টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সবচেয়ে বড় ভুল : ডা. জাফরুল্লাহ মাদক কারবারি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত সাংবাদিক আব্দুর রহমানের উদ্দেশ্যে কিছু কথা! ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, ভূমিধসের শঙ্কা মোট জনসংখ্যার চেয়েও ১ কোটি বেশি জন্ম নিবন্ধন! বাড়তি নিবন্ধনকারীরা কারা?  বাহারছড়া শামলাপুর নয়াপাড়া গ্রামের “হাইসাওয়া” প্রকল্পের মাধ্যমে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ ও বার্তা প্রদান প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর উদ্বোধন উপলক্ষে টেকনাফে ইউএনও’র প্রেস ব্রিফ্রিং টেকনাফের ফাহাদ অস্ট্রেলিয়ায় গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী সম্পন্ন করেছে নিখোঁজের ৮ দিন পর বাসায় ফিরলেন ত্ব-হা মিয়ানমারে পিডিএফ-সেনাবাহিনী ব্যাপক সংঘর্ষ ২শ’ বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস বিল গেটসের মেয়ের জামাই কে এই মুসলিম তরুণ নাসের

হ্নীলার লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প গোয়েন্দারা তদন্ত নেমেছে

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১২৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

জসিম উদ্দিন টিপু, টেকনাফ। টেকনাফের লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্পের দালালের খপ্পরে পড়ে সাগর পথে মালয়েশিয়া যেতে গিয়ে শত শত বনি আদম বিভিন্ন দেশের কারাগারে মানবেতর জীবন যাপন করছে। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় বস্তুনিষ্ট সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পরও দালাল চক্ররা ধরা ছোয়ার বাইরে থাকায় মানব পাচার চক্রটি অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে। চিহ্নিত দালাল চক্রের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা না হওয়ায় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের ভূমিকাকে প্রশ্নবিদ্ধ করে তুলেছে। চলতি সপ্তাহে পাঠকপ্রিয় অনলাইন পত্রিকা টেকনাফ নিউজ, কক্সবাজার নিউজ সহ বিভিন্ন পত্রিকায় সংবাদটি প্রকাশের পর প্রশাসনের টনক নড়তে শুরু করেছে। জানাযায়, বিভিন্ন দেশের কারাগারে বন্দি এসব পরিবারে এখন নেমে এসেছে কাল ছায়া। পরিবারগুলো স্ত্রী-সন্তান-পিতা-মাতা স্বজন হারানোর বেদনায় দু’চোখের জল ফেলে নিয়মিত কান্নায় আকাশ বাতাস ভারী করে তুলেছে। দালাল চক্রের সাথে যোগাযোগ করলে তারা বিভিন্ন প্রকার আশ্বস্থ করেও কোন প্রকার সুরাহা দিচ্ছেনা বলে ভূক্তভোগীরা অভিযোগ করেছে। উল্টো দালাল চক্রের ভাড়াটিয়া গোন্ডা কর্তৃক নানান হুমকি ধমকি ও মিডিয়া কর্মীদের কাছে তথ্য ফাঁস করাতে অসহায় পরিবারগুলোকে নানান হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। দেশ বিরোধী কর্মকান্ড মানব পাচারের মত জঘন্য কর্মে সক্রিয় সদস্য লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রীক তথা রোহিঙ্গা টালের চেয়ারম্যানখ্যাত হাফেজ আইয়ুব ও ক্যাম্পের বি ব্লকের নুর মোহাম্মদ মাঝির নেতৃত্বে দক্ষিণ আলীখালী এলাকার   গবী সোলতানের পুত্র মলই মোহাম্মদ মিয়া, এ ব্লকের ডাঃ কবীর, বি ব্লকের জাহেদ, সি ব্লকের নাজির হোছন, ডি ব্লকের আব্দু করিম, ই ব্লকের মো: শফি মাঝি, ই ব্লকের নুরু, বি ব্লকের আবু ছিদ্দিক, সি ব্লকের বাইল্যা, হামিদ হোছন, বার্মায় অবস্থানরত মংডু এলাকার রহমত উল্লাহর পুত্র ইব্রাহীম সহ ক্যাম্প-মিয়ানমার-থাইল্যান্ড-মালয়েশিয়া রোড়ের বিশাল সিন্ডিকেটটি প্রতিনিয়ত ওপেন মালয়েশিয়া আদম পাচার করে আসছে। এ দিকে আদাম পাচারে জড়িত এসব গডফাদাররা আদম পাচারের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা পকেটস্থ সহ তাদের নানান অপকের্মর সংবাদ ধারাবাহিক প্রতিবেদন আকারে প্রকাশ হলে গোয়েন্দারা কোমর বেধে তদন্তে নেমেছে। এলাকার আইন শৃংঙলা অবনমন, রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশে সহায়তাকারী বার্মাইয়্যা মলই আইয়ুব সহ উক্ত সিন্ডিকেট এখন মোটা অংকের টাকা সংগৃহ অভিযানে নেমেছে। সত্য অনুসন্ধানী সংবাদকর্মীদের মোকাবেলায় বিভিন্ন প্রভাবশালীদের ম্যানেজ করতে তারা রীতিমত জোট বাধতে শুরু করেছে। রোহিঙ্গা ক্যাম্পের অভ্যন্তরে ও বিদেশে অবস্থানরত জঙ্গি নেতাদের পরামর্শে এবার দালাল চক্রটি অন্যরকম মিশন নিয়ে নিজেদের অপকর্ম আড়াল করতে অনেকটা শাক দিয়ে মাছ ঢাকার অপচেষ্টা চালিয়ে তথ্যানুসন্ধানীদের সম্মান হানি করতে উঠে পড়ে লেগেছে। রোহিঙ্গারা যুগ যুগ ধরে গতানুগতিক ধারাবাহিকতার আলোকে অর্থ ও নারী দিয়ে এদেশের অপূরণীয় ক্ষতি করেছিল। ঠিক এমনি এক মিশনের মাধ্যমে নিজেদের অপকর্ম ধামাচাপা দিতে জোর তদবির চালাচ্ছে।  এদিকে ২৩ সেপ্টেম্বর দমদমিয়া বিজিবির হাতে উক্ত সিন্ডিকেটের সহযোগী রোহিঙ্গা দালাল সহ ৩২ জন মালয়েশিয়া গামী যাত্রী আটক হলে আসল তথ্য বেরিয়ে আসতে শুরু করে। স্থানীয় বিজ্ঞজনেরা মনে করছে, রোহিঙ্গা ক্যম্প কেন্দ্রীক মালয়েশিয়ার দালালদের বিরুদ্ধে সাড়াশি অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার পূর্বক আইনের আওতায় এনে সাগর পথে মানব পাচার রোধ করার আহবান জানান। টেকনাফ থানার ওসি ফরহাদ ক্যাম্প কেন্দ্রীক দালাল চক্রটির বিরুদ্ধে সাড়াশি অভিযানের কাথা ব্যক্ত করে বলেন, মালয়েশিয়া আদাম পাচারে জড়িতদের খবর পেয়েছি। তাদের মূলহোতা সহ সকলকে গ্রেপ্তার করতে পুলিশী অভিযান অব্যাহত আছে। হ্নীলার ইউপি চেয়ারম্যান মাষ্টার মীর কাশেমের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, লেদা রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রীক দালাল চক্রের মূল হোতা হাফেজ আইয়ুবের নেতৃত্বে মালয়েশিয়া মানবপাচার সিন্ডিকেট সদস্যদের দ্রুত গ্রেপ্তার করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। পাশাপাশি তিনি মানব পাচার রোধে এলাকার সর্বস্তরের সকলকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে সর্বাত্মক সহযোগীতায় এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন।  (চলবে)   ##############

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT