টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত: সরকার সনদের নামে কওমী মাদরাসা ধ্বংসের ষড়যন্ত্র করছে

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ২৪৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ইসলামিকনিউজ রিপোর্ট:thumbopen:  বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীর ও হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ বলেন, সরকার সনদের নামে কওমী মাদরাসার ঐতিহ্য ও শিক্ষাধারা ধ্বংসের গভীর ষড়যন্ত্র করছে। কওমী মাদরাসাকে সরকারের নিয়ন্ত্রনে নেয়ার নীল নকশা আঁকছে। কওমী মাদরাসার বিরুদ্ধে কোন ষড়যন্ত্র বরদাস্ত করা হবে না। তিনি বলেন, সরকার দেশের স্বনাম ধন্য ওলামায়ে কেরামের কথা না শুনে কিছু দরবারী আলেম ও নাস্তিক মুরতাদ ও ইহুদী-খৃষ্টান, ব্রাহ্মণ্যবাদী ও শাহবাগী নাস্তিক চক্রের পরামর্শে শত বছরের ঐতিহ্যবাহী কওমী মাদরাসা ধ্বংস করার যে কোন চক্রান্ত রুখে দিবে। কওমী মাদরাসার ইতিহাস ও বৈশিষ্ট নষ্ট করে আলেমরা কওমী সনদের স্বীকৃতি চান না। সিলেবাস প্রণয়ন, প্রতিষ্ঠান পরিচালনা, শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা রেখে কওমী আলেমরা বেফাকের অধীনে সনদের স্বীকৃতি চান।

শুক্রবার বাদ জুমা রাজধানীর কামরাঙ্গীরচরস্থ জামিয়া নূরিয়া মাঠে সরকার সনদের নামে কওমী মাদরাসার ঐতিহ্য ও শিক্ষাধারা ধ্বংসের গভীর ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে বাংলাশে খেলাফত আন্দোলনের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে সভাপতির ভাষণে তিনি একথা বলেন। এতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দলের মহাসচিব ও হেফাজতের কেন্দ্রীয় যুগ্মমহাসচিব মাওলানা জাফরুল¬াহ খান, মাওলানা হাবিবুল¬াহ মিয়াজী, মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মাওলানা সাইফুল ইসলাম, মাওলানা ফখরুল ইসলাম ও মাওলানা আবুল কাসেম কাসেমী প্রমূখ। সমাবেশ পরিচালনা করেন দলের কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক মাওলানা সুলতান মহিউদ্দীন।  মাওলানা জাফরুল্লাহ খান বলেন, সরকারের যদি সত্যি কওমী মাদরাসার সনদ দেয়ার স্বদিচ্ছা ও আন্তরিকতা থাকতো তাহলে কওমী মাদরাসার বৃহৎ শিক্ষা বোর্ড বেফাকের অধিনেই শুধু মাত্র সনদের স্বীকৃতি দিত। তা না করে সরকার কওমী মাদরাসাগুলো নিয়ন্ত্রনে অক্টোপাশে বাধার চেষ্টা চালাচ্ছে। ইনশাল্লাহ এ দেশের কওমী মাদরাসার শুভাকাঙ্খীরা যে কোন মূল্যে তা প্রতিহত করবে।  বক্তারা বলেন, ইসলামী ঐতিহ্যবাহী এধারা বাংলাদেশের মানুষকে আল্লাহভীরু, ধর্মিক ও মানবিক বানায়। দেশে চাড়ে চার লাখ ইমাম-মুয়াজ্জিন লাখ লাখ হাফেজে কুরআন, আলেম, মুফতী-মুহাদ্দীস, পীর-মাশায়েখ ও ইসলাম প্রচারক এসকল মাদরাসা থেকে তৈরী হয়। তারা দেশ-বিদেশে বিভিন্ন সেক্টরে সততা ও আমানদারীতার সাথে খেদমত আঞ্জাম দিয়ে সুনাম অর্জন করছেন। কওমী মাদরাসা শিক্ষায় মানুষকে সুশৃঙ্খল আইনমান্যকারী, ধার্মিক, সৎচরিত্রবান ও আর্দশ নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলে। কওমী শিক্ষায় শিক্ষিতরা দেশের কোথাও চুরি-ডাকাতি, সন্ত্রাস-নৈরাজ্য, হত্যা, সুদ-ঘুষ, দুর্নীতি, মদ, ফেনসিডেল, ইয়াবাসহ কোন ধরনের অপরাধের সাথে জড়িত আছে তার কোন প্রমাণ নেই। জনগণের সাহায্য-সহযোগিতা নিয়ে পরিচালিত কওমী মাদরাসায় কখনো বন্দুক যুদ্ধ, সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের কারণে কোন প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়েছে তারও কোন প্রমাণ নেই। যা সরকারের নিয়ন্ত্রিত শিক্ষায় ব্যবস্থায় বিরল। অতএব আর্দশ মানুষ গড়ার কারখানা কওমী মাদরাসার বিরুদ্ধে কোন ষড়যন্ত্র হলে দেশ প্রেমিক ইসলামী জনতা প্রতিহত করবে ইনশাল্লাহ।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT