টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!

নতুন বছরের পর্যটক বরণে প্রস্তুত এখন কক্সবাজার

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৮ ডিসেম্বর, ২০১২
  • ১৫২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ফরিদুল মোস্তফা খান, কক্সবাজার থেকে,
থার্টি ফাষ্ট নাইট উদযাপন ও নতুন বছরে আগত দেশি-বিদেশি পর্যটক বরণে প্রস্তুত এখন কক্সবাজার। এ লক্ষে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা। হোটেল-মোটেল থেকে শুরু করে বিভিন্ন স্থানে আয়োজন করা হয়েছে বর্ষ বরনের নানা অনুষ্ঠানমালা। আর ক’দিন পর কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বসবে লাখো পর্যটকের মিলন মেলা। ব্যাপক আয়োজনের মধ্য দিয়ে ৩১ ডিসেম্বর সোমবার দেশি-বিদেশী লাখো পর্যটক ২০১২ সালকে বিদায় ও ১ ডিসেম্বর মঙ্গলবার ২০১৩ সালকে বরণ করবে নয়নাভিরাম কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে। আর এ আয়োজনকে কেন্দ্র করে সমুদ্র সৈকতসহ শহরে ৫ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে জেলা পুলিশ প্রশাসন।
৩১ ডিসেম্বর হবে ইংরেজী বর্ষ ২০১২ সালের শেষ দিন। ২০১২ সালকে বিদায় জানিয়ে নতুন বর্ষ ২০১৩ সালকে বরণ করতে ইতিপূর্বে বিপুল সংখ্যক পর্যটক এখন কক্সবাজারে অবস্থান করছেন। ২৭ ডিসেম্বর থেকে সাপ্তাহিক ছুটিকে কেন্দ্র করে কক্সবাজারে বিপুল পরিমান দেশি-বিদেশী পর্যটক পৌঁছেছে। আজ কালের মধ্যে লাখো পর্যটক কক্সবাজারে পৌঁছবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। এদিকে থার্টি ফাষ্ট নাইট উদযাপন ও বর্ষ বরনকে কেন্দ্র করে কক্সবাজারের হোটেল-মোটেল, রেষ্ট-গেষ্ট হাউসগুলো বুকিং হয়ে গেছে মাস খানেক আগে থেকেই। হোটেল মালিকরা জানান, রাজনৈতিক কর্মসূচি শিথিল থাকায় এক সপ্তাহ ধরে কক্সবাজারে পর্যটকদের আগমন বৃদ্ধি পেয়েছে। হোটেল-মোটেল জোনের ৩ শতাধিক আবাসিক হোটেলের সব কক্ষ ইতিপূর্বে অগ্রীম বুকিং হয়ে গেছে।
কক্সবাজারের তারকা হোটেল মিডিয়া ইন্টারন্যাশনালের পরিচালক ইমতিয়াজ আলম চৌধুরী ও সিভিল সোসাইটির সভাপতি আবু মোর্শেদ চৌধুরী জানান, টানা রাজনৈতিক অস্থিরতা কাটিয়ে বর্তমানে অবস্থা কিছুটা শিথিল থাকায় গত বছরের চেয়ে এ বছর দেশি পর্যটকের পাশাপাশি বিদেশী পর্যটকের আগমন বৃদ্ধি পেতে পারে। এ বছর আগত পর্যটকের সংখ্যা লক্ষাধিক ছাড়িয়ে যাবে বলে জানান তিনি। কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে ব্যাপক অনুষ্ঠান মালার আয়োজন করা হয়েছে। সমুদ্র সৈকতে ইলেকট্রিক মিডিয়ার কনসার্টসহ বিভিন্ন কোম্পানীর উদ্যোগে কনসার্টের আয়োজন করা হয়েছে বলে জেলা প্রশাসক সূত্রে জানা গেছে। এছাড়াও প্রায় শতাধীক আবাসিক তারকা মানের হোটেল-মোটেল বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। কক্সবাজারে আগত পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তা ও আইন-শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে জেলা পুলিশ কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।
কক্সবাজারে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আজাদ মিয়া জানান, থার্টি ফাস্ট নাইট উপলক্ষে ৫ স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। কক্সবাজারের নিয়মিত পুলিশের পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে শতাধিক অতিরিক্ত পুলিশ সদস্যকে আনা হবে। পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাবের টহল থাকবে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT