হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

প্রচ্ছদসীমান্ত

রোহিঙ্গা ইস্যুতে ১৪ মে নিরাপত্তা পরিষদে আবার আলোচনা

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক:

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক:: রোহিঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে আগামী ১৪ মে নিরাপত্তা পরিষদে আবারও আলোচনা হবে। নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিনিধিদল গত ২৮ এপ্রিল থেকে ২ মে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সফর করে রোহিঙ্গা পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখে গেছে। নিরাপত্তা পরিষদের ওই আলোচনায় তারা তাদের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করবেন।

একজন কূটনীতিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আজ (নিউ ইয়র্ক সময় বৃহস্পতিবার) আমাদের এ আলোচনার বিষয়ে জানানো হয়েছে।’

বাংলাদেশ সেখানে কী চায় জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা সেখানে কথা বলতে চাই এবং অবশ্যই রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে নিরাপত্তা পরিষদ আরও কার্যকরি ভূমিকা পালন করে একটি রেজ্যুলেশন আনবে সেটি আমরা চাই।’

নিরাপত্তা পরিষদ বাংলাদেশকে ওই বৈঠকে কথা বলতে দেবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এর আগেও আমরা নিরাপত্তা পরিষদে কথা বলেছি। এবারও আশা করি তারা আমাদের সুযোগ দেবে।’

মিয়ানমারও সেখানে কথা বলবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘যদি আমাদের সুযোগ দেয় তবে মিয়ানমারকেও একই সুবিধা দিতে হবে।’

নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিনিধিদলের বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সফরের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এটি একটি ভালো সফর হয়েছে। মিডিয়া রিপোর্ট দেখে মনে হয় মিয়ানমারে প্রতিনিধিদল যা জানতে চেয়েছিল সেটির সদুত্তর তারা পায়নি।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চিঠির বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এটি অত্যন্ত ভালো লক্ষণ। কারণ তারা আমাদের প্রথম থেকে সমর্থন দিচ্ছে এবং এখনও সেই সমর্থন অব্যাহত আছে।’

নিরাপত্তা পরিষদে এই চিঠির প্রভাব পড়বে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অবশ্যই এর প্রভাব আছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট যে অবস্থান নেবেন, তার প্রতিফলন নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে থাকবে।’

নিরাপত্তা পরিষদে মিয়ানমার নিয়ে একাধিকবার আলোচনা হয়েছে এবং একটি বাধ্যতামূলক রেজ্যুলেশন আনার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু ভেটো শক্তির অধিকারী চীন ও রাশিয়ার অবস্থানের কারণে ওই রেজ্যুলেশন গৃহীত হয়নি। পরে ওই রেজ্যুলেশনকে সামান্য পরিবর্তন করে গত নভেম্বরে আলোচনার পর নিরাপত্তা পরিষদ প্রেসিডেন্ট স্টেটমেন্ট ইস্যু করা হয়।  প্রেসিডেন্ট স্টেটমেন্ট কারও জন্য বাধ্যতামূলক নয়।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চিঠি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে হস্তান্তর করেন।

চিঠিতে  ট্রাম্প রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে নিরাপদে ও স্বেচ্ছায় তাদের নিজ দেশে পাঠাতে মিয়ানমারের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের চাপ অব্যাহত রাখার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেছেন।

ওই চিঠিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘এ ব্যাপারে কোনও প্রশ্ন নেই যে, এই সংকট সৃষ্টির জন্য দায়ী মিয়ানমারকে অবশ্যই জবাবদিহি করতে হবে।’

বার্নিকাট বৈঠকে প্রধানমন্ত্রীকে জানান, ইউএসএইড -এর প্রেসিডেন্ট মার্ক গ্রিন এবং কার্টার সেন্টারের সিইও ও সাবেক রাষ্ট্রদূত ম্যারি অ্যান পিটার্স বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের অবস্থা দেখতে খুব শিগগিরই বাংলাদেশ সফর করবেন।

মিয়ানমার সামরিক বাহিনীর অত্যাচারে বাংলাদেশে ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বিভিন্ন সময়ে রাখাইন থেকে পালিয়ে এসেছে। এরমধ্যে গত ২৫ আগস্টের পরে যারা এসেছে তাদের মধ্যে ৩০ হাজার নারী অন্তঃসত্ত্বা, ৩৬ হাজার অনাথ এবং প্রায় আট হাজার শিশুর মা ও বাবা উভয়ই নিখোঁজ।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.