টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
মডেল মসজিদগুলোয় যোগ্য আলেম নিয়োগের পরামর্শ র্যাবের জালে ধরা পড়লেন টেকনাফ সাংবাদিক ফোরামের সদস্য ও ইয়াবা কারবারি বিপুল পরিমাণ টাকা ও ইয়াবা উদ্ধার রোহিঙ্গাদের তথ্য মিয়ানমারে পাচার করছে জাতিসংঘ: এইচআরডব্লিউ প্রশাসনে তিন লাখ ৮০ হাজার পদ শূন্য গোদারবিলের জামালিদা ও নাইট্যংপাড়ার ফয়েজ ইয়াবা ও নগদ টাকাসহ গ্রেপ্তার পরীমনির কান্না অথবা নিখোঁজ ইসলামি বক্তা এসএসসি-এইচএসসির পরীক্ষার সিদ্ধান্ত পরিস্থিতি দেখে : শিক্ষামন্ত্রী টেকনাফে পাহাড় ধ্বসে ৩৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যুর ট্রাজেডি আজ পড়ে আছে বিলাসবহুল বাড়ি,নেই দাবিদার শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ লম্বাবিলে বাস—সিএনজির মুখোমুখী সংঘর্ষে রোহিঙ্গাসহ ২ জন নিহত

বঙ্গোপসাগরে আজ থেকে২৩ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ : প্রশাসনের প্রচারণা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৩ অক্টোবর, ২০১৩
  • ১০১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

PIC-MOHESHKHALI-12-10-13_1তাহেরা আক্তার মিলি,টেকনাফ :::বর্তমান ইলিশ প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ মাছ আজ ১৩ অক্টোবর থেকে ২৩ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ করতে টেকনাফ উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর ও কোস্টগার্ড যৌথ ভাবে প্রচারণা কার্যক্রম চালাচ্ছে। তাই সরকার ঘোষিত ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে মা ইলিশ নিধন রোধে  এ প্রচারণা। উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে সভাপতি করে প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ সংরণ কমিটিও গঠন করা হয়েছে। সম্প্রতি মৎস্য অধিদপ্তর কর্তৃক আয়োজিত এক সভায় এ তথ্য জানানো হয়েছে। সম্প্রতি আয়োজিত এ প্রস্তুতি সভায় জেলা উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, সরকার চলতি বছরে বাংলা বর্ষপঞ্জি অনুযায়ী ১৮ আশ্বিন থেকে ৮ কার্তিক বা ১৩ অক্টোবর থেকে ২৩ অক্টোবর ১১ দিন সময়কে ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম ঘোষণা করেছে। এসময়ে সারা দেশে ইলিশ মাছ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ অথবা বিক্রয় নিষিদ্ধ করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মৎস্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মতে ব্যাপক প্রচারণা কার্যক্রম কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। ব্যাপক প্রচারণা এরই মধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে। নির্দেশনা সংম্বিলত প্রজ্ঞাপন ও প্রচারণার অনুলিপি ফিশিংবোট মালিক সমিতি, টেকনাফ উপজেলার সকল বাজার কমিটি, বরফকলসহ সংশ্লিষ্ট বিভাগের কাছে পাঠানো হয়েছে। টেকনাফস্থ নাফ রেডিও ৯৯.২ এফএম  বেতার কেন্দ্র থেকে সার্বণিক প্রচারণা ও স্থানীয় প্রচার মাধ্যমে সংবাদ প্রচারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। অন্যদিকে সর্বাত্মকভাবে মা ইলিশ নিধনে প্রধান প্রজনন সময়ে সব ধরণের নৌযান সাগরে মাছ ধরতে যাবে না। তা বাস্তবায়নে জেলাও উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, নৌবাহিনী, কোষ্টগার্ড, বিএফডিসি, ফিশিংবোট মালিক সমিতি, মৎস্যজীবী সমিতি ও ফিশিংবোট শ্রমিক গুলো দায়িত্ব পালন করছে। নিষিদ্ধ সময়ে ইলিশ মাছ ধরা বন্ধ রাখার জন্য টেকনাফ ফিশিংবোট মালিক সমিতির উদ্যোগে জেলেদের প্রয়োজনীয় সহযোগিতা প্রদান এবং উদ্বুদ্ধকরণ সভা ও প্রচারণা চালানো হবে।  নিষিদ্ধ সময়ে বরফকল গুলোকে বোট, আড়তদারদের কাছে বরফ সরবরাহ নিষেধ করা হয়েছে। নিষেধ অমান্য করলে বরফকলের লাইসেন্স বাতিল করা হবে। হিমাগারে পূর্ব মুজদকৃত ইলিশ ছাড়া নতুন ধরা ইলিশ মাছ পাওয়া গেলে ওই হিমাগার সিলাগালা করা হবে। এ ব্যাপারে মনিটরিং টিম নিয়মিত সব এলাকা পরিদর্শন করবেন। সাগরের বিভিন্ন মোহনায় নৌবাহিনী ও কোষ্টগার্ড টহল জোরদার থাকবে। জেলার বিভিন্ন চেক পোস্ট, সড়ক ও নৌপথে মোতায়েন থাকবে আইনশৃংখলা রাকারী বাহিনী। সার্বিক বিষয়ে এরই মধ্যে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মাইকিং করা হয়েছে।  এ ব্যাপারে টেকনাফ উপজেলা মৎস্য র্কমকর্তা সেয়দ হুমায়ুন মোর্শেদ বলেন, বঙ্গোপসাগর ও নাফনদী  ইলিশ প্রজননের একটি গুরুত্বপূর্ণ এলাকা। তাই মা ইলিশ রোধে উপকুলীয় এলাকায় কঠোর প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন,বিগত বছর গুলোতেও সংশ্লিষ্ট সকলে সহযোগিতা করেছিল। আশা করি চলতি বছরেও সকলে সমান সহযোগিতা করে দেশের প্রধান মৎস্য সম্পদ ইলিশ রায় এগিয়ে আসবে।

জেলে সমিতির নেতৃবৃন্দ বলেন ,ইলিশ প্রজননের নিষিদ্ধ সময়ে মাছ ধরার জন্য কোন ফিশিং বোট সাগরে যাবে না। এ ব্যাপারে যা যা করা প্রয়োজন সব ধরণের সহযোাগিতা দেয়া হবে।  প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ সংরণ কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার  শাহ মোজাহিদ উদ্দিন, বলেন ‘ইলিশ জাতীয় অর্থনীতিতে একটি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে। কিন্তু প্রজনন মৌসুমেও ইলিশ নিধন করায় তার বিরূপ প্রভাব পড়ছে। এ জন্য সরকার প্রতিবছরের ১৮ আশ্বিন থেকে ৮ কার্তিক ১১ দিন ইলিশ মাছ আহরণ সম্বপূর্ণভাবে নিষিদ্ধ করে। এ জন্য উপজেলা প্রশাসনের প থেকে উপকুলীয় এলাকায় প্রচুর মাইকিং করা হয়েছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT