হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

পর্যটন

সেন্টমার্টিনে পর্যটকের ঢল

মুহাম্মদ তাহের নঈম…সিয়াম সাধনার পবিত্র মাহে রমজান শেষে ঈদুল ফিতরের একটানা ছুটির দিনে প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে এখন পর্যটকের ঢল নেমেছে। তাদের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠেছে সেন্টমার্টিন ও চিরা দ্বীপ। প্রিয়জনের সঙ্গে কিছু মুহূর্ত কাটাতে বঙ্গোপসাগর তীরে বসেছে মানুষের মিলনমেলা। সাগরও রয়েছে শান্ত। বর্তমানে আবহাওয়া চমত্কার। এ সুযোগে দেশি-বিদেশি পর্যটক সাগর-পাহাড়-নদী দেখতে কেয়ারী সিন্দাবাদ নামের বিলাসবহুল জাহাজ নিয়ে নৌবিহারে আটপৌরে জীবনের রোমাঞ্চকর অনুভূতিতে সৃষ্ট হয়েছে দারুণ প্রাণচাঞ্চল্য। সব মিলিয়ে নৈসর্গিক সৌন্দর্যের অনাবিল আনন্দ উপভোগ করতে বিক্ষুব্ধ তরঙ্গাবারিত জলরাশি, সারি সারি পাহাড় আর বিস্তীর্ণ বালিয়াড়ি প্রবালবেষ্টিত সেন্টমার্টিন সৈকত এখন পর্যটকের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠেছে। পর্যটকরা সাগরে বিক্ষুব্ধ তরঙ্গাবারিত জলরাশিতে গোসল করে আনন্দে সমুদ্র সৈকত মাতিয়ে রেখেছেন। এ সৈকতে দাঁড়িয়ে সাগরের ঢেউ আছরে পড়া দৃশ্য ও স্রষ্টার অপূর্ব নিদর্শন, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য উপভোগ করছেন দেশি-বিদেশি পর্যটক। জাতীয় শোক দিবস, শবেকদর, পবিত্র ঈদুল ফিতর—সব মিলে এবারের ঈদুল ফিতরের লম্বা ছুটি পড়ায় সাগরকন্যা কক্সবাজার ভ্রমণে এসেছেন বিপুল পর্যটক। কক্সবাজারের পাশাপাশি পর্যটকদের স্বপ্নের দ্বীপ সেন্টমার্টিনও হাজার পর্যটকের পদভারে মুখরিত হয়ে পড়েছে। আনন্দে উচ্ছ্বাসে সমুদ্রের ঢেউয়ে আছড়ে পড়ছে অনেকেই। সৈকতে বেড়াতে এসে ভ্রমণপিপাসুদের মনে উচ্ছ্বাসের কমতি নেই। শুধু দেশীয় নয়, বিদেশি পর্যটকও মনের আনন্দে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সেন্টমার্টিনের এদিক-ওদিক। পর্যটকরা দলে দলে জুটি বেঁধে আসছেন কক্সবাজার ও সেন্টমার্টিনে। অনুসন্ধানে জানা যায়, কক্সবাজার ও টেকনাফের সেন্টমার্টিনে ৩৮০টির মতো হোটেল, মোটেল ও গেস্টহাউস রয়েছে। এতে পর্যটক ধারণক্ষমতা লক্ষাধিক। ঈদের ছুটিতে পর্যটকের ধারণক্ষমতা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করেছেন হোটেল-মোটেল মালিকরা। তাই কক্সবাজারের হোটেল-মোটেল গেস্টহাউসগুলোতে ঈদের পরদিন থেকেই সব রুম বুকিং হয়ে গেছে। আগামী আরও কিছুদিন পর্যটকদের আগমনের এই রেশ থাকবে বলে আশা করছেন এখানকার হোটেল-মোটেল কর্তৃপক্ষ। তারা আরও জানান, পর্যটনের এ ভরা মৌসুম আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বহাল থাকবে। ঈদের ছুটি এবং পর্যটন মৌসুম উপলক্ষে স্থানীয় জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন ব্যাপক পদক্ষেপ নিয়েছে। পর্যটকদের নিরাপদ ভ্রমণ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ট্যুরিস্ট পুলিশের দীর্ঘ সৈকতজুড়ে ব্যাপক টহলেরও ব্যবস্থা নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। পর্যটকদের সুবিধার জন্য বাড়তি সুবিধা হিসেবে বিলাসবহুল অ্যাম্বুলেন্সের ব্যবস্থা করা হয়েছে। অপরদিকে ঈদের ছুটি কাটাতে বেশিরভাগ পর্যটক ছুটে যাচ্ছে প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে। প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনের সমুদ্র সৈকত স্বচ্ছ হালকা নীলাভ পানিতে পর্যটকদের অনাবিল আনন্দে ছুটে এসেছেন। অনেকেই সপ্নিল নৌবিহারে সাগর-পাহাড়-নদী দেখতে বেছে নিয়েছেন প্রমোদতরী কেয়ারী সিন্দাবাদকে। প্রিয়জনকে সঙ্গে নিয়ে পর্যটকরা দ্বীপগুলোতেও পাড়ি দিচ্ছেন। কেয়ারী সিন্দাবাদের ব্যবস্থাপক মো. শাহ আলম আমার দেশ-কে জানান, ঈদের পরদিন থেকেই পর্যটক যাচ্ছে ব্যাপক হারে। এ অবস্থা বেশ কিছুদিন থাকবে।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.