হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

কক্সবাজারপ্রচ্ছদরোহিঙ্গা

বিদেশী সাংবাদিকের উপর হামলা, ১১ রোহিঙ্গা গ্রেপ্তার

টেকনাফ নিউজ ডেস্ক ::

কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবিরে ৩ বিদেশী সাংবাদিকের উপর হামলার ঘটনায় মামলা হয়েছে। হামলার শিকার জার্মানের একটি টেলিভিশন চ্যানেলের বাংলাদেশ প্রতিনিধি শিহাব উদ্দিন বাদি হয়ে প্রায় ৪ শতাধিক রোহিঙ্গার বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন। এতে ১১ রোহিঙ্গাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আজ শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল খায়ের। তিনি জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে হামলার শিকার শিহাব উদ্দিন বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। এ মামলায় কোনো রোহিঙ্গা নাম উল্লেখ্য করা যায়নি। তবে ৪ শতাধিক অজ্ঞাত রোহিঙ্গাকে আসামি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ১১ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আটক রোহিঙ্গারা হলেন- জিয়াবুল হক, জামাল হোসেন, নুরুল হাকিম, সিরাজ মিয়া, খায়রুল আমিন, মো. ইদ্রিস, ছৈয়দ আলম, রফিক, শাহজান ও ফরিদ আলম।

তিনি আরও জানান, মালয়েশিয়ান ফিল্ড হসপিটালে চিকিৎসা শেষে তারা ঢাকায় ফিরে গেছেন। পুলিশ মামলাটি গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখছে।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল হোসাইন বলেন,ক্যাম্পের ভেতর বিদেশি গণমাধ্যমকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনাটি গুরুত্বসহকারে নিয়ে কাজ করছে জেলা পুলিশ।

এর আগে কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের রোহিঙ্গাদের হামলায় ৩ জার্মান সাংবাদিক ও পুলিশসহ ৬জন আহত হন। বৃহস্পতিবার দুপুরে কুতুপালং ক্যাম্প-১ ইস্ট এর লম্বাশিয়া বাজারে এই হামলার ঘটনা ঘটে। আহতদের মধ্যে তিনজন জার্মান সাংবাদিক ও একজন বাংলাদেশি দোভাষী, একজন পুলিশ ও একজন গাড়ির ড্রাইভার রয়েছেন।

হামলায় আহতরা হলেন জার্মান সংবাদিক ইয়োচো লিওলি (৪৪), এস্ট্যাটিউ এপল (৪৯) ও গ্রান্ডস স্ট্যাফু (৬১), তাদের বাংলাদেশী দোভাষী মো. শিহাবউদ্দিন (৪১), গাড়িচালক নবীউল আলম (৩০) ও পুলিশ সদস্য জাকির হোসেন (৩৩)।

জার্মান সাংবাদিকরা ক্যাম্প-৪ এক্সটেনশন থেকে সংবাদ সংগ্রহ শেষে ফেরার পথে লম্বাশিয়ায় বাজারে এক রোহিঙ্গা পরিবারকে জামা-কাপড় কিনে দিচ্ছিলেন। কিন্তু ক্যাম্পের ভেতরে অবস্থানরত রোহিঙ্গারা ‘শিশুদের কৌশলে বিদেশে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে’ ভেবে সাংবাদিকদের ওপর হামলা চালায়।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.