টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

হ্নীলা কাষ্টমঘাটে দিবানিশি বসছে চোরাচালানীদের হাট

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১১ অক্টোবর, ২০১৩
  • ১০৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

জসিম উদ্দিন টিপু, টেকনাফ। হ্নীলা কাষ্টমঘাটে দিবানিশি বসছে চোরাচালানীর হাট। এ ঘাট দিয়ে চোরাইপথে দিবারাত্রি অবৈধ মালামাল পাচার হচ্ছে। পাচার কাজে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ব্যবস্থা না নেওয়ায় দিনের পর দিন তারা আরো বেশী বেপরোয়া হয়ে উঠেছে বলে গুরুতর অভিযোগ উঠেছে। জানাযায়, টেকনাফ উপজেলার বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে মিয়ানমারে অবৈধ পণ্য পাচারের বস্তুনিষ্ট সংবাদ প্রকাশ হয়ে থাকে। কিন্তু হ্নীলা কাষ্টমঘাট কেন্দ্রীক প্রতিযোগীতামূল  অবৈধ পণ্য পাচারের সচিত্র সংবাদ অনেকটা আড়ালে থেকে যায়। সংবাদ মাধ্যমে কর্মরত কলম সৈনিকদের চোখে ধুলো দিয়ে সীমান্তের এ  কাষ্টমঘাটে দিবানিশি চলে চোরাকারবারীদের হাট। প্রশাসনের নাকের ডগায় চোরাকারবারী সিন্ডিকেটের এ অপতৎপরতা স্থানীয়দের মাঝে রীতিমত হৈ চৈ ফেলে দিয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন ও প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় অবাধে উক্ত ঘাট বিনিময়ে সীমান্তে দায়িত্বরত প্রশাসনের ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন হচ্ছে। হ্নীলার সচেতন মহল মনে করেন, সীমান্তের অপরাপর এলাকায় অনেকটা কড়াকড়ি নজরদারী থাকলেও এ কাষ্টমঘাটে প্রশাসনিক তৎপরতা লক্ষ্য করা যায় না। কোন খুঁটির জোরে দিবানিশি উন্মুক্তভাবে চোরাচালানীদের হাট বসে হ্নীলার সচেতন মহলকে ভাবিয়ে তুলছে। অভিযোগ উঠেছে এ উন্মুক্ত চোরাচালানীদের হাটে অবৈধ আয়ের টাকা ৩ ভাগে ভাগ করা হয়ে থাকে। নির্ভরযোগ্য একটি সুত্র নিশ্চিত করেছে, উক্ত কাষ্টমঘাট দিয়ে রোহিঙ্গারা অবৈধ চোরাই পণ্য পাচারের সময় বাজারের হাসিলের নামে টাকা উত্তোলন করে ইলিয়াছ, থানা ও সাংবাদিকের নামে জাফর আলম গুরা মিয়া, বিজিবির নাম ভাঙ্গিয়ে সোনা মিয়া, কাষ্টমসের নামে মাহবুবুর রহমান দৈনিক হারে ধার্য্যকৃত চাঁদা নিয়ে আসছে। এব্যাপারে হ্নীলা বিজিবির কোম্পানী কমান্ডার সিরাজুল ইসলাম জানান, বিজিবির নাম ভাঙ্গিয়ে যে টাকা উত্তোলন করা হচ্ছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। বিশেষ একটি পক্ষ বিজিবির সুনাম ক্ষুন্ন করতে এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে। তবে আমাদের নাম ভাঙ্গিয়ে যে বা যারা এচাঁদা উত্তোলন করছে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। টেকনাফ মডেল থানার ক্যাশিয়ার জসিম উদ্দিন জানান, পুলিশের কেউ চাঁদা উত্তোলন করলে তাকে বেঁধে রেখে পুলিশের কাছে সোর্পদ করার কথা বলেন। এক্ষেত্রে কারো সাথে কোন প্রকার আপস করা হবেনা। ###################

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT