হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

প্রচ্ছদফিচারশিক্ষা

“৩৫ বছরের লালিত স্বপ্নের বাস্তবায়ন”

ড.আ ফ ম খালিদ হোসেন::
আমি যখন ইসলামী ছাত্রসমাজের কেন্দ্রীয় সভাপতি (১৯৮২-৮৭) তখন আমার ছোট ভাই মাওলানা হাফিয জাহিদ হোসেন লাহোরের জামিয়া আশরাফিয়ায় দাওরায়ে হাদিস পরীক্ষা দিচ্ছিলেন। তাঁর মাধ্যমে জানতে পারি যে, পাকিস্তানের তৎকালিন প্রেসিডেন্ট জেনারেল জিয়াউল হক কওমি মাদরাসার দাওরায়ে হাদিসের সনদকে এম.এ -এর সমমান প্রদান করেন। আমি তাঁর মাধ্যমে লাহোর থেকে (Gazette Notification) আনার ব্যবস্থা করি। ভারতেও স্বীকৃতি চালু আছে, তার খোঁজ খবর নেই। এতে আমরা উদ্বুদ্ধ হই। তথ্য উপাত্তসহ ৪ পৃষ্ঠার একটি লিফলেট তৈরী করি। এটার ড্রাফ্ট ছিল আমার। হাজার হাজার কপি দেশে ছড়িয়ে দেই। দেশের বিভিন্ন স্থানে স্বীকৃতির দাবিতে সেমিনার ও মিছিল করেছি। সেসময় অনেকের কাছে এটা বিস্ময় ঠেকে, অনেকে সংশয় ব্যক্ত করেন। আমি দৃঢ়তার সাথে বলতে পারি ইসলামী ছাত্রসমাজের আগে খতিবে আযম মাওলানা ছিদ্দিক আহমদ (রহ.) ছাড়া স্বীকৃতির প্রয়োজনীয়তা কেউ অনুভব করেননি। কেউ দাবী পর্যন্ত করেননি। খতিবে আযম (রহ.) পাকিস্তান আমলে শিক্ষা কমিশনের সাথে প্রদত্ত সাক্ষাতকারে স্বীকৃতি প্রসঙ্গ উত্থাপন করেন।

ইসলামী ছাত্রসমাজের আন্দোলনের ফলে পরবর্তীতে আমাদের নেতৃবৃন্দ প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেন। বিএনপির শাসনামলে শায়খুল হাদীস আল্লামা আজিজুল হক (রহ.) মুক্তাঙ্গনে অবস্থান ধর্মঘট করে জনমত তৈরী করেন। চরমুনাইর পীর সাহেব সাইয়েদ মাওলানা ফজলুল করিম (রহ.), মুফতি ফজলুল হক আমিনি (রহ.), গওহরডাঙ্গা মাদরাসার মুহতামিম মওলানা রুহুল আমিন (দা.বা.), বেফাকুল মাদারিস আল আরাবিয়ার সম্মানিত চেয়ারম্যান আল্লামা আহমদ শফী সাহেব (দা.বা.)সহ আঞ্চলিক বোর্ডসমূহের নেতৃস্থানীয় ওলামায়ে কেরাম স্বীকৃতির দাবিকে ধাপে ধাপে পূরণতার দিকে নিয়ে গেছেন। তাঁরা সরকারকে স্বীকৃতির প্রয়োজনীয়তা বোঝাতে সক্ষম হন। বারবার সরকারের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে বৈঠক করেন। আমরা আল্লাহ তায়ালার শুকরিয়া জ্ঞাপন করি এবং স্বীকৃতির সাথে সশ্লিষ্ট সবাইকে অভিনন্দন জানাই।
৩৫ বছর আগের ইসলামী ছাত্রসমাজের দাবি এখন আইন হিসেবে সংসদে পাশ হয়ে গেছে ১৯ সেপ্টেম্বর। এ গৌরব ও কৃতিত্ব আমাদের। আলহামদুলিল্লাহ।

কপি””””” ড. আ ফ ম খালেদ হুসাইন দা: বা:

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.