টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
লেদা জাহাঙ্গীর সওদাগরের প্রতিবাদ ফোর্বসের প্রভাবশালী নারীর তালিকায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাহারছরা ইউনিয়নের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা প্রতীকের মাও. আজিজকে পুণরায় জয়যুক্ত করুন  …বদি আবরার হত্যায় ২০ আসামির মৃত্যুদণ্ড টেকনাফ পৌরসভা ও বাহারছরা ইউপি নির্বাচনে প্রতিদন্ধি প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ সম্পন্ন সেন্টমার্টিনদ্বীপে আটকা পর্যটকরা ফিরছেন পল্লানপাড়ায় তথ্যআপার উঠান বৈঠক ফেসবুকের বিরুদ্ধে রোহিঙ্গাদের ১৫০ বিলিয়ন ডলারের মামলা ‘আল্লাহ ছাড় দেন, ছেড়ে দেন না’ স্বেচ্ছায় সেন্টমার্টিনদ্বীপে আটকা পর্যটকদের হোটেল ভাড়া অর্ধেক কমিয়ে মাইকিং

লাইফ বীমা কোম্পানিগুলোর অবিশ্বাস্য সাফল্য: প্রায় ৯০ ভাগ দাবি পরিশোধ

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০১৭
  • ৬৭৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক::: বীমা কোম্পানি সম্পর্কে গ্রাহকদের বরাবরই অভিযোগ ছিল কোম্পানিগুলো দাবির টাকা পরিশোধ করে না। এ ধারণা সাম্প্রতিক সময়ে বেশ পাল্টে দিয়েছে লাইফ বীমা কোম্পানিগুলো। বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ)’র কাছে দাখিল করা তথ্য মতে, ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত উত্থাপিত বীমা দাবির গড়ে ৮৮.৮৬ ভাগ পরিশোধ করেছে পুরনো কোম্পানিগুলো। অথচ বিগত বছরগুলোতে কোম্পানিগুলোর ৮০ ভাগ দাবিই অপরিশোধিত থাকতো।

আইডিআরএ’র তথ্য অনুসারে, বিদায় বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দাবি পরিশোধের দিক থেকে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স। কোম্পানিটির দাবি পরিশোধের হার ৯৬.৯৮ ভাগ। ২য় অবস্থানে থাকা সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের দাবি পরিশোধের হার ৮৯.৯৮ ভাগ। আর ৩য় অবস্থানে থাকা রুপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের দাবি পরিশোধের হার ৮৯.৬৯ ভাগ।

অন্যদিকে দেশের বৃহৎ কোম্পানি হিসেবে খ্যাত ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স দাবি পরিশোধের হারের দিক থেকে শীর্ষ দশে নেই। আর প্রভাবশালী লাইফ বীমা কোম্পানি হিসেবে খ্যাত মেটলাইফ ৭৯.৭৮ ভাগ দাবি পরিশোধ করে ১০ম অবস্থানে রয়েছে। তবে পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের জুন মাস পর্যন্ত দাবি পরিশোধের হার ৯৯.৩৯ ভাগ। ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির জুলাই মাস পর্যন্ত দাবি পরিশোধের হার ৯৯.০০ ভাগ।

পপুলার লাইফের জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এবং ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সের আগস্ট ও সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দাবি পরিশোধের কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। সঙ্গতকারণে এ বিশ্লেষণের বাইরে রাখা হয় এ কোম্পানি দু’টিকে। বীমা দাবি আদায়ে কোম্পানিগুলোর এ পারদর্শীতা বীমাখাতে ইতিবাচক লক্ষণ হিসেবে দেখছেন সংশ্লিষ্টরা।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইডিআরএ’তে দাখিলকৃত তথ্য মতে, ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ফারইষ্ট ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সে সর্বমোট ৬৩ হাজার ৫৬০টি দাবি উত্থাপিত হয়। এরমধ্যে ৬১ হাজার ৬৪৩টি দাবি পরিশোধ করে। অর্থাৎ ৯৬.৯৮ ভাগ দাবি পরিশোধ করেছে ফারইষ্ট লাইফ।ভাগের হিসাবে কোম্পানিটি দাবি পরিশোধে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে।

এর পরের অবস্থানে রয়েছে সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্স। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটিতে ৫৮ হাজার ৮৮২টি দাবি উত্থাপিত হয়। এরমধ্যে ৫২ হাজার ৯৮৪টি দাবি পরিশোধ করা হয়। অর্থাৎ কোম্পানিটি ৮৯.৯৮ ভাগ দাবি পরিশোধ করেছে। রূপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সে গত সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ২৮ হাজার ৯৮৬টি বীমা দাবি উত্থাপিত হয়। এরমধ্যে ২৬ হাজার দাবি পরিশোধ করা হয়েছে। ভাগের হিসাবে কোম্পানিটি ৮৯.৬৯ ভাগ দাবি পরিশোধ করে করে ৩য় অবস্থানে রয়েছে।

দাবি পরিশোধের হারের দিক দিয়ে চতুর্থ অস্থানে রয়েছে সানলাইফ ইন্স্যুরেন্স। বিগত বছরে কোম্পানিটিতে ৩১ হাজার ৯০৭টি দাবি উত্থাপিত হয়। যারমধ্যে ২৮ হাজার ২৭৩টি দাবি পরিশোধ করা হয়েছে। অর্থাৎ ৮৮.৬১ ভাগ দাবি পরিশোধ করেছে সানলাইফ। এর পরের অবস্থানে রয়েছে প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স। আলোচ্য সময়ে উত্থাপিত ৩৫ হাজার ১৩৯টি দাবির মধ্যে ২৯ হাজার ১৪৮টি দাবি পরিশোধ করে কোম্পানিটি। যার পরিমাণ ৮২.৯৫ ভাগ।

পদ্মা ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি ৮২.৭৬ ভাগ দাবি পরিশোধ করে ৬ষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কোম্পানিটিতে ২৪ হাজার ৪৫১টি দাবি উত্থাপিত হয়। যারমধ্যে ২০ হাজার ২৩৭টি দাবি পরিশোধ করা হয়। সানফ্লাওয়ার লাইফ ইন্স্যুরেন্সে আলোচ্য সময়ে ২৯ হাজার ১২১টি দাবি উত্থাপিত হয়। যারমধ্যে ২৩ হাজার ৮৮৬টি দাবি পরিশোধ করা হয়েছে। অর্থাৎ ৮২.০২ ভাগ দাবি পরিশোধ করেছে সানফ্লাওয়ার।

অন্যদিকে সরকারি প্রতিষ্ঠান জীবন বীমা করপোরেশনে আলোচ্য সময়ে ৫২ হাজার ৪৮২টি দাবি উত্থাপিত হয়। এরমধ্যে ৪২ হাজার ৭২৬টি দাবি পরিশোধ করা হয়। অর্থাৎ ৮১.৪১ ভাগ দাবি পরিশোধ করে প্রতিষ্ঠানটি। শতাংশের হিসাবে যার অবস্থান ৮ম। ৯ম অবস্থানে থাকা প্রগতি লাইফ ইন্স্যুরেন্স সর্বমোট ৪৬৫টি দাবির বিপরীতে ৩৭৮টি দাবি পরিশোধ করে। অর্থাৎ কোম্পানিটি ৮১.২৯ ভাগ দাবি পরিশোধ করেছে। এর পরের অবস্থানে রয়েছে মেটলাইফ। বিদেশি এই কোম্পানি ৯৩ হাজার ৭৫৩টি দাবির মধ্যে ৭৪ হাজার ৮০৫টি দাবি পরিশোধ করে। যার পরিমাণ ৭৯.৭৮ ভাগ।

এছাড়া মেঘনা লাইফ ইন্স্যুরেন্স ১ হাজার ৮২১টি বীমা দাবির মধ্যে ১ হাজার ৪৪৮টি দাবি পরিশোধ করেছে। কোম্পানিটির দাবি পরিশোধের হার ৭৯.৫১ ভাগ। বায়রা লাইফ ইন্স্যুরেন্স ৫ হাজার ৮০টি দাবির মধ্যে ৩ হাজার ৭০১টি দাবি পরিশোধ করেছে। অর্থাৎ কোম্পানিটি ৭২.৮৫ ভাগ দাবি পরিশোধ করেছে। এর পরের অবস্থানে থাকা শীর্ষস্থানীয় বীমা কোম্পানি ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স। কোম্পানিটি ১ লাখ ৯২ হাজার ১৮৫টি বীমা দাবির বিপরীতে পরিশোধ করেছে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৭৭৩টি। অর্থাৎ ৭০.৬৪ ভাগ দাবি পরিশোধ করা হয়েছে।

দাবি পরিশোধের হারের দিক দিয়ে ১৪তম অবস্থানে রয়েছে হোমল্যান্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স। কোম্পানিটি ১৭ হাজার ৪৪৬টি দাবির মধ্যে ১২ হাজার ১৪৪টি বা ৬৯.৬০ ভাগ দাবি পরিশোধ করেছে। এরপরের অবস্থারেন রয়েছে গোল্ডেন লাইফ ইন্স্যুরেন্স। আলোচ্য সময়ে ২৯ হাজার ৪১টি দাবি উত্থাপিত হয় কোম্পানিতে। যারমধ্যে ১৬ হাজার ৩৪৩টি বা ৫৬.২৭ ভাগ দাবি পরিশোধ করে।

পপুলার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের জুন মাস পর্যন্ত দাবি পরিশোধের হার ৯৯.৩৯ ভাগ।এসময় ৪ লাখ ৫০ হাজার ৭০৭টি দাবির মধ্যে ৪ লাখ ৪৭ হাজার ৯৮০টি দাবি পরিশোধ করা হয়। আর জুলাই মাস পর্যন্ত ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্সে দাবি পরিশোধের হার ৯৯.০০ ভাগ। এসময় কোম্পানিটিতে ১ লাখ ৩১ হাজার ৫২৩টি দাবি উত্থাপিত হয়। এরমধ্যে ১ রাখ ৩০ হাজার ২১৮টি দাবি পরিশোধ করা হয়। আর প্রগ্রেসিফ লাইফ ইন্স্যুরেন্সের কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

অন্যদিকে নতুন ১৩ বীমা কোম্পানিতে ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৪ হাজার ৫৬২টি দাবি উত্থাপিত হয়। এরমধ্যে ৪ হাজার ৩৪৫টি দাবি পরিশোধ করেছে কোম্পানিগুলো। সে হিসাবে নতুন কোম্পানিগুলোতে দাবি পরিশোধের হার ৯৫.১৯ ভাগ। তবে ডায়মন্ড লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং ট্রাস্ট লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির কোন তথ্য পাওয়া যায়নি।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT