হাইকোর্টে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের প্রতিবেদন: মোবাইল টাওয়ার জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি

প্রকাশ: ২২ মার্চ, ২০১৭ ৫:০৩ : অপরাহ্ণ

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক::: বাংলাদেশের মোবাইল কোম্পানিগুলোর টাওয়ার থেকে মাত্রাতিরিক্ত বিকিরণ নিঃসৃত হয়- এই মর্মে প্রমাণ পেয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় গঠিত বিশেষজ্ঞ কমিটি। তাদের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মাত্রাতিরিক্ত এই বিকিরণ বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন অনুযায়ী জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর। এই জন্য দেশের বিভিন্ন জায়গায় মোবাইল ফোন অপারেটর কর্তৃক স্থাপিত বেস ট্রান্সিভ স্টেশন (বিটিএস) সমূহ পরীক্ষাপূর্বক বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার নির্ধারিত নিরাপদ মাত্রার মধ্যে বিকিরণ নামিয়ে আনতে বিটিআরসিকে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে সুপারিশ করে ওই বিশেষজ্ঞ কমিটি।
আজ বুধবার বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি মো. সেলিমের ডিভিশন বেঞ্চে এই প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়। রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার কাজী জিনাত হক স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের এই প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। এই প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, নিয়মিতভাবে সকল মোবাইল অপারেটরের বিটিএস এর বিকিরণ মনিটরিং করার জন্য বিটিআরসিকে বলা যেতে পারে। এছাড়া বিটিএস স্থাপন এবং টাওয়ার থেকে বিকিরণ নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত নীতিমালা বা গাইডলাইন অতিসত্বর প্রণয়নের জন্য ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয় এবং বিটিআরসিকে বলা যেতে পারে।
এই বিষয়ে বিটিআরসি কী ব্যবস্থা নিয়েছে তা আদালতকে ২৮ মার্চের মধ্যে জানানোর জন্য বলা হয়েছে। এই সময় আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট মঞ্জিল মোরশেদ।


সর্বশেষ সংবাদ