টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

যতই জ্বালাও পোড়াও করেন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এই বাংলায় হবেই….প্রধানমন্ত্রী

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০১২
  • ১৫৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
(টেকনাফ নিউজ ডটকম)-প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যতই জ্বালাও পোড়াও আর মানুষ খুন করেন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাংলার মাটিতে হবেই। যুদ্ধাপরাধীরা মুক্তিযুদ্ধের সময় গণহত্যা করেছে। এদেশের মা-বোনের ইজ্জত নিয়েছে। সংখ্যালঘুদের বাড়িঘর জ্বালিয়ে পুড়িয়ে লুটপাট করেছে। তাদের বিচার হবেই। যেভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকারীদের বিচার করা হয়েছে সেভাবেই যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হবেই ইনশাল্লাহ। খালেদা জিয়াকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, জাতির পিতার খুনীদের বিচার বাধাগ্রস্ত করতে চেয়েছিলেন পারেন নি। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারও বাধাগ্রস্ত করতে পারবেন না। তিনি আরও বলেন, লুটপাট, দুর্নীতি, সন্ত্রাস, খুন এই হলো বিএনপির তিন গুণ। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে মানুষ শান্তিতে থাকে আর বিএনপি ক্ষমতায় থাকলে মানুষ অশান্তিতে থাকে। তারা ক্ষমতায় গেলে অত্যাচার, নির্যাতন, হত্যা, লুটপাট আর টাকা পাচারে ব্যস্ত থাকে। তারা সার চাওয়ার অপরাধে কৃষককে গুলি করে হত্যা করে। তারা টাঙ্গাইলের এ অঞ্চলের বহু নেতা কর্মীকে হত্যা করেছে। এমন কি ড. আব্দুর রাজ্জাকের ওপরও হামলা করেছিল। আমাদের সরকার শিক্ষার প্রতি সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছে। বছরের প্রথমে শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিতে পেরেছি। এবারও ২৭ কোটি বই বিনামূল্যে জানুয়ারি মাসের প্রথমেই ছেলে-মেয়েদের হাতে তুলে দেয়া হবে ইনশাল্লাহ। তিনি আরও বলেন, আমরা ইতোমধ্যে সমুদ্র বিজয় করেছি। বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উন্নতি করেছি। শেখ হাসিনা আরও বলেন, আমরা দেশে-বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করেছি। যাতে যুব সমাজ বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তি পায়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত ধনবাড়ী নওয়াব ইনস্টিটিউশন মাঠে এক বিশাল জনসমাবেশে এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার এক মেগাওয়াট বিদ্যুতও উৎপাদন করে যায় নি। আমরা ক্ষমতায় এসে বিদ্যুত উৎপাদন করে সাড়ে ছয় হাজার মেগাওয়াটে উন্নীত করেছি। তিনি বলেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার মনে বড় জ্বালা। উনিতো এখন লুটপাটের কালো টাকা বানাতে পারছেন না। তারা টাকা চুরি করে বিদেশে পাচার করেছে, ইতোমধ্যে তাদের সেই পাচার করা টাকা বিদেশ থেকে ফেরত এনেছি। এ টাকা দিয়ে দেশের উন্নয়ন ও মানুষের কল্যাণে কাজ করা হবে। কথায় বলে চোরের মার বড় গলা। আমরা ক্ষমতায় এসে মানুষের নিরাপত্তা, শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করেছি। আমাদের লক্ষ্য ছেলে-মেয়েরা যাতে বিজ্ঞানভিত্তিক শিক্ষা অর্জন করতে পারে। তথ্যপ্রযুক্তির প্রসারের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তিনি আরও বলেন, নৌকায় ভোট দিলে দেশে শান্তি ফিরে আসে আর বিএনপিকে ভোট দিলে অশান্তি চলে আসে। তিনি নির্বাচন উপলক্ষে বলেন, আমরা ভোট চুরিতে বিশ্বাসী নই। আমাদের সময়ে যত নির্বাচন হয়েছে সব নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে।
ধনবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ বদিউল আলম মন্জুর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন খাদ্যমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ, এলজিআরডি প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ ও সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ফজলুর রহমান ফারুক, ধনবাড়ী পৌর মেয়র খন্দকার মঞ্জুরুল ইসলাম তপন প্রমূখ।
প্রধানমন্ত্রী এর আগে ধনবাড়ী মডেল থানা ভবন ও ৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন এবং ধনবাড়ী উপজেলা আধুনিক কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধন করেন।vv

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT