টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
রোহিঙ্গারা কন্যাশিশুদের বোঝা মনে করে অধিকতর বন্যার ঝূঁকিপূর্ণ জেলা হচ্ছে কক্সবাজার টেকনাফে মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ৩০ পরিবারকে প্রধানমন্ত্রীর উপহার জমি ও ঘর হস্তান্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-মেম্বারদের দায়িত্ব নিয়ে ডিসিদের চিঠি আগামীকাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন (তালিকা) বাংলাদেশ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান টেকনাফ উপজেলা কমিটি গঠিত: সভাপতি, সালাম: সা: সম্পাদক: ইসমাইল আজ বিশ্ব শরণার্থী দিবস মিয়ানমারে ফেরা নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠায় রোহিঙ্গারা ব্যাটারিচালিত রিকশা-ভ্যান বন্ধের সিদ্ধান্ত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ হাসিনা যতদিন আছে, ততদিন ক্ষমতায় আছি: হানিফ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সবচেয়ে বড় ভুল : ডা. জাফরুল্লাহ

ফের আন্দোলনে পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৩
  • ১৩৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বিশেষ প্রতিবেদক ইঞ্জিনিয়ারের পূর্ণ সংজ্ঞা নির্ধারণ, সুপার ভাইজারের পরিবর্তে ইঞ্জিনিয়ার পদমর্যাদা ও ডিগ্রী ইঞ্জিনিয়ারদের মতো সুযোগ সুবিধা দানের দাবীতে ফের আন্দোলনের মাঠে নেমেছে পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা। সরকারের আশ্বাসের ভিক্তিতে দুই সপ্তাহ আন্দোলন স্থাগিত রাখলেও পরিশেষে সরকার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন না করায় তারা পূনরায় আন্দোলনের ডাক দিয়েছে।

শিক্ষার্থীদের দাবী না মানায় কারিগরী শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এ পর্যন্ত কোন পরীক্ষায় অংশ নেয়নি তারা। বরং সাধারণ ছাত্রদের ব্যানারে তারা গত ৭ অক্টোবর থেকে ‘ডিপ্লোমা জাগরণ মঞ্চ’ থেকে আন্দোলন শুরু করেছে। এ দিকে আন্দোলনের অংশ হিসাবে বুধবার তারা কেন্দ্রীয় পরীক্ষা বর্জন ও অবস্থান কর্মসুচি পালন করেছে। বৃহস্পতিবার সকল পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দিয়েছে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনের সমন্বয়ক আতিক সুজন।

ইঞ্জিনিয়ারের পূর্ণ সংজ্ঞা নির্ধারণ, সুপার ভাইজারের পরিবর্তে ইঞ্জিনিয়ার পদমর্যাদা ও ডিগ্রী ইঞ্জিনিয়ারদের মতো সুযোগ সুবিধা দানের দাবীতে গত কয়েক মাস ধরে সারা দেশের পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করছে। তাদের আন্দোলনে সারাদেশের কারিগরী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহ এক প্রকার অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। এ আন্দোলনে সারাদেশে ৪ জন সাধারণ শিক্ষার্থী নিহত হওয়াসহ আহত হয় ৩’শতাধিক। পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয় অর্ধ শ’তাধিক আন্দোলনকারী।

এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ২ অক্টোবর জরুরী সভায় সরকারের পক্ষ থেকে দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে তাদের দাবী পূরণের আশ্বাস দেয়া হয়েছিল। এ বৈঠকে চলতি মাসের ৬ তারিখের মধ্যে গেজেট প্রকাশের সিদ্ধান্ত হয়। এ আশ্বাস পেয়ে আন্দোলন স্থগিত রাখে তারা। অবশেষে সময় পার হলেও সরকার গেজেট প্রকাশ না করায় পূনরায় আন্দোলনের মাঠে সংগঠিত হয় পলিটেকনিকের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

প্রসঙ্গত, গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের ২০০৮ সালের বিতর্কিত বিজ্ঞাপনের সংজ্ঞা পূণ নির্ধারণ করে আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী বিজ্ঞাপন সংশোধন এবং ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের দাবী বাস্তবায়নে সরকারের সর্বশেষ প্রতিশ্রুতির অগ্রগতি না হওয়ায় পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে।

 

ফের আন্দোলনে পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা বিশেষ প্রতিবেদক ইঞ্জিনিয়ারের পূর্ণ সংজ্ঞা নির্ধারণ, সুপার ভাইজারের পরিবর্তে ইঞ্জিনিয়ার পদমর্যাদা ও ডিগ্রী ইঞ্জিনিয়ারদের মতো সুযোগ সুবিধা দানের দাবীতে ফের আন্দোলনের মাঠে নেমেছে পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা। সরকারের আশ্বাসের ভিক্তিতে দুই সপ্তাহ আন্দোলন স্থাগিত রাখলেও পরিশেষে সরকার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন না করায় তারা পূনরায় আন্দোলনের ডাক দিয়েছে।

শিক্ষার্থীদের দাবী না মানায় কারিগরী শিক্ষাবোর্ডের অধীনে এ পর্যন্ত কোন পরীক্ষায় অংশ নেয়নি তারা। বরং সাধারণ ছাত্রদের ব্যানারে তারা গত ৭ অক্টোবর থেকে ‘ডিপ্লোমা জাগরণ মঞ্চ’ থেকে আন্দোলন শুরু করেছে। এ দিকে আন্দোলনের অংশ হিসাবে বুধবার তারা কেন্দ্রীয় পরীক্ষা বর্জন ও অবস্থান কর্মসুচি পালন করেছে। বৃহস্পতিবার সকল পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দিয়েছে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনের সমন্বয়ক আতিক সুজন।

ইঞ্জিনিয়ারের পূর্ণ সংজ্ঞা নির্ধারণ, সুপার ভাইজারের পরিবর্তে ইঞ্জিনিয়ার পদমর্যাদা ও ডিগ্রী ইঞ্জিনিয়ারদের মতো সুযোগ সুবিধা দানের দাবীতে গত কয়েক মাস ধরে সারা দেশের পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করছে। তাদের আন্দোলনে সারাদেশের কারিগরী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহ এক প্রকার অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে। এ আন্দোলনে সারাদেশে ৪ জন সাধারণ শিক্ষার্থী নিহত হওয়াসহ আহত হয় ৩’শতাধিক। পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয় অর্ধ শ’তাধিক আন্দোলনকারী।

এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ২ অক্টোবর জরুরী সভায় সরকারের পক্ষ থেকে দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে তাদের দাবী পূরণের আশ্বাস দেয়া হয়েছিল। এ বৈঠকে চলতি মাসের ৬ তারিখের মধ্যে গেজেট প্রকাশের সিদ্ধান্ত হয়। এ আশ্বাস পেয়ে আন্দোলন স্থগিত রাখে তারা। অবশেষে সময় পার হলেও সরকার গেজেট প্রকাশ না করায় পূনরায় আন্দোলনের মাঠে সংগঠিত হয় পলিটেকনিকের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

প্রসঙ্গত, গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের ২০০৮ সালের বিতর্কিত বিজ্ঞাপনের সংজ্ঞা পূণ নির্ধারণ করে আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী বিজ্ঞাপন সংশোধন এবং ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের দাবী বাস্তবায়নে সরকারের সর্বশেষ প্রতিশ্রুতির অগ্রগতি না হওয়ায় পলিটেকনিকের শিক্ষার্থীরা আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে।

 

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT