হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

টেকনাফধর্ম ও দর্শনপ্রচ্ছদ

লেঙ্গুরবিল বড় মাদ্রাসা নুরানীর কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ

হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ … লেঙ্গুরবিল বড় মাদ্রাসা নুরানীর কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে। ৩ মে দুপুরে নুরানী শাখা মিলনায়তনে অনাড়ম্বর অনুষ্টানের মাধ্যমে ‘এ+’ প্রাপ্ত কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে বোর্ড প্রদত্ত পুরস্কার বিতরণ করা হয়। লেঙ্গুরবিল জামিয়া এমদাদিয়া বড় মাদ্রাসার মুহতমিম আলহাজ্ব মাওঃ ওবাইদুর রহমান শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। জামিয়ার সিনিয়র শিক্ষক মাওঃ ইব্রাহীম, হেফজ বিভাগের প্রধান হাফেজ মাওঃ নুরুল আমিন, নুরানী বিভাগের প্রধান মাওঃ ওসমান হাছান, সকল বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, অভিভাবক এসময় উপস্থিত ছিলেন।
জানা যায়, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের লেঙ্গুরবিল জামিয়া এমদাদিয়া বড় মাদ্রাসার নূরানী বিভাগের শিক্ষার্থীরা কেন্দ্রীয় সনদ পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ২৮ জন এ প্লাসসহ শতভাগ পাস করে। একটি প্রতিষ্টান থেকে এত বেশী ‘এ+’ এবং শতভাগ পাস বিরল। ২৮ জন এ প্লাসসহ শতভাগ পাস করে সেরা প্রতিষ্টানে পরিণত হয়েছে লেঙ্গুরবিল জামিয়া এমদাদিয়া বড় মাদ্রাসার নূরানী। সেরা শুধু টেকনাফ উপজেলা নয়, অন্য কোন নুরানীতে এ ধরণের সাফল্যের তথ্য পাওয়া যায়নি।
‘এ+’ প্রাপ্তরা হচ্ছে মোঃ হোসন ও সিরুয়া বেগমের ছেলে সাহেদ হোসাইন মামুন, আবদুর রহিম ও ফরিদা আক্তারের ছেলে মোঃ শাহিন আলম, ফজল করিম ও ফাতেমা খাতুনের ছেলে ফায়সাল, নুর হোসাইন ও খদিজা বেগমের ছেলে শফি আলম, জহির আহমদ ও নাসিমা খাতুনের ছেলে মোঃ আবদুল্লাহ, ইমাম হোসেন ও আনোয়ারা বেগমের ছেলে আনোয়ার হোসেন, গুরা মিয়া ও ফারভিন আক্তারের ছেলে আফছার হোসাইন, আবদুস সালাম ও ছেনোয়ারা বেগমের ছেলে সায়েম উদ্দীন, জাহেদ হোসাইন ও হাসিনা বেগমের ছেলে শাহেদ হোসাইন, হাফেজ হামিদুর রহমান ও জুলাইখা বেগমের ছেলে মোঃ মুসা, ফরিদ আলম ও ধলা বানুর ছেলে রাকিবুল হাসান, আবু তাহের ও জন্নাত আরা বেগমের ছেলে মোঃ ফয়েজ, হাবিবুর রহমান ও আয়েশা ছিদ্দিকার ছেলে মোঃ ওমর ফারুক, আবুল কাশেম ও রশিদা খাতুনের ছেলে মোঃ রাশেদ, নাজির হোসাইন ও আয়েশা খাতুনের ছেলে মোঃ তারেক, মোঃ ইউনুচ ও খদিজা বেগমের ছেলে মোঃ আবদুল্লাহ, মৃত আবুল কাশেম ও আরজিনা আক্তারের মেয়ে তারজিনা শারমিন মেঘনা, ইউসুফ মিস্ত্রী ও সাবেকুন্নাহারের মেয়ে তানিয়া সুলতানা রিফা, আবদুল জব্বার ও মরিজাহানের মেয়ে মোছাম্মৎ ওয়াদাহ, শাকের আহমাদ ও মাহমুদা খাতুনের মেয়ে রুমি আক্তার, সৈয়দ হোসাইন ও বুলবুল আক্তারের মেয়ে জন্নাতুল ফেরদাউস, মোঃ ইদ্রিস ও মাবিয়া খাতুনের মেয়ে হালিমা সাদিয়া, হাফেজ হামিদুর রহমান ও জুলাইখা বেগমের মেয়ে আসমাউল হুসনা, ইমাম শরিফ ও মোস্তাফা খাতুনের মেয়ে রুকিয়া আকতার, হাফেজ নুরুল আমিন ও মোস্তাফা খাতুনের মেয়ে রুকিয়া আক্তার, মোঃ ইদ্রিস ও ফরিদা খাতুনের মেয়ে সাবেকুন্নাহার, সৈয়দ হোসাইন ও শামশুন্নাহারের মেয়ে সুমাইয়া সুলতানা রিয়া।
‘এ মাইনাস’ প্রাপ্তরা হচ্ছে মোঃ ছিদ্দিক ও শবে মেরাজের ছেলে মোঃ ইউসুফ, মৃত মোঃ হোসাইন ও মনোয়ারা বেগমের ছেলে মহিউদ্দীন, হাফেজ ইসমাঈল ও আমিনা খাতুনের ছেলে আবদুল্লাহ, জহির আহমদ ও নাসিমা খাতুনের ছেলে মোঃ আমিন, ইউসুফ ও তৈয়বা খাতুনের ছেলে ওমর ফারুক, ইব্রাহিম ও ছালেহা বেগমের ছেলে মোঃ রিদওয়ান, রশিদুল্লাহ ও লায়লা বেগমের ছেলে জাহেদ উল্লাহ, আবদুল আজিজ ও পারভিন আক্তারের ছেলে সাইফুল ইসলাম, ইয়াহিয়া ও আনোয়ারা বেগমের ছেলে ইসমাইল, জাফর আলম ও মনোয়ারা বেগমের মেয়ে সাবিনা ইয়াসমিন, আবুল হোসইন ও আনোয়ারা বেগমের মেয়ে রাশেদা বেগম, ফরিদ আহমদ ও জুহুরা বেগমের মেয়ে নাসিমা আক্তার, হোসন আহমদ ও খুরশিদা বেগমের মেয়ে সুমাইয়া আক্তার, সৈয়দ হোসাইন ও জাহেদা বেগমের মেয়ে শরিফা বেগম, নবী হুসাইন ও মিনারা বেগমের মেয়ে সফায়াতুল মরিয়ম শামিমা, ছিদ্দিক আহমদ ও শবে মেরাজের মেয়ে ইয়াসমিন আরা, মাওঃ কবির আহমদ ও ফাতেমা খাতুনের মেয়ে জন্নাতুল মরিয়ম, ইব্রাহিম ও সালেহা বেগমের মেয়ে উম্মে হারেছা, জাহাঙ্গির আলম ও তাসলিমা খাতুনের মেয়ে জাকিয়া হক জ্যোতি, হাফেজ মোঃ ইয়াকুব ও হাসিনা বেগমের মেয়ে হাফসা ফারুকা, আয়াছ ও সাঈদা বেগমের মেয়ে তাসমিনা আক্তার রিজা, আবুল হাশিম ও রশিদা বেগমের মেয়ে তাহমিনা আক্তার, বশির আহমদ ও দিলোয়ারা বেগমের মেয়ে নুসরাত ফাতেমা দিলসাদ, আবদুল্লাহ ও মনোয়ারা বেগমের মেয়ে ইয়াসমিন আকতার, আবুল হাশেম ও ফরিদা বেগমের মেয়ে মনোয়ারাা বেগম মনু, কালা মিয়া ও জাহেদা খাতুনের মেয়ে তাহমিনা আক্তার তুফা, জাহেদ হোসাইন ও ছমিরা ইয়াসমিনের মেয়ে নির্জুলা আক্তার লিপা, ছিদ্দিক আহমদ ও আমিনা খাতুনের মেয়ে হুমাইরা জন্নাত, মমতাজ মিয়া ও ফিরুজা খাতুনের মেয়ে রুমানা আকতার, তজিল আহমদ ও হামিদা খাতুনের মেয়ে আসমা আক্তার, মোঃ তৈয়ব ও গোলবাহারের মেয়ে মনিরা ইয়াসমিন, মোঃ হুসাইন ও নুর জাহানের মেয়ে সাজেদা আক্তার, শবিবর আহমদ ও ইয়াসমিন আক্তারের মেয়ে হালিমা সাদিয়া আক্তার, মাওঃ জহির আহমদ ও মুরশিদার মেয়ে মরজান, ফরিদ মিয়া ও সুফিয়া খাতুনের মেয়ে ফারহানা আক্তার, হুসাইন আহমদ ও ফাতেমা খাতুনের মেয়ে ছমিরা আক্তার, সৈয়দ হুসাইন ও উম্মে সালমার মেয়ে সাদিয়া আক্তার, আবদুর রহমান ও রহিমা খাতুনের মেয়ে লুৎফা, ইমাম হুসাইন ও তৈয়বার মেয়ে সুমাইয়া, আবদুল গফুর ও আফরোজা পারভিনের মেয়ে আফনান রিহাব, আবদুল হাশেম ও আয়েশা খাতুনের মেয়ে রুবিনা আক্তার, আবুল হাশেম ও আয়েশা খাতুন মেয়ে রুকিয়া আকতার।
নুরানী বিভাগের প্রধান মাওঃ ওসমান হাছান জানান, ১৯৯৮ সালে এ মাদ্রাসায় নুরানী বিভাগ চালু হয়। বর্তমানে নুরানী বিভাগে ৮ জন শিক্ষক কর্মরত রয়েছেন। এরা হলেন চকরিয়ার মাওঃ ওসমান হাছান, মাওঃ কফিল উদ্দিন, মহেশখালীর মাওঃ জালাল উদ্দিন ও আবদুর রহীম, মাওঃ মাহফুজুর রহমান, চকরিয়ার হাফেজ শহিদুল্লাহ, টেকনাফের মাওঃ ওসামা কবির এবং রামুর মাস্টার সাইফুল ইসলাম। ##

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.