহ) যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরস্থ প্রকল্প কার্যালয়ে প্রেরণ করতে হবে। কোন ক্রমেই প্রশিক্ষণার্থীর কোটা খালি রাখা যাবে না অর্থ্যাৎ প্রশিক্ষণার্থী লক্ষ্যমাত্রা শতভাগ অর্জন নিশ্চিত করতে হবে। প্রশিক্ষণ সমাপনীর দিন প্রশিক্ষণ সনদ প্রদান নিশ্চিত করার জন্য প্রশিক্ষণ সমাপ্তির ৭ দিন পুর্বে পুরণকৃত প্রশিক্ষণ সনদ (যা যথাসময়ে সরবরাহ করা হবে) স্বাক্ষরের জন্য প্রকল্প কার্যালয়ে প্রেরণ করতে হবে।
সুবিধাভোগীদের দোরগোড়ায় বিনা খরচে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ সুবিধা পৌছে দেয়ার এহেন উদ্যোগটি সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার সাথে অত্যন্ত সঙ্গতিপুর্ণ। তাই এর সফল বাস্তবায়নের সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। এরই আলোকে স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও তালিকাভুক্ত যুব সংগঠনকে সম্পৃক্ত করে এ প্রশিক্ষণ কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে হবে। সেই সাথে এ মহতী কার্যক্রমের ব্যাপক প্রচারনাও চালাতে হবে। উল্লেখ্য প্রশিক্ষণটির উদ্বোধন ও সমাপনী অনুষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা ব্যয়সহ প্রশাসনিক খরচ বাবদ ৫ হাজার টাকা প্রকল্প হতে যথাসময়ে উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তাকে প্রদান করা হবে।
প্রশিক্ষণকালীন আইসিটি ভ্যানে বিদ্যুৎ ব্যবহারের বিপরীতে প্রস্তুতকৃত বিদ্যুৎ বিল প্রকল্প হতে পরিশোধ করা যাবে। তবে বিদ্যুৎ বিলের কপি যথাসময়ে ও যথাযথভাবে প্রকল্পের পিআইইউ বরাবর করতে হবে।
গত ১৪-০৭-২০১৬ খ্রিঃ তারিখ যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মহোদয়ের স্বাক্ষরিত ৩৪.০১.০০০০..০২৮.৪৮.০২১.১১.২৮৮ সংখ্যক টেকনোলজি এমপাওয়ারমেন্ট সেন্টার অন হুইলস ফর আন্ডার প্রিভিলেজড রুরাল ইয়ং পিপল অব বাংলাদেশ (টেকাব) শীর্ষক কারিগরী সহায়তা প্রকল্পের মাধ্যমে প্রদত্ত প্রশিক্ষণকে প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ বিবেচনা পত্রানুসারে ক্ষুদ্র্ ঋণ কার্যনিদেশিকা অনুসরণে সকল শর্তাদি প্রতিপালন সাপেক্ষে টেকাব প্রকল্পের মাধ্যমে প্রশিক্ষিত যুবকগণও চলমান (রাজস্ব) কর্মসুচি হতে প্রাতিষ্টানিক প্রশিণার্থী হিসেবে ঋণ গ্রহণের সুযোগ পাবেন। এটি প্রশিক্ষণার্থীরদেরকে অবগত করাতে হবে। ##


সর্বশেষ সংবাদ