টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
মডেল মসজিদগুলোয় যোগ্য আলেম নিয়োগের পরামর্শ র্যাবের জালে ধরা পড়লেন টেকনাফ সাংবাদিক ফোরামের সদস্য ও ইয়াবা কারবারি বিপুল পরিমাণ টাকা ও ইয়াবা উদ্ধার রোহিঙ্গাদের তথ্য মিয়ানমারে পাচার করছে জাতিসংঘ: এইচআরডব্লিউ প্রশাসনে তিন লাখ ৮০ হাজার পদ শূন্য গোদারবিলের জামালিদা ও নাইট্যংপাড়ার ফয়েজ ইয়াবা ও নগদ টাকাসহ গ্রেপ্তার পরীমনির কান্না অথবা নিখোঁজ ইসলামি বক্তা এসএসসি-এইচএসসির পরীক্ষার সিদ্ধান্ত পরিস্থিতি দেখে : শিক্ষামন্ত্রী টেকনাফে পাহাড় ধ্বসে ৩৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যুর ট্রাজেডি আজ পড়ে আছে বিলাসবহুল বাড়ি,নেই দাবিদার শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ লম্বাবিলে বাস—সিএনজির মুখোমুখী সংঘর্ষে রোহিঙ্গাসহ ২ জন নিহত

প্রধানমন্ত্রী কক্সবাজার আসছেন: সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : সোমবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৩
  • ১২০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ইমাম খাইর, কক্সবাজার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মঙ্গলবার একদিনের সফরে কক্সবাজার আসছেন। এ দিন তিনি রামু ও উখিয়ায় পৃথক দলীয় সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন। প্রধানমন্ত্রী বেলা ১১টার দিকে হেলিকপ্টার যোগে রামু এসে পৌঁছাবেন। এরপর রামু বিমুক্তি ভাবনা কেন্দ্র উদ্বোধন করবেন। তারপর রামু মৈত্রী বিহার উদ্বোধনের পর কেন্দ্রীয় সীমা বিহারে যাবেন। সেখানে সীমা বিহারসহ রামু উপজেলার লালচিং বিহার, সাদাচিং বিহার, আর্যবংশ বৌদ্ধ বিহার, অপর্ণা চরণ বৌদ্ধ বিহার, উচাই সেন বিহার, জেতবন বৌদ্ধ বিহার, বন বিহার, অজান্তা বৌদ্ধ বিহার ও বিবেকারাম বৌদ্ধ বিহার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী।

রামু থেকে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে হেলিকপ্টার যোগে প্রধানমন্ত্রী উখিয়ার ইনানী রেস্ট হাউসে যাবেন। এরপর বেলা আড়াইটার দিকে উখিয়া হাইস্কুল মাঠে জনসভায় বক্তব্য দেবেন। সভা মঞ্চ থেকে প্রধানমন্ত্রী উখিয়ার ৭টি বৌদ্ধ বিহারসহ ১৬টি নতুন ভবন ও উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন ঘোষণা করবেন। একই সঙ্গে তিনি ১৮টি নতুন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন। এ সময় জেলার বিভিন্ন এলাকায় অর্ধশতাধিক নব নির্মিত ভবন, স্থাপনা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উদ্বোধনের কথা রয়েছে। এর বাইরেও প্রধানমন্ত্রী সরকারি আবাসিক ফ্যাট নির্মাণ, জেলা সার্ভার স্টেশন ও রামু ফায়ার সার্ভিস স্টেশনসহ জেলার ১৫ স্থানের ১৫টি মাদ্রাসা ও কলেজ ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন বলে জানা গেছে।

মহাজোট সরকারের ক্ষমতা ছাড়ার শেষ সময়ে প্রধানমন্ত্রী ও দলীয় সভানেত্রীর আগমনকে ঘিরে কক্সবাজারে আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা কর্মীদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে। তারা ইতিমধ্যে সমাবেশ সফল করার জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। সমাবেশের মাঠ তৈরীর কাজও শেষ হয়েছে। এখন শুধু অনুষ্ঠানে মধ্যমনি আসার পালা। সবাই অপেক্ষায় আছে প্রিয় নেত্রীকে বরণ করে নেয়ার জন্য। আর তারা শুনবেন নেত্রীর দলীয় দিক নির্দেশনাপূর্ণ বক্তব্য। জনসভায় ভাষণদান শেষে প্রধানমন্ত্রী হেলিকপ্টার যোগে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা হবেন বিকেল ৪টায়।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এতদিন আওয়ামীলীগের মধ্যে দলীয় কোন্দল থাকলেও এসব পেছনে ফেলে সকল নেতা কর্মী কোমর বেঁধে মাঠে নেমেছে। সমাবেশ সফল করতে প্রচারণায় সরব পুরো ময়দান। প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে জেলার প্রবেশ দ্বার চকরিয়াসহ বিভিন্ন এলাকা স্বাগত ব্যানার, পোষ্টার ও প্লে-কার্ডে ছেয়ে গেছে। নির্মিত হয়েছে মূল সড়কের উপর কয়েক’শ তোরণ। জেলা শহর ছাড়া মফস্বলেও নেত্রীর আগমনে উজ্জীবিত হয়ে উঠেছে দলীয় নেতা কর্মীরা।

কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এড. একে আহমদ হোসেন জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সফরের যাবতীয় কাজ ইতিমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে। প্রশাসনিকভাবেও নেয়া হয়েছে ব্যাপক নিরাপত্তা।

প্রসঙ্গত, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শেখ হাসিনার কক্সবাজারে এটি তৃতীয় সফর। এর আগে ২০১১ সালের ৩ এপ্রিল কক্সবাজার সদরে এবং ২০১২  সালের ৮ অক্টোবর রামুতে সম্প্রীতি সমাবেশের উদ্দেশ্যে আসেন তিনি।

 

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT