হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

টেকনাফপ্রচ্ছদমাদকসীমান্ত

হ্নীলা থেকে ২০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ … টেকনাফের হ্নীলা আনোয়ারের প্রজেক্ট এলাকা থেকে অভিযান চালিয়ে ৬০ লক্ষ টাকা মুল্যের ২০ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে বিজিবি। তবে এ অভিযানে অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে কর্দমাক্ত লবণ মাঠের ভেতর দিয়ে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে বলে জানা গেছে। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে। যা পরবর্তীতে উর্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।
টেকনাফ-২ বিজিবি’র অধিনায়কের পক্ষে অতিরিক্ত পরিচালক মেজর শরীফুল ইসলাম জোমাদ্দার প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান ‘বিশ্বস্ত গোয়েন্দা তথ্যের মাধ্যমে জানতে পারে যে, হ্নীলা বিওপির দায়িত্বপূর্ণ আনোয়ার প্রজেক্ট এলাকা দিয়ে ইয়াবার একটি চালান মায়ানমার হতে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে পারে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে ৭ জুলাই রাতে ২ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ হ্নীলা বিওপির নায়েক ছাবির উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি বিশেষ টহল দল দ্রুত বর্ণিত এলাকায় গমন করতঃ প্রজেক্টের এক পার্শ্বে নাফ নদীর কিনারায় ঔঁৎ পেতে থাকে। পরবর্তীতে ৮ জুলাই ভোর রাত ৪টায় একজন লোককে একটি ব্যাগ হাতে নাফ নদী হতে আনোয়ার প্রজেক্ট এলাকার দিকে আসতে দেখে টহল দল থাকে চ্যালেঞ্জ করে। বিজিবি টহল দলের উপস্থিতি লক্ষ্য করা মাত্রই ইয়াবা পাচারকারী দৌঁড়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে টহল দল তার পিছু ধাওয়া করে। একপর্যায়ে ইয়াবা পাচারকারী তার হাতে থাকা ব্যাগটি ফেলে অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে কর্দমাক্ত লবণ মাঠের ভেতর দিয়ে পালিয়ে যায়। অতঃপর টহল দল ইয়াবা পাচারকারী কর্তৃক ফেলে যাওয়া ব্যাগটি খুলে গণনা করে ৬০ লক্ষ টাকা মূল্যমানের ২০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেটগুলো ব্যাটালিয়ন সদরে জমা রাখা হয়েছে। যা পরবর্তীতে উর্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে’। ##

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.