হটলাইন

01787-652629

E-mail: teknafnews@gmail.com

সর্বশেষ সংবাদ

ক্রীড়া

দ্বিতীয়বারের মতো গোল্ডেন বুট জিতলেন মেসি

দ্বিতীয়বারের মতো ইউরোপিয়ান ‘গোল্ডেন বুট’ জিতলেন বার্সেলোনার আর্জেন্টাইন তারকা ফুটবলার লিওনেল মেসি। গত মৌসুমে সর্বোচ্চ গোল করার কারণে এ বুট জিতলেন তিনি।

২০১১ মৌসুমে বার্সেলোনার জার্সি গায়ে ৭৩ গোল করেছিলেন মেসি। এর আগে এক মৌসুমে এর চেয়েও বেশি গোল করেছিলেন ব্রাজিলের কিংবদন্তি খেলোয়াড় পেলে ও জার্মানির গার্ড মুলার। ১৯৭২ সালে বার্য়ান মিউনিখের হয়ে এক মৌসুমে ৮৫ গোল করেন মুলার। আর ১৯৫৯ সালে ৭৫ গোল করে ঐ মৌসুমে সর্বোচ্চ গোল করার নজির গড়েন পেলে।

ইউরোপিয়ান লিগের গোল্ডেন বুট জয়ের তালিকায় মেসির প্রতিন্দ্বন্দ্বী ছিলেন বার্সার মিডফিল্ডার জাভি, আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, সান্তোসের নেইমার, আইভরিকোস্টের দিদিয়ের দ্রগবা, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের ওয়েন রুনি।

গত আসরে স্প্যানিশ লিগে সর্বোচ্চ ৫০ গোল করেছিলেন মেসি। তাই গোল্ডেন বুট জয়ের পেছনে এই রেকর্ডটিও বড় একটা উদাহরণ ছিল। গোল্ডেন বুটের এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বার্সার দুই খেলোয়াড় জাভি হার্নান্দেজ ও কার্লোস পুয়ল।

বুট জয়ের আনন্দ দলের সতীর্থদের সাথে ভাগাভাগি করতে চান জানিয়ে মেসি বলেন, ‘গোল করার জন্যই এমন একটি ট্রফি জিততে পেরেছি আমি। কিন্তু সতীর্থদের ছাড়া আমি তো গোল করতে পারতাম না। তাই এই ট্রফিটি আমার সতীর্থদের সাথে আমি ভাগাভাগি করতে চাই।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমি ব্যক্তিগত অর্জনের জন্য কখনো লড়াই করি না। আমি লড়াই করি শিরোপার জন্য। আমার গোলে দল সবসময় শিরোপা জিতুক, তাই চাই। আমার করা সবগুলো গোলই, দলের গোল।’

এর আগে ২০১০ সালে গোল্ডেন বুট জিতেছিলেন মেসি। সেবার বার্সেলোনার হয়ে লা-লীগায় ৩৪ গোল করেছিলেন তিনি। ২০১১ সালের ইউরোপের গোল্ডেন বুটের ট্রফি মেসির হাতে তুলে দেন ১৯৬০ সালে ব্যালন ডি’অরের ট্রফি জয় করা স্পেনের সাবেক খেলোয়াড় লুইস সুয়ারেজ মিরামনটেসের।

Leave a Response

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.