সাগরপাড়ে ধূমপান করলেই জরিমানা আড়াই লাখ টাকা!

প্রকাশ: ৩০ জানুয়ারি, ২০১৮ ১১:১০ : পূর্বাহ্ণ

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক []

ধুমপান না করে থাকতেই পারেন না? যেখানেই যান, সিগেরেট চাই চাই। তবে এবার যদি আপনি থাইল্যান্ডের পাতায়া, ফুকেট-এর মতো সমুদ্র সৈকতগুলোতে বেড়াতে যান তাহলে আপনার এই বদভ্যাস অবশ্যই বদলাতে হবে। কারণ এবার মজার থেকে সাজার পরিমাণ বেশি। সমুদ্র সৈকতে ধুমপান করলেই গুনতে হবে জরিমানা। কেনো? তাহলে জেনে নিন আসল ঘটনা।

থাইল্যান্ডের পাতায়া, ফুকেট-এর মতো সমুদ্র সৈকতগুলো ভ্রমণপিপাসুদের কাছে এখন আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্রের নাম। কিন্তু নভেম্বর থেকেই এসব স্থানে বলবত হবে কঠোর এক ধূমপান বিরোধী আইন। এই আইন যারাই ভাঙবেন, জরিমানা হিসেবে তাদের গুণতে হবে প্রায় আড়াই লাখ টাকা!ধূমপায়ীদের জন্য চরম দুঃসংবাদ নিয়ে হাজির হয়েছে থাইল্যান্ডের পর্যটন কর্তৃপক্ষ। দেশটির জনপ্রিয় সমুদ্রসৈকতগুলোতে প্রকাশ্যে কেউ বিড়ি-সিগারেট-চুরুট খেতে পারবেন না। নিয়ম ভঙ্গ করলে জরিমানা হবে ৩০০০ ডলার বা ২ লাখ ৪৯ হাজার টাকা। অনাদায়ে এক বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড!

সম্প্রতি ফুকেটের আড়াই কিলোমিটার দীর্ঘ পাতং বিচ পরিষ্কার করার সময় ১ লাখ ৪০ হাজার ফেলে দেওয়া সিগারেটের গোড়া পাওয়ার পর এই সিদ্ধান্ত নেয় থাইল্যান্ডের পর্যটন কর্তৃপক্ষ। এর মাধ্যমে দেশের সমুদ্রসৈকত পরিষ্কার রাখা যাবে বলেই মনে করছেন তারা।টুরিজম অথোরিটি অফ থাইল্যান্ড এর গভর্নর ইউথাসাক সুপাসর্ন সোমবার এক বিবৃতিতে বলেন, ‘এই সৈকতগুলো দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার সবচেয়ে সুন্দর সমুদ্রতটের অন্যতম। আমরা চাই এগুলোর সৌন্দর্য বজায় থাকুক।’

প্রকাশ্যে বালুকাবেলায় মনের সাধ মেটাতে না পারলেও সংরক্ষিত এলাকায় সিগারেট খাওয়ার অনুমতি মিলবে ধূমপায়ীদের। সেসব স্থানে সিগারেটের গোড়া ফেলার সুব্যবস্থা থাকবে বলেও ওই বিবৃতিতে জানানো হয়।পাতায়া বা ফুকেট ছাড়াও এই আইন কার্যকর হবে ক্র্যাবি, কোহ সামুই এবং ফাং না সৈকতেও।

তথ্য: টিওডি


সর্বশেষ সংবাদ