মাথার চুল বেচে’ শিশুর দুধ কিনলেন মা

প্রকাশ: ২২ এপ্রিল, ২০২০ ১২:১১ : পূর্বাহ্ণ

খিদার যন্ত্রণায় শিশুদের চিৎকার করে কান্না সইতে না পেরে মাথার চুল বিক্রি করে দুধ কিনে এনেছেন বলে জানিয়েছেন দরিদ্র এক মা।

সাভার পৌর এলাকার ব্যাংক কলোনি মহল্লার নান্নু মিয়ার ভাড়া দেওয়া টিনশেড ঘরে ভাড়া থাকেন দুই সন্তানের জননী সাথী বেগম এ ঘটনা জানান।

মহামারীর আকারে হানা দেওয়া নতুন করোনাভাইরাস পরিস্থিতির অবনতিতে রাজধানী ঢাকার পাশের এলাকা সাভারেও চলাচলে কড়াকড়ি নজর প্রশাসনের। এতে বন্ধ হয়ে গেছে ‘দিন আনে দিন খায়’ মানুষের সামান্য রোজগারের পথটিও।

সরকার সারা দেশের দুস্থদের মাঝে ত্রাণ বিলি করলেও, তবে সব অসহায়ের ঘরে তা পৌঁছেনি  বলে খবর আছে। তেমন এক পরিবারের সন্ধান পেয়েছে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম।

মঙ্গলবার সরেজমিনে দেখা যায়, ওই ব্যাংক কলোনিতে সাথীদের ভাড়া করা ছোট্ট টিনের ঘরে কাঁথা বিছানো একটা চৌকি পাতা। মেঝেতে ২/৩টা পাতিল। ঘরের এক কোণে টানানো দড়িতে ঝুলছে ক-খানা মিলন জামা-কাপড়। ঘরে একটা বিজলি বাতি থাকলেও নেই কোনো ফ্যান। সে সময় তার স্বামী ছিলেন না ঘরে। তার আড়াই বছরের ছেলেটি চৌকিতে বসা।

আর এক বছর বয়সী বাচ্চাকে কোলে নিয়ে কথা বলেন সাথী। তিনি জানান, গত শনি-রোববার তাদের ঘরে রান্নার করার মতো কিছুই ছিল না। ত্রাণের সন্ধানে অনেকের কাছে গিয়েওছেন, তবে মেলেনি কোনো সহায়তা।অভাবের তাড়ায় মাস চারেক আগে ময়মনসিংহের এক গ্রাম থেকে প্রথমে রাজধানীর মিরপুরে এসে ওঠে এ পরিবারটি। দেড় মাস আগে সেখান থেকে ব্যাংককলোনির এ টিশেড বাড়িতে এসে ওঠেন তারা।

সাথী বেগমের স্বামী মানিক মাটি কাটার কাজ করতেন। পরে রিকশা চালাতে শুরু করেছেন। সামাজিক দূরত্ব রক্ষায় সব বন্ধ থাকায় তার রিকশাচালানো বন্ধ।

এতে দুটি শিশু নিয়ে রোজগারহীন এ পরিবার বিপদে পড়েছে। এ মহল্লায় নতুন আসায় কারো সাথেই তাদের পরিচয় হয়নি। ফলে ছিটেফোঁটা ত্রাণও জুটছে তাদের বলে জানান সাথী।


সর্বশেষ সংবাদ