টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

পাগলিরবিলে অপরিকল্পিত ইট ভাটা, ,সড়কের ব্যাপক তি,প্রশাসন নির্বিকার

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২ আগস্ট, ২০১৩
  • ১১২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বাবুলমিয়া মাহমুদ::::উখিয়ার সবুজ শ্যামল ও কৃষির অপার সম্ভাবনাময়  মরিচ্যা পাগলির বিল এলাকার দিকে ভুমিদস্যূও অতি মোনাফ লোভীদের কুনজর পড়ায় কৃষকদেরও ভুল বুঝিয়ে  কৃষি জমি উচ্চ  মুল্যে ক্রয় করে একের পর এক নির্মাণ করছে ইট ভাটা । বিগত ২/৩ বছর যাবত এ এলাকায় ২টি  ইট ভাটার উৎকট গন্ধে,ধোঁয়ায় এলাকার পরিবেশ মারাতœকভাবে দূষিত হলেও ইট ভাটা মালিকরা টাকাওয়ালা ও প্রভাবশালী হওয়ায় কেউ প্রতিবাদ করার সাহস পাইনাই।কিন্তু বর্তমানে মরিচ্যা  পাগলির বিল সড়কটি ইট ভাটার ভারী ট্রাক, ঢাম্পার চলাচলের কারণে  রাস্তায় বিছানো ইট গুলো প্রায় ভেংগে গিয়ে ব্যাপক খানাখন্দকের  সৃষ্টি হয়েছে এবং রাস্তার দু পাশ্ব দিন দিন ভেঙ্গে যাচ্ছে , যে কারণে যানচলাচল প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে।এ ছাড়া ইট ভাটার  উৎকট গন্ধে কি ধরণের রোগ হতে পারে এমন প্রশ্নের জবাবে ককসবাজারের বেশ কয়েকজন মেডিসিন বিশেষঞ জানান, এ্যজমা, শ্বাসকষ্ট,ফুসফুস ক্যান্সারসহ বিভিন্ন মারাতœক েেরাগব্যাধী হতে পারে ।স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ সাইফুল্লাহ সিকদার  সাইফুল মেম্বার, সমাজ সেবক ককসবাজার আইনজীবি সহকারী সমিতির সভাপ্রতি মুন্স্ িমাহমুদুল হক চেীং, হাজী আবুল কাসেমসহ স্থানীয়দের সবাই অকপটে এই প্রতিবেদকের কাছে ইট ভাটার কারণে এলাকার পরিবেশ বিনষ্ট,রাস্তার বেহাল দশা,মাঠির টপ সয়েল বিক্রির কারণে তির কথা স্বীকার করেন।বিশেষ করে এ বছর আম গাছে যতেষ্ট মুকুল আসলেও আম ধরেছিল (ফলন) খুবই কম যার একমাত্র কারণ ইট ভাটার দূষিত বাতাস বলে মনে করছেন পরিবেশবাদী লোকজন।পাগলিরবিল কৃষি নির্ভর এলাকা হওয়ায় এ এলাকায় সরকার ৪-৫ কোঠি টাকা ব্যয়ে রাবারড্যাম নির্মাণ করেছে অথচ আগামী কয়েক বছরের মধ্যে কৃষি আবাদযোগ্য জমি আশংকাজনকহারে কমে যাবে বলে মনে করছেন কৃষিবিদরা।পাগলিরবিলে ২ টি ইট ভাটার কারণে পরিবেশ দুষনের ব্যাপারে উখিয়া উপজেলা প্রশাসনকে লিখিত অভিযোগ করার পরও কোন ব্যবস্থা নেয়া হয়নিই।অথচ বিগত ৩/৪ মাস আগে এরাকাবাসীর প থেকে উখিয়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা বরাবর লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছিল তখন এ সব অবৈধ ইট ভাটা বন্ধের ব্যাপারে  প্রশাসনের কোন পদপে আছে কিনা জানতে চাইলে উখিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান,অবৈধ ইট ভাটা সিল গালা করে দেয়া এবং যেসব বৈধ ইট ভাটা আছে সেগুলোতে যদি পরিবেশের তি সাধিত হয় এমনভাবে তাকে তাহলে সেগুলোর ব্যাপারেও উপযুক্ত ব্যবস্থা নেয় হবে।যা উপজেলা আইনি শৃংখলা মিঠিং এ সিদ্ধান্ত হয়েছে।অথচ অদ্যবদি কোন ব্যাবস্থা নেয়া হয়নিই।যে কারণে মরিচ্যা পাগলির বিল সড়কটি যানচলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।এ সড়কটি কার্পেটিংরের ব্যাপাারে জনতে চাইলে উপজেলা  প্রকৌশলী মোঃ জামাল উদ্দিন জানান, পাগলির বিল সড়কটি কার্পেটিংএর ব্যাপারে ইতি মধ্যে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়ে প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। যা অনুমোদনের অপোয় রয়েছে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT