স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে অপসারণে ৭২ ঘণ্টার আলটিমেটাম

প্রকাশ: ১১ জুলাই, ২০২০ ৯:৫৩ : অপরাহ্ণ

ব্যর্থতার দায়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) আবুল কালাম আজাদের অপসারণে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটামসহ চার দফা দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। আজ শনিবার বেলা ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি সংলগ্ন রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. আল মামুনের সঞ্চালনায় এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুল।

কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন- মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সনেট মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত তূর্যসহ প্রমুখ। মানববন্ধন শেষে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রয়াত সাহারা খাতুন এমপির স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. আল মামুন বক্তব্যে বলেন, ‘করোনা সংকট মোকাবিলার জন্য বঙ্গবন্ধু কন্যা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। অতীব দুঃখের বিষয় এই যে, সম্প্রতি স্বাস্থ্য খাতের ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতি ইতিমধ্যে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। এসব অনিয়ম ও দুর্নীতি বর্তমানের সরকারের সফল অর্জনগুলোকে ম্লান করে দিচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘পিপিই-মাস্ক কেলেঙ্কারি, আরটি পিসিআর মেশিন কেলেঙ্কারি, হিসাবরক্ষকের টেন্ডার কেলেঙ্কারি, জেকেজি কেলেঙ্কারি ইত্যাদি ঘটনার মাধ্যমে স্বাস্থ্য খাতের ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রকৃত চিত্র ফুটে উঠেছে। সর্বশেষ ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও রিজেন্ট হাসপাতালের ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতিই প্রমাণ করে স্বাস্থ্যখাত এখন মাফিয়াদের দখলে। করোনার মতো বৈশ্বিক মহামারিতেও এনাদের অপকর্ম থেমে নেই। স্বাস্থ্য খাতে পরিকল্পিত ভাবে এসব দুর্নীতি ও অনিয়ম সংঘটিত করে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকারের সফল অর্জনগুলোকে প্রশ্নবিদ্ধ করার অপচেষ্টা হচ্ছে।’

মো. আল মামুন বলেন, ‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কিছু ব্যক্তির এহেন গভীর ষড়যন্ত্র কখনোই বরদাশত করবে না মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। বঙ্গবন্ধুর বাংলায় কোনো দুর্নীতিবাজদের ঠাঁই হবে না। সঠিক নজরদারির অভাবে একের পর এক এসব কেলেঙ্কারি স্বাস্থ্য খাতকে বিতর্কের দিকে ঠেলে দিয়েছে। দায়িত্বশীল পদে থাকার পরও স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজির দায়িত্বহীন বক্তব্য মানুষের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি করেছে। নিজেদের ব্যর্থতা লুকানোর চেষ্টা জনগণের সঙ্গে প্রতারণার শামিল। কারণ যথাযথ চিকিৎসা পাওয়া জনগণের সাংবিধানিক অধিকার। সাধারণ জনগণের বিদেশে চিকিৎসা নেওয়ার সামর্থ্য নেই। দেশে সঠিক চিকিৎসা পাওয়া তাদের মৌলিক অধিকার।’

‘ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ দেশের সকল জেলা-উপজেলা হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসার প্রকৃত পরিবেশ কতটা নিম্নমানের তা ভাষায় বর্ণনা করা কঠিন। যথাসময় চিকিৎসক না পাওয়া, সরকারি ওষুধ বাইরে বিক্রি, বাইরে রমরমা ক্লিনিক ব্যবসা, বিভিন্ন টেস্টের নামে রোগীর পকেট কাটা, হাসপাতালগুলোর পরিবেশ অপরিষ্কার ও নোংরা ইত্যাদি সমস্যার সমাধানে ব্যর্থ হয়েছেন বর্তমান স্বাস্থ্য বিভাগের দায়িত্বশীল কর্তারা’ যোগ করেন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক।

হুঁশিয়ারি দিয়ে মুক্তিমঞ্চের এ নেতা বলেন,  ‘স্বাস্থ্য খাতে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার স্বার্থে অবিলম্বে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজির অপসারণ দাবি করছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। জনস্বার্থে আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে তাদের অপসারণ না করলে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ দেশব্যাপী সকল শহীদ মিনারের পাদদেশে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি পালন শুরু করবে।’


সর্বশেষ সংবাদ