হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

জাতীয়প্রচ্ছদ

মগবাজারে বাসচাপায় বাইক আরোহী নিহত, বাসে আগুন

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক::
রাজধানীর মগবাজার ওয়্যারলেস গেটের পাশে ‘এসপি গোল্ডেন লাইন’ নামে একটি মিনিবাসের চাপায় সাইফুল ইসলাম রানা (২৩) নামের এক যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় স্থানীয়রা বাসটিতে আগুন দেয়।
শুক্রবার দুপুর দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নিহত রানা একটি বেসরকারি ক্লিনিকের নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
দুর্ঘটনার পরপরই উত্তেজিত জনতা বাসটিতে (ঢাকা মেট্রো ঝ ১৪-০২১৪) আগুন ধরিয়ে দেয়। রানার পরিবার জানান, দ্রুতগতির বাসটি রানাকে চাপা দেয়। গুরুতর অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যায়। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক সোয়া ২টার দিকে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
রানা বরিশাল জেলার বানারিপাড়া তেতলা গ্রামের শাহজাহান আলীর ছেলে। দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে তিন সবার বড় ছিলেন। খিলগাঁও গোড়ান হাড়ভাঙ্গা মোড় এলাকায় তিনি বসবাস করতেন।
দুর্ঘটনার পর তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা রমনা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মহিবুল্লাহ জানান, মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার হয়ে মগবাজার ওয়্যারলেস গেটের ঢাল দিয়ে নেমে ‘এসপি গোল্ডেন লাইন’ পরিবহনের মিনিবাসটি যাচ্ছিল মালিবাগের দিকে।
ওয়্যারলেস গেটের ঢাল দিয়ে নামার পরই বাসটি মোটরসাইকেলের পেছনে ধাক্কা দেয়। এতে চালক রানা গুরুতর আহত হন। সঙ্গে সঙ্গে তাকে উদ্ধার করে পথচারীরা পাশের সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
এসআই মহিবুল্লাহ আরও জানান, দুর্ঘটনার পরপরই স্থানীয়রা ঘাতক বাসচালককে আটক করে। তাকে পিটুনি দেয়ার পর পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
এদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে আসেন নিহতের বাবা, দুই বোন সাথী ও যুথিসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা। তারা জানান, মগবাজার কমিউনিটি ক্লিনিকের নার্স হিসেবে চাকরি করতেন রানা। মোটরসাইকেল নিয়ে ক্লিনিকে যাচ্ছিলেন তিনি।
এদিকে, ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের দায়িত্বরত কর্মকর্তা তানারুল ইসলাম জাগো নিউজকে জানান, মগবাজার ওয়্যারলেস গেট সংলগ্ন একটি বাসে অগ্নিকাণ্ডের খবর আসে শুক্রবার দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে। আগুনের খবর পেয়ে তিনটি ইউনিট সেখানে পাঠানো হয়। পরে তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.