টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :

রাঙ্গামাটিতে সেনা কর্মকর্তা লাঞ্ছনার ঘটনায় ৪ যুবক জেলে

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ২৬ নভেম্বর, ২০১২
  • ২০৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে


মোঃ শহিদুল ইসলাম, রাঙামাটি /

 
তিন বাঙ্গালি সহকর্মীর সাথে রাঙ্গামাটির রাজবন বিহারে বেড়াতে যাওয়ার অপরাধে এক পাহাড়ি নারী সেনা কর্মকর্তাকে লাঞ্ছিত করেছে কিছু উচ্ছৃঙ্খল পাহাড়ি যুবক। শনিবার সন্ধ্যার দিকে রাঙামাটি শহরের রাজবনবিহার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার দায়ে পুলিশ চার যুবককে আটক করেছে। আটক যুবকরা পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের (পিসিপি) কর্মী বলে পুলিশ জানালেও পিসিপি নেতারা জানিয়েছেন, তারা তাদের  দলের কেউ নয়। আটক যুবকরা হলো মুক্তবীর চাকমা, শ্যামল জ্যোতি চাকমা, সুপ্রিয় চাকমা ও জীতন চাকমা।
আটকদের বিরুদ্ধে রোববার রাঙামাটি কোতয়ালী থানার এসআই জিল্লুর রহমান বাদি হয়ে বাংলাদেশ দন্ডবিধি ১৪৩, ৩২৩, ৩৭৯, ৫০৬ ধারায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ০৪।
মামলার বাদি এসআই জিল্লুর রহমান জানান, সরকারি কর্মকর্তাদের মারধর করার দায়ে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
এদিকে রোববার আসামীদের আদালতে তুলে পুলিশের পক্ষ থেকে রিমান্ডের আবেদন জানানো হলে আদালত আবেদন না মঞ্জুর করে আসামীদের জেল হাজতে প্রেরণ করেন।
পুলিশ এবং সেনাবাহিনী সূত্র জানিয়েছে, শনিবার সন্ধ্যার দিকে খাগড়াছড়ি জেলার বাসিন্দা লেফট্যানেন্ট পদ মর্যাদায় এক পাহাড়ি নারী সেনাকর্মকর্তা তার তিনসহকর্মীসহ শহরের রাজ বনবিহার এলাকায় বেড়াতে যান। এ সময় রাজ বনবিহার এলাকায় কিছু উচ্ছৃঙ্খল পাহাড়ি যুবক নারী সেনাকর্মকর্তাকে বাঙালিদের সাথে কেনো ঘোরাফেরা করছে এই জন্য কৈফিয়ত চাইলে সে নিজের পরিচয় দেয়। পরিচয় দেওয়ার পরও পাহাড়ি যুবকরা ওই নারী সেনা কর্মকর্তাকে চরথাপ্পড়, লাথি, কিল, ঘুষি মারে। এই সময় তার সাথে থাকা অন্য আরেক বাঙালি নারী সেনাকর্মকর্তা ও দুই পুরুষ কর্মকর্তা এগিয়ে এলে তাদের সাথেও খারাপ ব্যবহার করে ওই যুবকরা।
পরে খবর পেয়ে সেনাবাহিনী ও পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তাদের উদ্ধার করে। এ সময় ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে চার পাহাড়ি যুবককে আটক করা হয়।
পুলিশ সুপার মাসুদ উল হাসান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, আটক যুবকরা পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কর্মী বলে জেনেছি। তিনি বলেন, পরিচয় দেওয়ার পরও একজন সেনা কর্মকর্তাকে মারধর করার ঘটনা দুঃখজনক। এটা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। আটকদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ নেতা রনো চাকমা জানিয়েছেন, ঘটনার সাথে জড়িতরা আমাদের দলের কোনো সদস্য নয়। পিসিপি এই বিষয়টি সম্পর্কে অবহিত নয় বলেও দাবি করেন তিনি।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

One response to “রাঙ্গামাটিতে সেনা কর্মকর্তা লাঞ্ছনার ঘটনায় ৪ যুবক জেলে”

  1. allahar bandah says:

    oy beadob der jano sammok 80 ta kare bet dewa hawk!!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT