হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

পর্যটনপ্রচ্ছদ

বিবিসির দৃষ্টিতে বাংলাদেশের চমৎকার ৭টি দর্শনীয় স্থানে টেকনাফ গেম রিজার্ভ

বিবিসির দৃষ্টিতে বাংলাদেশের চমৎকার ৭টি দর্শনীয় স্থান টেকনাফ গেম রিজার্ভ
বিবিসির দৃষ্টিতে বাংলাদেশের চমৎকার ৭টি দর্শনীয় স্থান টেকনাফ গেম রিজার্ভ

টেকনাফনিউজ ডেস্ক:: অপরূপ এ বাংলাদেশে পাহাড়, নদী, সমুদ্র, ঐতিহাসিক স্থানসহ নানা দর্শনীয় স্থান রয়েছে আমাদের দেশে। আর বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারতো সারাবিশ্বের পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয়। সেইসঙ্গে বিশ্বের বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবন। গড়ে উঠছে নতুন নতুন আরো অনেক পর্যটন কেন্দ্র।

বহুল পরিচিত এই দর্শনীয় স্থানগুলোর বাইরেও রয়েছে অনেক দেখার মতো জায়গা। বিবিসি ট্রাভেল ফিচার প্রকাশ করেছে এমনই স্বল্প পরিচিত কিন্তু চমৎকার ৭টি দর্শনীয় স্থান নিয়ে। বিবিসির ভাষ্য, স্বল্প পরিচিত হলেও এসব স্থানে গিয়ে পর্যটকদের নয়ন জুড়াবে। এ ৭টি দর্শনীয় স্থান সম্পর্কে জেনে নেয়া যাক।

চীনা মাটির পাহাড়
নেত্রকোনা জেলার দূর্গাপুর উপজেলার বিরিশিরিতে রয়েছে মনোমুগ্ধকর চীনা মাটির পাহাড়। চীনা মাটি মূলত সিরামিকসের কাঁচামাল। পাহাড়ের পাশ দিয়ে বয়ে গেছে সোমেশ্বরী নদী। নদীর নীলাভ পানিতে চীনা মাটির সাদা রঙ এক মোহনীয় রুপের সৃষ্টি করে। সাদা চীনা মাটি ছাড়াও কোথাও কোথাও লালচে ও নীলাভ চীনা মাটি দেখা যায়। অনুরূপভাবে এসব অংশে নদীর পানিও লালচে ও নীলাভ, যা পর্যটকদের বাড়তি আকর্ষণ যোগায়।

বিবিসি এ দর্শনীয় স্থানটিকে স্বল্প পরিচিত বললেও এখন আর তা নেই। এখন প্রতিদিন বহু পর্যটক পা রাখেন চীনা মাটির পাহাড়ে।

মুক্তাগাছা রাজবাড়ী
মুক্তাগাছার রাজবাড়ী ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছা উপজেলায় অবস্থিত। ময়মনসিংহ থেকে ১৬ কিলোমিটার পশ্চিমে মুক্তাগাছার রাজবাড়ীর অবস্থান। মুক্তাগাছা রাজবাড়ীটির প্রবেশমুখে রয়েছে বিশাল ফটক। জীর্ণপ্রায় বাড়িটির সৌন্দর্যে চোখ জুড়িয়ে যায়। প্রায় ১০০ একর জায়গার ওপর নির্মিত এই রাজবাড়ীটি প্রাচীন স্থাপনাশৈলীর এক অনন্য নিদর্শন বহন করে আসছে। রাজবাড়ীর প্রবেশমুখের কাছেই দৃষ্টিনন্দন রাজ-রাজেশ্বরী মন্দির। প্রবেশদ্বারের বিশাল ফটকে অসাধারণ সব কারুকার্য। লোহার পাত আর কাঠের পাটাতন দিয়ে করা চমৎকার ছাদ। তাছাড়া লোহার পাতের নানা রকম নকশা এ বাড়ির চারপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে।

রাজবাড়ির ভিতরে ঘূর্ণায়মান একটি রঙ্গমঞ্চ, রাজকোষাগার, টিন আর কাঠের তৈরি অসাধারণ এক-দোতলা রাজপ্রাসাদ, রাণীর অন্দরমহল। তাছাড়া আরও রয়েছে লাইব্রেরি, দরবার হল, কাচারিঘর, লক্ষ্মীপূজা আর দুর্গাপূজার ঘর। আর পেছনে রয়েছে একটি গোপন সুড়ঙ্গ।

মহেশখালী দ্বীপ
বাংলাদেশের একমাত্র পাহাড়ি দ্বীপ মহেশখালী। এখানে দেখার মূল আকর্ষণ বিখ্যাত আদিনাথ মন্দির। এছাড়া রয়েছে মনোরম একটি বৌদ্ধ মন্দির। এ দ্বীপের দক্ষিণে রয়েছে বিস্তীর্ণ সাগর আর পশ্চিমে বিশাল বিশাল পাহাড়। দ্বীপটি লবন ও পান চাষের জন্য বিখ্যাত। শীতের সময়ে পরিযায়ী পাখি দেখা যায়।

গোয়ালদির মসজিদ
গোয়ালদির মসজিদ নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে অবস্থিত। একটি প্রাচীন মসজিদসমূহের একটি। সুলতান আলাউদ্দীন হোসেন শাহের আমলে মোল্লা হিজাবর খান ১৫১৯ সালে এই মসজিদটি নির্মাণ করেন। মসজিদটি এক গম্বুজ বিশিষ্ট। মসজিদটির পশ্চিম দেওয়ালে ৩টি মেহরাব রয়েছে। এ মসজিদের একটু পাশে পানাম নগর একটি নামকরা দর্শনীয় স্থান।

টেকনাফ গেম রিজার্ভ
কক্সবাজারের টেকনাফে অবস্থিত গেম রিজার্ভটি বাংলাদেশের একমাত্র হাতি অভয়াশ্রম কেন্দ্র। ১৯৮৩ সালে প্রতিষ্ঠিত এ গেম রিজার্ভের আয়তন ১১,৬১৫ হেক্টর। বন ছাড়াও এ গেম রিজার্ভে রয়েছে কুদুম গুহা, নাইটং পাহাড়, কুঠি পাহাড়সহ প্রভৃতি আকর্ষণীয় স্থান। প্রাকৃতিক উপাদানের মধ্যে আছে ফুল, ফল, বাহারি গাছ। সড়ক পথে সহজ যোগাযোগের কারণে পর্যটকদের কাছে এটি একটি আকর্ষনীয় ভ্রমণ স্থান।

ভাসমান ধানের বাজার
বরিশাল জেলার বানারীপাড়ার সন্ধ্যা নদীতে প্রতি শনি ও মঙ্গলবার বসে বিশাল ধান-চালের ভাসমান হাট। খুব সকাল থেকেই কয়েকশ নৌকা করে ব্যবসায়ী ও চাষিরা ধান-চাল নিয়ে আসেন বিক্রির জন্য। অনেকে আসেন খালি নৌকা নিয়ে চাল ক্রয়ের জন্য। পুরো প্রক্রিয়াটাই চলে নদীতে বসে। ধানের বাজার ছাড়াও রয়েছে ভাসমান সবজির হাট।

সাঙ্গু নদী
সাঙ্গু নদী স্থানীয়ভাবে শঙ্খ নদী নামে পরিচিত। বাংলাদেশের অভ্যন্তরে যে কয়টি নদীর উৎপত্তি তার মধ্যে সাঙ্গু নদী অন্যতম। মিয়ানমার সীমান্তবর্তী বাংলাদেশের বান্দরবান জেলার মদক এলাকার পাহাড়ে এ নদীর জন্ম। এ জেলার জীবন–জীবিকার সাথে সাঙ্গু নদী ওতপ্রোতভাবে জড়িত। বান্দরবানের পাহাড়ি জনপদের যোগাযোগের ক্ষেত্রে এ নদী একটি অন্যতম মাধ্যম। বান্দরবান শহরের পূর্বে পাশে পাহাড়ী ঢালে বয়ে চলা সাঙ্গু নীদ দেখতে দারুন দৃষ্টি নন্দন।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.