টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সবচেয়ে বড় ভুল : ডা. জাফরুল্লাহ মাদক কারবারি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত সাংবাদিক আব্দুর রহমানের উদ্দেশ্যে কিছু কথা! ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, ভূমিধসের শঙ্কা মোট জনসংখ্যার চেয়েও ১ কোটি বেশি জন্ম নিবন্ধন! বাড়তি নিবন্ধনকারীরা কারা?  বাহারছড়া শামলাপুর নয়াপাড়া গ্রামের “হাইসাওয়া” প্রকল্পের মাধ্যমে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ ও বার্তা প্রদান প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর উদ্বোধন উপলক্ষে টেকনাফে ইউএনও’র প্রেস ব্রিফ্রিং টেকনাফের ফাহাদ অস্ট্রেলিয়ায় গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী সম্পন্ন করেছে নিখোঁজের ৮ দিন পর বাসায় ফিরলেন ত্ব-হা মিয়ানমারে পিডিএফ-সেনাবাহিনী ব্যাপক সংঘর্ষ ২শ’ বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস বিল গেটসের মেয়ের জামাই কে এই মুসলিম তরুণ নাসের

হ্নীলায় বন্য হাতির তান্ডবে বসতঘর লন্ডভন্ডঃ ভেঙ্গে দিয়েছে গাছ ও আমনের ফসল

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১১৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

sdfsdfজসিম উদ্দিন টিপু, টেকনাফ। টেকনাফের হ্নীলায় বন্য হাতির তান্ডবে বসতবাড়ীর ব্যাপক ভাঙচুর, গাছ-গাছালী ও আমনের পাকা ধান নষ্ট হয়ে গেছে। জানাযায়, ২৮ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে হ্নীলার দমদমিয়া এলাকার ন্যাচারপার্ক সংলগ্ন একটি বসতঘরে বন্যহাতির পাল হানা দিয়ে ভাঙচুর ও কয়েকটি আমনের ধান ক্ষেত নষ্ট করে ফেলে। এতে করে বর্ষার শেষ মৌসুমেও দমদমিয়া-জাদীমুরা এলাকার লোকজন আতংকে দিনাতিপাত করছে। বন্যহাতির আক্রমণে স্থানীয় হাজী আব্দুল ওয়াহাবের পুত্র মোঃ আফজলের বসত ভিটার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির পাশাপাশি টিনের বেড়া-ছাউনির বাড়ী একেবারে ভেঙ্গে ফেলে। অন্যদিকে স্থানীয় মৃত শহর মুল্লুকের পুত্র ঠান্ডা মিয়া, আব্দুস শুক্কুরের পুত্র ছৈয়দ হোছন ও আবুল হাশিমের আমনের পাকা ধান নষ্ট করে দেয়। বর্তমানে দমদমিয়া-জাদীমুরা এলাকার চাষীরা রাত জেগে আমনের ধান ক্ষেত পাহারা দিচ্ছে। এমনি সময় বন্যহাতির পাল লোকালয়ে ঢুকে ধানক্ষেত সহ বসতভিটার গাছ-গাছালী নষ্ট করাতে সাধারণ মানুষ এখন আতংকে। এ দিকে ধানক্ষেত নষ্ট ও বসতঘর ভাঙচুরের ব্যাপারে মোচনী বিটের দায়িত্বরত অফিসার ডেপুটি রেঞ্জার মোঃ আব্দুর রাজ্জাক জানান, আসলে বনের মধ্যে বন্য হাতির পরিমাণ মত খাদ্য না থাকায় হাতি লোকালয়ে আসছে। প্রতি বছরের চাইতে এবর্ষায় হাতির হানা অনেকটা কমে গেছে। জীব বৈচিত্র রক্ষার্থে বনের বৃক্ষরাজি উজাড়ে আমাদের আরো বেশী সচেতন হতে হবে। এতে করে বন্য হাতির খাদ্য সংরক্ষণ করা যাবে। পাশাপাশি লোকালয়ে হাতির হানা বন্ধ হয়ে যাবে। ###########

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT