টেকনাফ নিউজ:
বিশ্বব্যাপী সংবাদ প্রবাহ... সবার আগে টেকনাফের সব সংবাদ পেতে টেকনাফ নিউজের সাথে থাকুন!
শিরোনাম :
বাহারছড়া শামলাপুর নয়াপাড়া গ্রামের “হাইসাওয়া” প্রকল্পের মাধ্যমে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ ও বার্তা প্রদান প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ঘর উদ্বোধন উপলক্ষে টেকনাফে ইউএনও’র প্রেস ব্রিফ্রিং টেকনাফের ফাহাদ অস্ট্রেলিয়ায় গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী সম্পন্ন করেছে নিখোঁজের ৮ দিন পর বাসায় ফিরলেন ত্ব-হা মিয়ানমারে পিডিএফ-সেনাবাহিনী ব্যাপক সংঘর্ষ ২শ’ বাড়ি সম্পূর্ণ ধ্বংস বিল গেটসের মেয়ের জামাই কে এই মুসলিম তরুণ নাসের রোহিঙ্গাদের এনআইডি কেলেঙ্কারি : নির্বাচন কমিশনের পরিচালকের বিরুদ্ধে দুপুরে মামলা, বিকালে দুদক কর্মকর্তা বদলি সড়কের কাজ শেষ হতে না হতেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং! আপনি বুদ্ধিমান কি না জেনে নিন ৫ লক্ষণে ৫৫ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশি ভোটার: নিবন্ধিত রোহিঙ্গাও ভোটার! ইসি পরিচালকসহ ১১ জন আসামি

দালালরা ধরাছোয়ার বাইরে !টানা ৪ দিন সমুদ্রে ভেসে জাহাজ না পেয়ে ফেরার পথে ২৪ মালয়েশিয়াগামী আটক

Reporter Name
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২০ আগস্ট, ২০১৩
  • ১২৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

জেড করিম জিয়া, টেকনাফ ###IMG_3779টানা ৪ দিন ধরে সমুদ্রে ভেসে জাহাজের খোঁজ না পেয়ে ফিরে আসার পথে শাহপরীরদ্বীপ গোলারচর থেকে অবৈধভাবে মালয়েশিয়াগামী ২৪ যাত্রীকে আটক করেছে টেকনাফ বিজিবি।
বিজিবির দাবী, শাহপরীরদ্বীপ গোলারচর এলাকায় ৩০/৩৫ জনের একটি দল মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রস্তুতি নেওয়ার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিওপির নায়েক সুবেদার আসাদুজ্জামানের নেতৃত্বে জওয়ানরা অভিযান চালালে ২৪ জন যাত্রীকে আটক করতে সক্ষম হয় এবং বাকীরা পালিয়ে যায়। এসময় তাদের কাছ থেকে চিড়া, গুড়, পানি ও ওষুধ উদ্ধার করা হয়।  আটক ব্যক্তিরা হলেন- নরসিংদী জেলা সদরের মৃত একাব্বরের ছেলে মোঃ রুহুল আমিন (২৫), আবদুল গফ্ফারের ছেলে দানিয মিয়া (৩০), মোঃ মোক্তারের ছেলে মোঃ হুমায়ুন (২৫), মোঃ হাশেমের ছেলে মোঃ নাইম (১৮), মোঃ শরাফতের ছেলে মোঃ রাজিব মিয়া (২১), বনাইদ এলাকার মোঃ ওয়াজেদ আলীর ছেলে মোঃ মাসুম (২২), মোহসিন ভুইয়ার ছেলে মোঃ কামরুল ভুইয়া (২৫),   রফিকুল ইসলামের ছেলে মোঃ আবুল বাশার (২০), মোঃ সিরাজুল ইসলামের ছেলে জুবাইর হোসেন (২২), মোঃ বাবলুর ছেলে মোঃ সুফিয়ান (২০), আবুল হাশেমের ছেলে মোঃ দেলোয়ার (২৫), বরুড়া থানার মোঃ আলী আকবরের ছেলে মনির হোসেন (২৮), মোঃ বশিরের ছেলে মোঃ মোহসিন (২২), কুমিল্লা বুড়িচং এলাকার মৃত আবদু রশিদের পুত্র আবুল খায়ের (২৫), আবদু রফের ছেলে মোঃ রাসেল (১৯), বরগুনা জেলার পাথরঘাটা এলাকার রুস্তম আলীর ছেলে মোঃ শহীদ (২৫), রাজশাহী জেলার বাগমারা এলাকার গাজীবর মোল্লার ছেলে মোঃ জাকির (২৮), মোঃ ইয়াছিনের ছেলে মোঃ ইমদাদুল (৩৫), ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারি এলাকার মোঃ ছাত্তার শেখের ছেলে মোঃ সেলিম শেখ (২৮), আইনাল শেখের ছেলে মোঃ জুবাইর শেখ (১৭), কক্সবাজার জেলার রামু এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে মোক্তার আহমদ (৩০), নুরুল হকের ছেলে গোলাম মাওলা (২০), নুর আহমদের ছেলে ছালামত উল্লাহ (১৭), কালু মিয়ার ছেলে মতিউর রহমান (২০)।
আটকৃতরা জানায়, শাহপরীরদ্বীপ মাঝেরপাড়া এলাকার  কবির আহমদের ছেলে মোঃ আমান উল্লাহ (৩৮) ও দক্ষিণপাড়ার মৃত আবদুল গণির ছেলে নুর হাকিম মাঝি (৫২) সহ আরো বেশ কয়েকজন দালালের যোগ সাজশে টাকার বিনিময়ে মালয়েশিয়া পৌছে দেওয়ার কথা বলে ছোট ছোট নৌকা করে বড় জাহাজে নিয়ে যাওয়ার বিজিবির হাতে আটক হয়।
স্থানীয় সংবাদকর্মী সাইফুল ইসলাম সাইফী আক্ষেপ করে বলেন, প্রতিনিয়ত আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে টেকনাফ থেকে আটক হচ্ছে দালালের খপ্পরে পড়া দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের সহজ, সরল ও নিরহ যুবকরা। থানা পুলিশ তাদেরকে দালালের খপ্পরে পড়া বা প্রতারণার শিকার হিসেবে গন্য করে স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করে। কিন্তু তাদের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা না নেওয়ায় তারা পুনরায় একাজে জড়িয়ে পড়ে।
স্থানীয় সচেতন মহলও অবৈধপথে মালয়েশিয়াগামী যাত্রীরা প্রতারনার শিকার তা মানতে নারাজ। এসব যাত্রীরা জেনে শুনে টাকার বিনিময়ে চুক্তিবদ্ধ হয়ে সমুদ্রপথে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী ঔষধ, চিড়া, মুড়ি, পানি সঙ্গে নিয়ে কাঠের বোটে করে মালয়েশিয়া গমন করে। কিন্তু পথিমধ্যে প্রশাসনের হাতে আটক হলে তাদের প্রতারণার শিকার হিসেবে গন্য করা হয়। এমন কোন ধরনের স্থানীয় প্রশাসনের কাছে অভিযোগ নেই, কাঠের বোটে করে মালয়েশিয়া না গিয়ে প্রতারনার শিকার হয়ে যাত্রীরা লিখিত অভিযোগ করেছেন এমন নজির নেই।
প্রশাসন জড়িত দালালদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করলে প্রকৃতপক্ষে কোন চিহ্নিত দালালকে এ পর্যন্ত আটক করতে পারেনি থানা পুলিশ। অভিযোগ উঠেছে, দালালরা প্রশাসনকে মাসোহারা দিয়েই আরো বীরদর্পে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের লাভবান এ পেশা। যেন এ দেশ থেকে বেকারত্ব দূরীকরন তাদের মহান দায়িত্ব ! প্রকৃত পক্ষে এসব সহজ, সরল মানুষদেরকে সোনার হরিণ ধরার প্রলোভন দেখিয়ে স্বপ্নের দেশ মালয়েশিয়া পৌছানোর নাম করে সর্বশান্ত করে দিচ্ছে এসব দালাল চক্র। বছর খানেক আগেও দালালরা কক্সবাজার জেলার মানুষকে টার্গেট করলেও বর্তমানে তাদের নেটওয়ার্ক এতই বিস্তৃত হয়েছে যে, উত্তরবঙ্গ থেকে শুরু দেশের আনাছে-কানাছে ছড়িয়ে পড়েছে। চলতি মাসে বিজিবি-কোস্টগার্ডের অভিযানে যত মালয়েশিয়া গামী আটক হয়েছে তার মধ্যে অধিকাংশ উত্তরবঙ্গের।
এলাকার মানবাধিকার কর্মীদের দাবী, প্রশাসনের হাতে আটক মালয়েশিয়াগামী যাত্রীদের স্বীকারোক্তি মতে যেসব দালালদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু হচ্ছে, তারা কি দেশে বসবাস করছে না, নাকি তাদের হাত প্রশাসনের চেয়ে লম্বা ? পত্র-পত্রিকায় জড়িত দালালদের বিরুদ্ধে যেসব মামলা হয়েছে মর্মে সংবাদ প্রকাশিত হয় এর সূত্র ধরে এসব দালালদের একদিনের মধ্যে আটক করা সম্ভব। কিন্ত তা কোন সময় দেখিনি। সরকার মানব পাচার রোধে সংসদে যে আইন পাশ করেছে তার নূন্যতম প্রয়োগ চোখে পড়ছে না।
৪২ বিজিবির টেকনাফ ব্যাটলিয়নের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর শফিকুর রহমান বলেন, প্রতারণার শিকার ২৪ জনকে পুলিশে সোপর্দ করা হয় এবং সাগরপথে মালয়েশিয়া মানব পাচারের অভিযোগে স্থানীয় দালাল চক্রের সদস্যদের আসামী করে মানবপাচারের একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।
এব্যাপারে টেকনাফ মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরহাদ বলেন, আটককৃতদের ঠিকানা যাচাই-বাচাই শেষে আইনগত ব্যবস্থা না থাকায় ছেড়ে দেওয়া হয় এবং জড়িত দালালদের বিরুদ্ধে কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি আপনার পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন...

Comments are closed.

More News Of This Category
©2011 - 2020 সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | TekNafNews.com
Developed by WebArt IT