টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

র‌্যাবের অভিযান-জলদস্যুর আস্তানা থেকে ১৮ জেলে উদ্ধার

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১২
  • ১২৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সুন্দরবনে জলদস্যুদের বন্দিদশা থেকে ১৮ জেলেকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দিয়েছে র‌্যাব-৮ এর কর্মকর্তারা। ৯ দিন আগে সুন্দরবনের কাছে বঙ্গোপসাগরে ১ নম্বর বয়ার কাছ থেকে তাদের জলদস্যু জাকির ও ছোট্ট বাহিনী মুক্তিপণের জন্য অপহরণ করে সুন্দরবনে বন্দি করে রেখেছিল। উদ্ধারকৃত ২ জনের বাড়ি বাগেরহাটের মোংলা বাকী ১৬ জনের বাড়ি বরগুনা, পটুয়াখালী, পিরোজপুর, ভোলা ও লক্ষ্মীপুর জেলায় বলে বৃহস্পতিবার বিকেলে র‌্যাব-৮ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

র‌্যাব-৮ এর মেজর সাব্বির হোসেন বৃহস্পতিবার বিকেলে পাথরঘাটা উপজেলার চরদুয়ানী বাজারে উপস্থিত হয়ে স্থানীয় সাংবাদিকদের ঘটনা বিবরণ দিয়ে বলেন, তিনিসহ র‌্যাব-৮ এর ফোর্স নিয়ে ৫দিন যাবত সুন্দরবনে অপহৃত জেলেদের উদ্ধারের জন্য অভিযান চালাচ্ছিলেন। ঘটনার সূত্র ধরে সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে দোবিকা ফরেষ্ট অফিসের কাছে রহমতপুর চর একটি আস্তানা খুঁজে পায়। সেখানে অভিযান পরিচালনা করলে ডাকাত দল পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। অপহৃত ১৮ জেলে একটি খালের মধ্যস্থ নামবিহিন দুটি মাছ ধরা ট্রলারে বাধা অবস্থায় দেখতে পায়। এ সময় উক্ত আস্তায় বিপুল পরিমাণ খাদ্য সামগ্রী, শীতের কম্বল, পানি, সিগারেট উদ্ধার করে সুন্দরবনের আলোর কোলে অবস্থানকারী জেলেদের মধ্যে বিতরণ করে দেয়।

উদ্ধারকৃত জেলেরা হলেন, বরগুনার সদর উপজেলার জালাল আহম্মেদের ছেলে হাবিবুর রহমান (৫৮), আগাপদ্মা গ্রামের ওফেজ আহম্মেদের পুত্র মোহাম্মদ হোসেন (৩৫), নলী চরকগাছিয়া গ্রামের শের আলী মৃধা পুত্র হারুন মৃধা (৩২), পাথরঘাটা উপজেলার বড় পাথরঘাটা গ্রামের আছমত আলী হাওলাদারের পুত্র আ. লতিফ (৫০), উত্তর হাতেমপুর গ্রামের আজাহার আলী হাওলাদারের পুত্র আলী হোসেন (৩৯), পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলার গোলবুনিয়া গ্রামের আলতাফ প্যাদার পুত্র মোশারফ প্যাদা (৩৫), চান্দু পাড়া গ্রামের মোসলেম ফরাজীর পুত্র রিপন ফরাজী (৪২), পেয়ারপুর গ্রামের ইউসুফ দফাদারের পুত্র আলাউদ্দিন (৩৮), চম্বাপুর ধানখালী গ্রামের লাল মিয়া শিকদারের পুত্র কালাম শিকদার (৪০), নজিবপুর গ্রামের তৈয়ব আলী খানের পুত্র বেলাল খান (৩১), পিরোজপুর জেলার ভান্ডারিয়া উপজেলার ধাওয়া গ্রামের ওকিল চন্দ্র হাওলাদারের পুত্র অমল চন্দ্র (৩০), দারুলহুদা গ্রামের আফছের উদ্দিন হাওলাদারের পুত্র মো. ফারুক হোসেন (৫৫), তেলিখালী গ্রামের আশ্রাফ আলী মাতব্বরের পুত্র খোকন মাতবর (৩২), বাগেরহাট জেলার রায়েন্দা উপজেলার খোন্তাকাটা গ্রামের রহমান তালুকদারের পুত্র লোকমান (৩৮), মংলা উপজেলার উলুবুনিয়া গ্রামের কাদের গাজীর পুত্র কালাম গাজী (২৮), আলতাফ মোড়লের পুত্র মাহাতাব (৩০), লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার চর নেয়ামত গ্রামের মো. হানিফ এর পুত্র মো. সাহেদ (৪৬), ভোলা জেলার চরফ্যাশন উপজেলার ফরিদাবাদ গ্রামের মোতালেব ফরাজীর ছেলে মো. শাহ আলম (৩০)।

এদের মধ্যে দুইজনকে সুন্দরবনের আলোর কোল নামক স্থানে জেলেদের কাছে হস্তান্তর করে। অবশিষ্ট জেলেদের পাথরঘাটা উপজেলার চরদুয়ানী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম. কামরুল ইসলামের কাছে নিজ নিজ বাড়িতে পাঠানোর জন্য হস্তান্তর করেছে র‌্যাব।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT