টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

মিয়ানমারে পাচার হচ্ছে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী আসছে ইয়াবা ও মাদক

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৬ জুলাই, ২০১৩
  • ১০৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

401776_1015আবদুল্লাহ মনির, টেকনাফ: মাহে রমজান ও পবিত্র ঈদকে সামনে রেখে মিয়ানমারে পাচার হচ্ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় ও খাদ্য সামগ্রী। এতে স্থানীয় বাজারে জিনিসপত্রের মূল্য বৃদ্ধির পাশাপাশি চরম সংকট দেখা দিচ্ছে। বেশ কয়েক দিনে টেকনাফ উপজেলার সীমান্তের দায়িত্বে থাকা বিজিবি জওয়ানরা মিয়ানমারে পাচারকালে প্রায় ৫ লক্ষ টাকা নিত্যপ্রয়োজনীয় ও খাদ্য সামগ্রী জব্দ করে। এর বিপরীতে মিয়ানমার থেকে চোরাই পথে মরণ নেশা ইয়াব, মদ ও বিয়ার। এরপরও সীমান্ত রক্ষীদের ফাঁিক দিয়ে থেমে নেই পাচার কার্যক্রম। সূত্র জানায়, মাহে রমজান শুরু হওয়ার পরও পবিত্র ঈদকে সামনে রেখে দু’দেশের চোরাকারবারীরা বেপোরোয়া ভাবে প্রতিনিয়ত মিয়ানমারে পাচার করছে পেয়াঁজ, রশুন, চিনি, সেমাই, গুড়া দুধ, আটা-ময়দা, মুড়ি, আলু, মটর, খেজুঁর ও আমসহ বিভিন্ন প্রকার সব্জি। এতে স্থানীয় বাজারগুলোতে খাদ্য সংকটের পাশাপাশি অতিরিক্ত মূল্য আদায় করছে ব্যবসায়ীরা। সীমান্ত রক্ষী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) জওয়ানরা প্রতিনিয়ত সজাগ থেকে পাচার রোধ করছে। এরপর থেমে নেই পাচার কার্যক্রম। প্রতিনিয়ত সীমান্ত রক্ষীদের ফাঁিক দিয়ে কোন না ঘাট দিয়ে পাচার কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। এর বিপরীতে মিয়ানমারে নিয়ে আসছে বিপুল পরিমাণ ইয়াবা, মদ ও বিয়ারসহ নানান মাদকদ্রব্য। এছাড়া ঈদকে সামনে রেখে অবৈধ পথে টেকনাফে মিয়ানমার নাগরিকের আসা-যাওয়াও বেড়ে গেছে। প্রতিদিন টেকনাফ উপজেলার কয়েকটি সীমান্ত এলাকা দিয়ে আসছে কয়েক শত মিয়ানমার নাগরিক। প্রতিদিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত এসব দালালরা অবৈধ ভাবে বিভিন্ন সীমান্ত এলাকা দিয়ে মিয়ানমার নাগরিক আনা-নেওয়ার কাজ করে । যেসব ঘাট দিয়ে পাচার কার্যক্রম চলছে, টেকনাফ, হোয়াইক্যং এর উনচিপ্রাং ঘাট, হ্নীলা ইউনিয়নের ওয়াব্রাং ঘাট, চৌধুরী পাড়া ঘাট, জাদিমুড়া-ফেরানপুর ঘাট, জাদিমুড়া-রাইম্যবিল ঘাট, নয়াপাড়া গৌজিবিল ঘাট ও নয়াপাড়া মাঙ্গালা ঘাট, টেকনাফ পৌরসভার নাইট্যংপাড়া ঘাট, জালিয়া পাড়া ঘাট, সদর ইউনিয়নের নাজির পাড়া ঘাট, সাবরাং শাহপরীর দ্বীপ জালিয়া পাড়া ঘাট, জেটি ঘাট, মিস্ত্রি পাড়া ঘাটসহ অঘোষিত অনেক ঘাট। এদিকে ঈদকে সামনে রেখে পুরো উপজেলার ইয়াবার মজুদদাররা মিয়ানমারে ইয়াবার মূল্য কমে যাওয়াই ইয়াবা গুদামজাত করণে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। কেন না ঈদকে সামনে রেখে মিয়ানমার যাতায়াত কয়েকদিন বন্ধ থাকার কারণে আগে থেকে মাদক ব্যবসায়ীরা মজুদ করে রাখছে। এসব সীমান্তের দায়িত্বে থাকা বিজিবি ও কোস্টগার্ড সদস্যদের সজাগ থাকলে অবৈধ পাচার রোধ করা কিছুটা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করছেন স্থানীয়রা। এ ব্যাপারে টেকনাফ ৪২ ব্যাটলিয়ন বিজিবির অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল জাহিদ হাসান বলেন, রোজা শুরুর পর থেকে মিয়ানমারে নিত্যপ্রয়োজনীয় ও খাদ্য সামগ্রী পাচার প্রবনতা একটু বেড়েছে। বিজিবি জওয়ানরা সক্রিয় থেকে বিপুল পরিমাণ খাদ্যসামগ্রী জব্দ করেছে এবং মাদক পাচার রোধে বিজিবির টহল জোরদার করা হয়েছে। – See more at: http://dainandincox.com/archives/28062#sthash.jROlF5XA.dpuf

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT