প্রশাসনিক কাজে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অফিস সীমিত খোলা রাখার আদেশ

প্রকাশ: ১ জুন, ২০২০ ৮:৪৮ : অপরাহ্ণ

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সীমিত আকারে খুলেছে সরকারি অফিসগুলো । এ পরিস্থিতিতে ছাত্রভর্তি, বিজ্ঞানাগার, পাঠাগার, যন্ত্রপাতি রক্ষণাবেক্ষণ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার মত প্রশাসনিক কাজে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অফিস সীমিত আকারে খোলা রাখার অনুমতি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে অসুস্থ ও গর্ভবতী শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তিদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আসা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।

সোমবার (১ জুন) মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবুল খায়ের স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীরনস্ত সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য  এই আদেশ প্রযাজ্য হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অফিস শুধুমাত্র প্রশাসনিক রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজনে (যেমন ছাত্রভর্তি, বিজ্ঞানাগার, পাঠাগার, যন্ত্রপাতি রক্ষণাবেক্ষণ, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতায় ইত্যাদি) সীমিত আকারে খোলা রাখা যাবে। তবে অসুস্থ শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারী, সন্তান সম্ভবা নারী এবং ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তিদেরক্স শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উপস্থিত হওয়া থেকে বিরত থাকবেন।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, পাশাপাশি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকে সব অবস্থায় মাস্ক পরিধানএ বং স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জারি করা স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে অনুসরণ করতে হবে।

মোহাম্মদ আবুল খায়ের দৈনিক শিক্ষাডটকমকে বলেন, আজই (সোমবার) আদেশ জারি হল। ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যেতে হবে না।

কোচিং সেন্টার বা কিন্ডারগার্টেন খোলার বিষয় কিছু বলা হয়নি। প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলার বিষয়ে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।


সর্বশেষ সংবাদ