টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

ফলোআপ ঃরামুর রশিদ নগরে নিহত ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন ঃ মামলা দায়ের

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৭ নভেম্বর, ২০১২
  • ১৩১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ওমর ফারুক পারভেজ, সদর প্রতিনিধি /
রামু উপজেলার রশিদ নগরে ২৫ নভেম্বর বার্মায়া কান্তা মলই ওরফে আব্দুল হাফেজের দায়ের কোপ ও ছবিলের আঘাতে নিহত একই এলাকার হাজী কবির আহাম্মদের পুত্র নুরুল ইসলামের (৪৫) ময়না তদন্ত শেষে ২৬ নভেম্বর বিকেলে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। পুলিশ ঘটনা পর পরই ঘাতক ও তার স্ত্রীসহ  ৪ ব্যাক্তিকে গ্রেফতার করেছে। এ দিকে ঘটনার দিনই নিহতের পুত্র আবু বক্কর বাদী হয়ে আটককৃত ৪ ব্যাক্তিকে বিবাদী করে রামু থানায় মামলা দায়ের করেছে। ২৭ নভেম্বর বিকেলে উকিয়া এএসপি সার্কেল ঘটনাস্থল পদির্শন করেন। স্থানীয় মেম্বার নুর আহাম্মদ ও এলাকাবাসী জানান, আব্দুল হাফেজ প্রকাশ বার্মায়া কান্তা মলইর বিরুদ্ধে জঙ্গি কালেকশন, আদম পাচারসহ একাদিক অভিযোগ রয়েছে। তাছাড়া তার কাছে বিভিন্ন ইউনিয়নের নাগরিকত্ব সনদও পাওয়া গেছে। স্থানীয় সচেতন মহলের দাবী পার্শ্ববর্তী পাহাড়ী এলাকা থেকে ধান কেটে বাড়িতে আনার পথে আব্দুল হাফেজের বাড়ীর আঙ্গিনার পার্শ্ববর্তী রাস্তা দিয়ে হাটার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে। এ সময় নিহত ব্যাক্তির পুত্র শফিকও (২২) আহত হয়। ইতি পূর্বেও ঘাতক আব্দুল হাফেজের বিভিন্ন অপকর্মের বিরুদ্ধে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বারগণের স্বাক্ষর সম্বলিত একটি আবেদন উপজেলা নিবার্হী বরাবরও দায়ের করা হয়েছিল বলে উপস্থিত ব্যাক্তিরা এ প্রতিবেদককে জানান। স্থানীয় সচেতন ব্যাক্তি আব্দু জাব্বার জানান, আব্দুল হাফেজকে আটকের সময় ২টি পাসর্পোট, ২টি আইডি কার্ড, ৭টি মোবাইল ও ২২টি ব্যাটারী পাওয়া যায়। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সোহেলের ০১৯১২-৯৭৮০৬০ মোবাইল নাম্বারে বার বার কল করার পরও রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি। তবে স্থানীয়রা ঘটনায় জড়িত ব্যাক্তিদের ফাঁসি দাবী করেছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT