টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

টেকনাফে ইয়াবার মূল গডফাদারেরা সহজে ধরা পড়ছে না : গাড়ী ও বাড়ি নির্মানের হিড়িক

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট, ২০১৩
  • ১৫০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

টেকনাফ ইয়াবার স্বর্গরাজ্য টেকনাফ উপজেলার মূল ইয়াবার গডফাদারেরা সহজে আইন র্শৃংখলা বাহিনী জালে আটকা পড়ছে না । তারা ইয়াবার ব্যবসা করে গাড়ি- বাড়ি ক্রয় ও তৈরী অব্যহত রেখেছে । টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাজির পাড়া, মৌলভী পাড়া ও বড় হাবিব পাড়া মূলত ইয়াবার স্বর্গরাজ্য বললেও ইদানিং টেকনাফ পৌরসভার কুলাল পাড়া, জালিয়া পাড়া, ডেইল পাড়া, পুরাতন পল্লান পাড়া, নাইট্যংপাড়া, ˝ীলা ইউনিয়নের লেদা, পূর্বসিকদার পাড়া, ফুলের ডেইল ও পানখালী এলাকায় ইয়াবার বড় বড় গডফাদার জম্ম হয়েছে। এসব এলাকায় অসংখ্য ইয়াবা ব্যাবসায়ী রয়েছে যাদের মধ্যে অনেকে সরকারী তালিকা ভূক্ত হলেও এখনো পর্যন্ত অনেক বড় বড় ইয়াবার গডফাদার দের  নাম কোন প্রকার তালিকাভূক্ত হয়নি । অথচ সবাই জানে কার অবস্থা কি রকম ছিল বা কিভাবে কোটিপতি হয়েছে । বাংলাদেশের সবস্তরের প্রশাসন ও গোয়েন্দা সংস্থা তথ্যানুসন্ধান করলে বেরিয়ে আসবে  ইয়াবা ব্যবসা করে কে কোটিপতি হয়েছে বা এখনো কার নাম সরকারী তালিকাভূক্ত হয়নি বা কোন প্রকার মামলার আসামী হয়নি । তা তদন্ত হলে বেরিয়ে আসবে থলের বিড়াল। নাম প্রকাশ না করার শর্তে অনেকে জানায়- অনেক ইয়াবার গডফাদার পাসপোর্ট তৈরী করে রাখার সিদ্বান্ত নিয়েছে। সরকারের শেষ সময় ও দেশের বর্তমান এবং আগামী দিনের কথা চিন্তা করে তারা দেশ ছেড়ে পালিয়ে যেতে পারে । টেকনাফ পৌরসভার কুলাল পাড়ায়, জালিয়া পাড়ায়, পল্লান পাড়ায়, সদর ইউনিয়নের নাজির পাড়ায়, মৌলভী পাড়ায় ও হাবিরপাড়ায় ইয়াবা ব্যবসা করে অল্পদিনের মধ্যে কোটিপতি হয়েছে অল্প বয়সী অসংখ্য যুবক। যাদের গাড়ী, বাড়ী চলাফেরা অন্য রকম। এসব ইয়াবার গডফাদারদের বিরুদ্ধে সহজে কেউ মূখ খুলতে চাইনা। আবার অনেক ইয়াবার গডফাদার রয়েছে- যারা ইয়াবার জন্য খুন করে মামলার আসামী হয়েছে । আবার তারা জামিনে এসে আরো বেশি বেপরোয়া হয়ে গেছে । এছাড়া বর্তমানে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা যেভাবে গাড়ী ক্রয় ও বাড়ি নির্মান করছে তা এলাকায় সরজমিনে গেলে বুঝা যাবে । এসব গাড়ী ও বাড়ি কি ভাবে হয়েছে তা যদি দুদক  তদন্ত করে দেখে তবে এরা কি ভাবে জিরো থেকে হিরো হয়েছে বা কোটি টাকার মালিক হয়েছে তা জানা যাবে । ইয়াবার জন্য দেশে যেভাবে হত্যা, খুন ও অপহরনের ঘটনা ঘটছে তাতে সাধারন মানুষের মধ্যে আতংকের সৃষ্টি হয়েছে । ইতিমধ্যে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের ধরার জন্য প্রশাসন যেভাবে তৎপর হয়েছে তা যদি অব্যহত থাকে এবং তৎপরতা আরো বাড়ায় তবে ইয়াবা ব্যবসা ও ইয়াবার জন্য অনেক অপরাধ কমে যাবে বলে মনে করেন সচেতন মহল ।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT