হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

টেকনাফবিনোদন

হ্নীলায় বর্ণাঢ্য ঈদ বাজার

আল-মাসুদ হ্নীলা। আর ক’দিন পরেই বিশ্ব মুসলিম উপভোগ করবে মুসলমানদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র ঈদুল ফিতর। আর খুশির এ দিনটাকে উপভোগ্য ও মধুময় করে তুলতে মুসলিমদের ঘরে ঘরে শুরু হয়েছে ঈদের সাজগোজের মহা আয়োজন। দিনটিকে যথার্থরূপে রূপায়িত করতে নতুন নতুন পোষাক কেনার ধুম পড়েছে সব মার্কেটে। এ মহা আয়োজনকে সামনে রেখে অন্যান্য এলাকার মতো টেকনাফ উপজেলার ব্যস্ততম ইউনিয়ন হ্নীলায় এখন চলছে জমজমাট ঈদ বাজার। ক্রেতাদের চাহিদার প্রতি খেয়াল রেখে বিভিন্ন মার্কেট ও ডিপার্মেন্টাল ষ্টোরের মালিকেরা দোকান গুলোকে এমন ভাবে সাজিয়েছেন যেন খুব সহজেই ক্রেতাদের নজর কাড়া যায়। শিশু কিশোর যুবক যুবতী বৃদ্ধ সবাই এখন মার্কেটমুখী। বিশেষ করে ১৩ রোজার পর থেকে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড়ে গভীর রাত পর্যন্ত মার্কেটগুলো থাকছে সরগরম। ক্রেতারা নতুন জামা কাপড়ের পাশাপাশি স্যান্ডেল,সু,বেল্ট,ঘড়ি,চশমা,সুগন্ধী কসমেটিকস,জুয়েলারী সামগ্রী,ঈদকার্ড,টুপি ইত্যাদিও কিনছে সমানভাবে। হ্নীলা ষ্টেশনের বিভিন্ন মার্কেট ঘুরে দেখা গেছে,কেনাকাটায় সবচাইতে এগিয়ে আছে হাল ফ্যাশনের তরুণ-তরুণীরা। এসব তরুণ-তরুণীদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে-জিন্স প্যান্ট,গাভাডিং ও মোটা কাপড়ের শার্ট,প্যান্ট,গেঞ্জী,শর্ট কামিছ,লং কামিছ,টুপিচ,থ্রী পিচ,ওড়না,ক্যাপ,স্কীন টাইট,শার্ট,লুজ ড্রেস,চুমকি জরি,পাথরের কাজ করা জামা প্রভৃতি তরুণ-তরুণীদের পোষাক বলে বিবেচিত হচ্ছে এবারের ঈদে। কাপড়ের দোকান গুলোতে দেশীয় শাড়ির পাশাপাশি বিক্রি হচ্ছে ভারতীয় শাড়ি। শাড়ির মধ্যে সুতি,সিল্ক,জর্জেট,কাতান,বেনারশী,জামদানিও রাজশাহী সিল্ক প্রভৃতি। নতুন পোষাকের সাথে মানিয়ে নিতে কিনছে কসমেটিক্্সও। ঈদের দিন নামাজে যাবার জন্য পায়জামা-পাঞ্জাবীই হচ্ছে বিশেষ পোষাক। তাই সব বয়সের পুরুষেরাই এই পোষাকটি কিনছেন। এখানে বলাই বাহুল্য- রেডিমেইড পাঙ্গাবী ও শার্টের পাশাপাশি টেইলারিং এর দোকান গুলোও চলছে পুরোদমে। রাত দিন খোলা থাকা এ দোকান গুলোতে ইতিমধ্যে কাপড় অর্ডার বন্ধ হয়ে গেছে। প্রিয় জনের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নিতে ঈদকার্ড পাঠানোর প্রক্রিয়া এরই মধ্যে শুরু করে দিয়েছে যুবক-যুবতীরা। বেশ কয়েকজন ক্রেতার সাথে আলাপ করে জানা গেছে –দিন দিন দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্ব গতির কারণে সবচেয়ে বেকায়দায় পড়েছে বিভিন্ন শ্রেণী পেশায় নিয়োজিত চাকরী জীবিরা। নিউ মার্কেট,রুবি মার্কেট,নছিম মার্কেট সহ আরো বেশ কয়েকটি মার্কেটের দোকানির সাথে আলাপ করে জানা গেছে-বেচাবিক্রি আগের তুলনায় বাড়ছে। নছিম মার্কেটের ক্লথ ষ্টোরে শাড়ি কিনতে আসা গৃহিনী তৈয়বা জানালেন-রুচিসম্মত সব কিছু মিলছে তবে,দামটা অন্যান্য বছরের তুলনায় একটু বেশী। ======

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.