টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সবচেয়ে বড় ভুল : ডা. জাফরুল্লাহ মাদক কারবারি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত সাংবাদিক আব্দুর রহমানের উদ্দেশ্যে কিছু কথা! ভারী বৃষ্টির সতর্কতা, ভূমিধসের শঙ্কা মোট জনসংখ্যার চেয়েও ১ কোটি বেশি জন্ম নিবন্ধন! বাড়তি নিবন্ধনকারীরা কারা?  বাহারছড়া শামলাপুর নয়াপাড়া গ্রামের “হাইসাওয়া” প্রকল্পের মাধ্যমে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ ও বার্তা প্রদান প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর উদ্বোধন উপলক্ষে টেকনাফে ইউএনও’র প্রেস ব্রিফ্রিং টেকনাফের ফাহাদ অস্ট্রেলিয়ায় গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী সম্পন্ন করেছে নিখোঁজের ৮ দিন পর বাসায় ফিরলেন ত্ব-হা মিয়ানমারে পিডিএফ-সেনাবাহিনী ব্যাপক সংঘর্ষ ২শ’ বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস বিল গেটসের মেয়ের জামাই কে এই মুসলিম তরুণ নাসের

রাজঘাটে পাহাড় কর্তন ও বন দখলকারীদের বিরুদ্ধে মামলা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ২৫ আগস্ট, ২০১৩
  • ১২৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

Image-Eidgah-Hমোঃ রেজাউল করিম, ঈদগাঁও,###ফুলছড়ি রেঞ্জের রাজঘাট বিটে প্রভাবশালী কর্তৃক দখলীয় জমিতে লাল পতাকা উড়ানো হয়েছে। পাহাড় কর্তন ও ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে বন বিভাগ। জানা যায়, স্থানীয় কতিপয় ভূমিদস্যু রাজঘাট বিটের পাহাড় কর্তন ও জমি দখল করে চাষাবাদ করতে থাকে। এতে বন উজাড় ও পরিবেশের মারাত্মক বিপর্যয় শুরু হয়। সরেজমিন পরিদর্শনে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ইসলামাবাদ গজালিয়া মৌজার প্রায় ৪ একর বন জমি দখল করে আমন চাষ সহ অন্যান্য চাষাবাদ শুরু করে ভূমিদস্যুরা। এর জন্য তারা ১৯৯৮ সালে সৃজিত বাগানের প্রায় ২ হাজার আকাশ মণি গাছও কেটে ফেলে। তাছাড়া উক্ত জমিকে পতিত জমিতে রূপান্তরিত করে। ২০০৯ সালে উক্ত জমি মধ্যম ভোমরিয়াঘোনার আব্দুল আজিজের পুত্র মো. আনোয়ার হোসাইনের নামে নামজারি খতিয়ান সৃজিত হয়েছে। পাহাড় কাটা ও জমি দখলের কারণে  বন বিভাগের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। স্থানীয় কৃষকরাও পড়েছেন বিপাকে। এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বিভিন্ন সময় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হলেও দীর্ঘদিন তারা সময়োচিত পদক্ষেপ নেয়া থেকে বিরত থাকে। এদিকে বন জমি দখল ও পাহাড় কাটার সচিত্র রিপোর্ট স্থানীয় পত্র-পত্রিকায় ফলাও করে প্রচারের পর সংশ্লিষ্ট বন কর্তৃপক্ষের টনক নড়ে। তারা দখলকৃত বন জমিতে লাল পতাকা উত্তোলন করেছে। এছাড়া পাহাড় কর্তনে জড়িত ৪ ব্যক্তির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছে। রাজঘাট বিট কর্মকর্তা মোজাম্মেল হকের আবেদনের ভিত্তিতে ফুলছড়ি রেঞ্জ কর্তকর্মা ভূপেষ মুখার্জি কয়েক দিন আগে কক্সবাজারের জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উক্ত মামলা দায়ের করেন। মামলায় সুনির্দিষ্ট ৪ জনকে আসামী দেখানো হয়েছে। তবে স্থানীয় বন কর্তৃপক্ষ আসামীদের নাম ধাম প্রকাশে অপারগতা প্রকাশ করেন।

পূর্ব গোমাতলীতে ২’শ একর জমির আমন চাষ অনিশ্চত

মোঃ রেজাউল করিম, ঈদগাঁও, কক্সবাজার মোবাইল- ০১৫৫৮-৪৩৪২২৮, ০১৮৩৫-৪১০১২৫। কক্সবাজার সদরের পোকখালী ইউনিয়নের পূর্ব গোমাতলীতে কতিপয় প্রভাবশালীর কারণে ২’শ একর জমিতে আমন চাষ অনিশ্চত হয়ে উঠেছে। পার্শ্ববর্তী অন্য এলাকার ধান্য জমিতে এক মাস আগেই আমন রোপন শুরু হলেও উক্ত এলাকার জমি এখনো অনাবাদী পড়ে রয়েছে। পূর্ব ও পশ্চিম গোমাতলীর মধ্যবর্তী বাইক্কাছড়া বিলের পার্শ্ববর্তী ৩ ঘেরের মালিক চিংড়ি চাষের জন্য ঘেরে অতিরিক্ত পরিমাণ পানি আটক রাখায় বিশালায়াতনের ধান্য জমির এ বিল এখনো ৩/৪ হাত পানিতে ডুবে আছে। ফলে এসব জমিতে অনিশ্চত হয়ে উঠেছে চাষাবাদ। এ ব্যাপারে অনেক অনুরোধ ও কাকুতি মিনতী করা স্বত্বেও চিংড়ি প্রকল্প ইজারাদার স্থানীয় এক ব্যক্তির নেতৃত্বে প্রভাবশালীরা এ অপকর্ম অব্যাহত রেখেছে। ভূমি মালিক মোস্তাফিজ, রমজান আলী ও হান্নন মিয়া সহ অনেকেই জানান, জমি অনাবাদী থাকায় তাদের ৪/৫ লাখ টাকার ক্ষতি হতে পারে। স্থানীয় মেম্বার আব্দুল্লাহ বিন সাঈদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন।

পোকখালী-চৌফলদন্ডীতে পূর্ণিমার জোয়ারে ফের প্লাবিত ৫/৬টি চিংড়ি প্রকল্প

মোঃ রেজাউল করিম, ঈদগাঁও, কক্সবাজার মোবাইল- ০১৫৫৮-৪৩৪২২৮, ০১৮৩৫-৪১০১২৫। কক্সবাজার সদরের উপকূলীয় এলাকায় পূর্ণিমা তিথির প্রবল জোয়ারের তোড়ে আবারো নতুন ভাবে প্লাবিত হয়েছে ৫/৬টি চিংড়ি প্রকল্প। উপকূলীয় ইউনিয়ন পোকখালী ও চৌফলদন্ডীতে শনিবার দুপুরে প্রবল জোয়ারের পানিতে বেড়ীবাঁধ বিধ্বস্ত হওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এতে আলম চেয়ারম্যানের ঘোনা, নুরুচ্ছবিহ চেয়ারম্যানের ঘোনা, ফরিদ মৌলভীর ঘোনা ও বাহির ঘোনা সহ ৫/৬টি চিংড়ি প্রকল্পের আহরণযোগ্য বিপুল পরিমাণ চিংড়ি ও অন্য মাছ সাগরে ভেসে যায়। এতে কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে দাবী ঘের মালিকদের। সে সাথে চৌফলদন্ডী রাখাইন সম্প্রদায়ের শ্বশ্বানও পানির নিচে ডুবে গেছে বলে জানান উত্তর পাড়ার আছুমহ রাখাইন। পোকখালী থেকে চৌফলদন্ডী ব্রীজ পর্যন্ত অন্তত ৭/৮ পয়েন্টে বেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে গিয়ে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। কক্সবাজার পানি উন্নয়ন বোর্ডের এসও নারায়ণ পাল জানান, ভাঙ্গন স্থল পরিদর্শন করে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। তবে অর্থ বরাদ্ধ না থাকায় আপাতত মেরামত করা সম্ভব হবেনা বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ছবি আছে

ঈদগাঁওতে বিপুল ভেজাল পানীয়ের বোতলসহ আটক ১

মোঃ রেজাউল করিম, ঈদগাঁও, কক্সবাজার মোবাইল- ০১৫৫৮-৪৩৪২২৮, ০১৮৩৫-৪১০১২৫। কক্সবাজার সদর উপজেলার ঈদগাঁও তদন্ত কেন্দ্র পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ভেজাল পানীয় ভর্তি বোতল সহ এক ব্যক্তিকে আটক করেছে। ২৩ আগষ্ট শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে ঈদগাঁও বংকিম বাজার এলাকায় এ অভিযান চলানো হয়। পুলিশ সূত্রে জানা যায়, সোর্সের মাধ্যমে পাওয়া সংবাদের ভিত্তিতে তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই মনজুর কাদের ভূঁইয়ার নেতৃত্বে এসআই হাছান উদ্দিন, নাছির উদ্দিনসহ পুলিশের একটি দল বাজারের উক্ত এলাকার ইসলাম ভবনের একটি কক্ষে মৌজুদ করে রাখা ভেজাল পানীয় গুদামে হানা দিয়ে ২৫৯২ পিচ ভেজাল পানীয় ভর্তি বোতল উদ্ধার ও জড়িত রাসেল নামের এক যুবককে আটক করে। আটক যুবক ইসলামাবাদ হিন্দু পাড়ার গ্রামরে পূর্ণ রঞ্জন দে’র পুত্র। ধৃতের দাবী উক্ত ভেজাল পানীয় গোদামের মালিক হচ্ছে প্রাণ কোম্পানীর এসআর জালালাবাদ ইউনিয়নের লরাবাগ এলাকার জনৈক ওসমান। এ ঘটনায় পুলিশ জড়িতের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন। এদিকে বিগত বছর দেড়েক পূর্বে পার্শ্ববর্তী ভারুয়াখালী ইউনিয়নের পাহাড়ি এক বসতঘরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ভেজাল পানীয় সহ তৈরীর সরঞ্জাম উদ্ধার করলেও রহস্যজনক কারণে তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় চক্রটি নতুন পন্থায় এ ভেজাল পন্য তৈরী অব্যাহত রেখেছে বলে জানান সচেতন এলাকাবাসী। তারা জন ক্ষতিকারক এ চক্রের বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT