টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে আরো ২৫টি ট্রলারের লাইসেন্সের সিদ্ধান্ত

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৩০ জুলাই, ২০১৩
  • ১৩৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

_fishing_boatবঙ্গোপসাগরের অর্থনৈতিক এলাকায় মাছ ধরতে আরো ২৫টি ট্রলারের নতুন লাইসেন্স দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মন্ত্রিসভা। সোমবার  প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়েছে। এর মধ্যে, ১৫টি মিডওয়াটার ট্রলার মাছ ধরবে সাগরের ৪০ মিটার থেকে ২০০মিটার গভীরতার এলাকায়। আর ১০টি লংলাইনার ট্রলার মাছ ধরবে ২০০ মিটার গভীরতা থেকে বাংলাদেশে অর্থনৈতিক এলাকার সীমানা পর্যন্ত

মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোশাররফ হোসেন ভুইঞাঁ সাংবাদিকদের বলেন,সাগরে মৎস্য আহরণের প্রথম স্তর তটরেখা থেকে ৪০মিটার গভীরতা পর্যন্ত।  দ্বিতীয় স্তরটি হলো ৪০ মিটারের পর থেকে ২০০মিটার গভীরতা পর্যন্ত আর ২০০মিটার গভীরতার এলাকা থেকে একান্ত অর্থনৈতিক এলাকার সীমানা পর্যন্ত হলো তৃতীয় স্তর।প্রথম স্তরে  ৪৩ হাজার জেলে নৌকা মৎস্য আহরণ করে। ওই এলাকায় কোনো লাইসেন্সপ্রাপ্ত বাণিজ্যিক ট্রলার মাছ ধরতে পারে না।  দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্তরে ২৯৯টি অনুমতিপ্রাপ্ত ট্রলার অপারেট করছে। কিছু সরকারের অনুমোদন নিয়ে; কিছু উচ্চ আদালতের অর্ডার নিয়ে।”

সচিব বলেন, ২০০ মিটার গভীরতা পর্যন্ত মাছ ধরার অনুমোদন নিয়েও যারা ‘অপারেট’ করছে না, তাদের কারণ দর্শানোর সময় দিয়ে অনুমোদন বাতিল করা হবে বলে সচিব জানান।

এছাড়াও লাইসেন্স গ্রহণ, নবায়ন ও সাগরে জলজ সম্পদ আহরণে অনিয়ম দূর করতে মৎস ও পশুসম্পদ মন্ত্রণালয়কে নীতিমালা প্রণয়নেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে। আর নতুন নীতিমালার ভিত্তিতেই এসব লাইসেন্সগুলো দেয়া হবে বলে জানান তিনি।

এ ব্যাপারে নির্দিষ্ট নীতিমালা রয়েছে। তবে সামুদ্রিক মৎস্য আহরণের বিষয়ে একটি বিস্তারিত নীতিমালা তৈরি করতে হবে। লাইসেন্সধারীদের কেউ যদি নীতিমালা ভঙ্গ করে থাকে, তাহলে তাদের লাইসেন্স বাতিল করা হবে। এছাড়া ২০০ মিটারের গভীরতার বাইরে টুনাফিসের মতো রপ্তানিমুখী মাছ আহরণে গুরুত্বারোপ করা হয়েছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT